শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক সংবাদ

তিন দিনে ৮ লক্ষাধিক আক্রান্ত উত্তর কোরিয়ায় মৃত্যু ৪২

কোভিড লকডাউন : সাংহাইয়ে খুলছে মল, দোকানপাট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

উত্তর কোরিয়ায় গত তিন দিনে আট লাখের বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ১৫ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। রোববার উত্তর কোরিয়ার প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গত কয়েক দিনে সব মিলিয়ে ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনায়। মাত্র তিন দিনে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮ লাখ ২০ হাজার ৬২০ জনের। যাদের মধ্যে ৩ লাখ ২৪ হাজার ৫৫০ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশব্যাপী লকডাউনে কড়াকড়ি শুরু করেছে উত্তর কোরিয়া। পণ্য উৎপাদন থেকে পণ্য পরিবহণ— সব কিছু আপাতত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছেন, করোনা সংক্রমণ রোধে উত্তর কোরিয়ার উদাসীনতা রয়েছে। দেশে এ পর্যন্ত করোনা টিকাকরণ হয়নি। করোনা পরীক্ষাতেও জোর দেওয়া হয়নি। উল্লেখ্য, গত ১২ মে প্রথমবারের মতো করোনা রোগী শনাক্তের খবর জানায় উত্তর কোরিয়ার সরকার। করোনার বিস্তার রোধে দেশজুড়ে লকডাউনের আদেশ দিয়েছেন শীর্ষ নেতা কিম জং উন। করোনার বর্তমান পরিস্থিতিকে ‘মহাবিপর্যয়’ বলে উল্লেখ করেন কিম জং উন। অপর এক খবরে বলা হয়, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে কয়েক সপ্তাহ ধরে কঠোর লকডাউনে থাকা চীনের অর্থনৈতিক ও নির্মাণ হাব সাংহাইয়ে শপিং মল ও সেলুনসহ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শহরটির কর্তৃপক্ষ। সোমবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হচ্ছে বলে রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন সাংহাইয়ের ভাইস মেয়র। ব্যবসা-বাণিজ্যের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ চীনা এ শহরটি ৬ সপ্তাহেরও বেশি সময় সময় ধরে লকডাউনে আছে; ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে চূড়ান্ত ধাক্কা দিতে সম্প্রতি শহরটির কিছু অংশে কড়াকড়িও বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ভাইস মেয়র চেন টং বলেছেন, শপিং মল, মুদি দোকান ও সুপারমার্কেটগুলো তাদের কার্যক্রম শুরু করতে পারবে, ক্রেতাদের ‘সুশৃংখলভাবে’ কেনাকাটার অনুমতি দেওয়া হবে। চুল কাটার সেলুন ও সব্জি বাজারও সীমিত আকারে খুলে দেওয়া হবে। সাংহাইয়ে কঠোর লকডাউনের মধ্যে এতদিন বাসিন্দারা কেবল অতি প্রয়োজনীয় কেনাকাটাই করতে পারতেন, অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে স্বাভাবিক কেনাকাটাও স্থগিত ছিল। রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন