সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চীন-রাশিয়ার ব্যবসা বেড়েছে ২৬ শতাংশ

চলতি বছরের প্রথম ৪ মাস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০২২, ১২:০৩ এএম

চলতি বছরের প্রথম ৪ মাসে দুই পরাশক্তি চীন-রাশিয়ার যৌথ ব্যবসা প্রায় ৫২ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে। গত বছরের তুলনায় এ বছর প্রবৃদ্ধির হার প্রায় ২৬ শতাংশ বেশি।

পশ্চিমাগোষ্ঠীর একের পর এক নিষেধাজ্ঞার বাণে জর্জরিত রাশিয়া নিজের বিশ্বস্ত ব্যবসা সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছে চীনকে। চীনও হতাশ করেনি রাশিয়াকে। চীনের রাজস্ব বিভাগের তথ্যমতে, ইউরোপ থেকে নিজের ব্যবসার সিংহভাগ এশিয়ার শক্তিধর দেশ চীনে নিয়ে আসায় গত বছরের তুলনায় এ বছর দেশ দুটির ব্যবসা বেড়েছে ২৫ দশমিক ৯ শতাংশ। চীনা মুদ্রায় এর পরিমাণ প্রায় ৩৪৪ বিলিয়ন ইউয়ান।

চীনের রাজস্ব বিভাগের জানিয়েছে, চলতি বছরের এপ্রিল মাস পর্যন্ত চীন রাশিয়াতে ১১ দশমিক ৩ শতাংশ রফতানি বাড়িয়েছে, বাজারে যার মূল্যমান ২০ দশমিক ২৪ বিলিয়ন ডলার। এদিকে চীনের বাজারে রাশিয়ার পণ্য বিক্রি বেড়েছে ৩৭ দশমিক ৮ শতাংশ (৩০ দশমিক ৮৫ বিলিয়ন ডলার)। এ ছাড়া দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য বেড়েছে ৮ দশমিক ৭ শতাংশ (১২ দশমিক ৬৯ বিলিয়ন)। ফেব্রুয়ারির শেষার্ধে ও মার্চে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার মুখে রাশিয়া ৭০ শতাংশ জ্বালানি তেল, প্রাকৃতিক গ্যাস ও কয়লা ইউরোপের পরিবর্তে চীনে রফতানি করেছে। এছাড়া চীনের বাজারে রাশিয়ান কপার, কাঠ, ফুয়েল ও সামুদ্রিক খাদ্যপণ্যের পরিমাণ উল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে।

এদিকে রাশিয়া থেকে পশ্চিমা কোম্পানিগুলো তাদের ব্যবসা গুটিয়ে নেয়ার সুবাদে রাশিয়ার বাজার দখল করেছে চীন। রাশিয়ার বাজার চীনা স্মার্টফোন, বাচ্চাদের খেলনা, জুতা, মোটরসাইকেল, এসি ও কম্পিউটারে সয়লাব হয়ে গেছে। ২০২০ সালে মহামারিকালে চীন ও রাশিয়ার মধ্যে প্রায় ১০৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের ব্যবসা হয়েছিল। ২০২১ সালে রেকর্ড পরিমাণ দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা করে রাশিয়া-চীন। গত বছর দেশদুটি দ্বিপাক্ষিকভাবে প্রায় ১৪৭ বিলিয়ন ডলারের ব্যবসা করে। এর আগে গত ফেব্রুয়ারিতে বেইজিংয়ে শীতকালীন অলিম্পিকের সময় বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বাড়ানোর বিষয়ে একমত হন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। পাশাপাশি রাশিয়ার তেল ও গ্যাস খাতে ১১৭ বিলিয়ন ডলারের চীনা বিনিয়োগেরও চুক্তি করেন দুই নেতা।

এদিকে সুইফট থেকে রাশিয়া বাদ পড়ায় বর্তমানে চীনের সঙ্গে ইউয়ানে লেনদেন বাড়িয়েছে মস্কো। আগে দুই দেশের মধ্যে মাত্র ১৭ শতাংশ লেনদেন ইউয়ানে হলেও ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর এ হার বেড়েই চলেছে। বিশেষ করে মার্চ থেকে ইউয়ান ব্যবহার করে জ্বালানি কিনছে চীনের পেট্রো কেমিক্যাল কোম্পানিগুলো।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
আহমদ ১১ মে, ২০২২, ১:১৭ এএম says : 0
পশ্চিমাগোষ্ঠীর একের পর এক নিষেধাজ্ঞার বাণে জর্জরিত রাশিয়া। তবুও তারা মনোবল হারাননি। নিজের বিশ্বস্ত ব্যবসা সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়েছে চীনকে। চীনও হতাশ করেনি রাশিয়াকে। ফলে চলতি বছরের প্রথম ৪ মাসে দুই পরাশক্তি চীন-রাশিয়ার যৌথ ব্যবসা প্রায় ৫২ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে গেছে।
Total Reply(0)
আহমদ ১১ মে, ২০২২, ১:১৮ এএম says : 0
চীন একটা পর্যায় ব্যবসার দিক দিয়ে আরো ভালো অবস্থানে যাবে
Total Reply(0)
আনিস ১১ মে, ২০২২, ১:২০ এএম says : 0
যুক্তরাষ্ট্রের পরেই ব্যবসার দিক দিয়ে চীনের অবস্থান। তারা তাদের এ অবস্থান ধরে রাখলে তারা বিশ্বের ১ নাম্বার ব্যবসায়ী দেশ হতে পারবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps