বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

মধ্যরাতে ভয়ানক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন অঞ্জনা

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ মে, ২০২২, ৫:২৮ পিএম

ভয়ানক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হলেন এক সময়ের পর্দা কাঁপানো জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অঞ্জনা। গতকাল বুধবার দিন গড়িয়ে রাত তখন আনুমানিক তিনটা। চারদিকে শুনশান নীরবতা। গোটা ঢাকা শহর ঘুমিয়ে। রাস্তায় শুধু দু-একটি গাড়ির আওয়াজ। এমন সময় রাজধানীর উত্তরখানে অবস্থিত তার নির্মাণাধীন বাড়িতে ওই গভীর রাতে কারা যেন লুকিয়ে ঢুকে পড়ে। টের পেয়ে চিৎকার দিয়ে উঠেন এই অভিনেত্রী। তার চিৎকারে সঙ্গে সঙ্গে পালিয়ে যায় তারা। এরপরই ফোন করে সাহায্য চাওয়া হয় উত্তরখান থানায়।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে রাতেই এক ফেসবুক স্ট্যাটাস দেন অঞ্জনা। সেখানে তিনি লিখেছেন, ‘আজ এক ভয়ানক অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলাম রাত তখন আনুমানিক ২টা, আমি ড্রইং রুমে গেলাম। হঠাৎ আমার বাড়ির ছাদে মানুষের পায়ের আওয়াজ, ফিসফিস কথার শব্দ। ভয়ে গা শিউরে উঠলো এত রাতে ছাদে কে। আমি সঙ্গে সঙ্গে আমার ছেলেকে ডাকি। আমাদের শব্দ পেয়ে ৩ তলার ছাদ বেয়ে আগন্তুকগণ নিচে নেমে যায়।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমি এক মুহূর্ত দেরি না করে উত্তরখান থানায় ফোন করি। সঙ্গে সঙ্গে এসআই মুশফিক ভাইসহ ৬-৭ জন পুলিশ সদস্য ১০ মিনিটের মধ্যে আমার বাড়ির নিচে চলে আসলো। বাড়ির সামনের সাইডের একটি অংশে আমার বাড়ির নির্মাণাধীন কাজের অনেক বালি রাখা ছিল। ৩ তলার ছাদ বেয়ে দুই তালার বারান্দার কার্নিশের অংশ থেকে নিচে বালিতে লাফ দিয়ে নেমেছিল তারা। বালিতে ৩-৪ জনের পায়ের ছাপ তৎক্ষণাত শনাক্ত করা হয়।’

প্রশাসনকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে তিনি আরও লিখেছেন, ‘চির কৃতজ্ঞতা আপনাদের প্রতি সত্যিকার অর্থেই পুলিশ জনগণের বন্ধু এটা নিঃসন্দেহে প্রমাণিত। আমার ড্রাইভার ছুটিতে বাসায় একমাত্র আমি ও আমার ছেলে। দারোয়ানও আজ বৃষ্টির জন্য আসতে পারেনি। তাই হয়তো কেউবা এই সুযোগটাই খুঁজছিল কোনো ক্ষতি করার। যাই হোক আল্লাহর রহমতে কোনো প্রকার ক্ষতি হয়নি। আবারও কৃতজ্ঞতা পোষণ করি বাংলাদেশ পুলিশ প্রশাসনের প্রতি।’

তিনি আরো বলেন, ‘গত রাতটি পুরো ভয়ের মধ্যেই ছিলাম। ৩টার দিকে এমন ঘটনার পর আর ঘুম আসছিল না। পুলিশের পক্ষ থেকে অনেক সাহায্য পেয়েছি। শুধু তাই না, তাই এ বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে দেখার কথাও জানিয়েছে। কাল বুঝতে না পারলে বা পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে না আসলে বড় কোনো দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps