ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট ২০২০, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ২৩ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

এক শর্তে ট্রাম্পের সাথে বন্ধুত্ব করতে চান আসাদ

প্রকাশের সময় : ১৭ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

ইনকিলাব ডেস্ক : সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ মার্কিন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মিত্রতা প্রত্যাশা করছেন। এক সাক্ষাৎকারে আসাদ বলেছেন, ট্রাম্পের নির্বাচনি প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ অভিযান চালিয়ে গেলে তিনি সিরিয়ার স্বাভাবিক মিত্রে পরিণত হতে পারেন। পর্তুগালের রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত আরটিপি টেলিভিশন নেটওয়ার্ককে দেয়া সাক্ষাৎকারে আসাদ এসব কথা বলেন। আসাদ বলেন, ট্রাম্প যদি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে তার অঙ্গীকার পূরণ করেন তাহলে তিনি হবেন একজন স্বাভাবিক মিত্র। এদিকে সিরিয়ায় সংঘাত আরও জোরালো রূপ নিচ্ছে। সরকারি বিমান থেকে বিদ্রোহীদের দখলে থাকা আলেপ্পোর পূর্বাঞ্চলীয় এলাকায় বোমা বর্ষণ করা হয়েছে গত মঙ্গলবার। তিন সপ্তাহের মধ্যে এটাই প্রথম হামলা বলে মানবাধিকার কর্মীরা জানাচ্ছেন। ২০১১ সালের মার্চ মাস থেকে সিরিয়ায় গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত তিন লাখের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। আসাদ বলেন, তিনি কি করতে যাচ্ছেন তা আমরা এখনও জানি না। কিন্তু সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে তিনি যদি লড়াই শুরু করেন, সেক্ষেত্রে রাশিয়ান এবং ইরানিদের সাথে যে ধরনের বন্ধুত্ব তেমনটাই সিরিয়ার সাথেও হতে পারে। বর্তমান মার্কিন নীতি অনুসারে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান আইএস এবং অন্যান্য জিহাদিদের বিরুদ্ধে। সেই সাথে বাশার আসাদের বিরোধী পক্ষকে সমর্থন করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। এমন প্রেক্ষাপটে মি. ট্রাম্প তার প্রতিশ্রুতি কতটা পূরণ করতে পারবেন সে বিষয়েও সন্দেহ প্রকাশ করেন সিরীয় প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, মি. ট্রাম্প তথাকথিত ইসলামিক স্টেট বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি কি তা সত্যিই করতে পারবেন? সুতরাং বিষয়টি সতর্কভাবে পর্যবেক্ষণ করা হবে বলেও উল্লেখ করেন সিরিয়ার এই নেতা। এর আগে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন যে, সিরীয় বাহিনী এবং আইএস জঙ্গি-দুই পক্ষের বিরোধিতা করা ছিল উন্মাদনা এবং সিরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ রাশিয়া পর্যন্ত গড়াতে পারে। অপর এক খবরে বলা হয়, সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের আশা সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে তিনি পাশে পাবেন। তিনি আশা করছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একজন বন্ধু হয়ে উঠবেন। তবে সতর্কভাবে তাকে পর্যবেক্ষণও করছে সিরিয়া। মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিটকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, আসাদকে উৎখাত করার চেয়ে সিরিয়ায় আইএসকে পরাজিত করার ওপর বেশি গুরুত্ব দেবে তার প্রশাসন। ওয়াল স্ট্রিটকে ট্রাম্প বলেছিলেন, সিরিয়া ইস্যুতে অনেক মানুষের চেয়ে আমার ভিন্ন মত রয়েছে। আমার দৃষ্টিভঙ্গি হচ্ছে, আপনারা সিরিয়ার সঙ্গে লড়াই করছেন, সিরিয়া আইএস-এর সঙ্গে লড়াই করছে, আপনাদেরকে আইএস থেকে মুক্তি পেতে হবে। রাশিয়া সিরিয়ার সঙ্গে পুরোপুরি যুক্ত হয়ে গেছে। এখন ইরান ক্ষমতাশালী হচ্ছে। এ দেশটিও সিরিয়ার সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়েছে। এখন আমরা সিরিয়ার বিদ্রোহীদের সমর্থন দিচ্ছি এবং আমাদের কোনও ধারণা নেই যে এ লোকগুলো কারা। বিবিসি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন