রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের কোনো স্থান নেই যুক্তরাষ্ট্রে : বাইডেন

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ মে, ২০২২, ১২:০৩ এএম

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদের নিন্দা করেছেন, পাশাপাশি বর্ণবাদী ষড়যন্ত্র তত্ত্ব ছড়ানোর জন্য গণমাধ্যম, ইন্টারনেট ও রাজনীতিরও সমালোচনা করেছেন। নিউ ইয়র্ক রাজ্যের বাফেলোতে এক বর্ণবাদী হামলায় ১০ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় শোক জানানোর পর বাইডেন এ প্রতিক্রিয়া জানান। বাফেলোর যে সুপারমার্কেটে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে তার কাছে একটি গাছের নিচে স্থাপিত স্মৃতিসৌধে মঙ্গলবার শ্রদ্ধা জানান বাইডেন, তার স্ত্রী জিল ও নিউ ইয়র্কের রাজনৈতিক নেতারা; খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের। বাইডেন বলেন, “এখানে যা ঘটেছে তা সরাসরি সন্ত্রাসবাদ, সন্ত্রাসবাদ, অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদ।” গত শনিবার বাফেলো শহরে কৃষ্ণাঙ্গ অধ্যুষিত এলাকার একটি সুপারমার্কেটে শ্বেতাঙ্গ অস্ত্রধারী পেইটন এস গেনড্রনের (১৮) গুলিতে ১০ জন নিহত ও আরও তিনজন আহত হয়। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সে ‘জাতিগতভাবে অনুপ্রাণিত সহিংস চরমপন্থার’ বশবর্তী হয়ে টপস ফ্রেন্ডলি মার্কেটে ১৩ জনকে গুলি করে যাদের অধিকাংশেই কৃষ্ণাঙ্গ। এ ঘটনায় গেনড্রনের বিরুদ্ধে ফার্স্ট-ডিগ্রি মার্ডারের অভিযোগ আনা হয়েছে। বিনাজামিনে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে, যদিও তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করেছেন। এ ঘটনায় নিহতদের পরিবারের সদস্য ও প্রথম যারা হামলাকারীকে প্রতিরোধ করার চেষ্টা করেছিলেন তাদের সঙ্গে কথা বলার কিছুক্ষণ পর দেওয়া বক্তৃতায় বাইডেন বলেন, “শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদ একটি বিষ। এটি একটি বিষ, যা সত্যিই আমাদের মনোদৈহিক রাজনীতিতে প্রবাহিত হচ্ছে। আমাদের পরিষ্কার ও যতটা সম্ভব জোরালোভাবে বলা দরকার যে আমেরিকায় শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের মতাদর্শের কোনো স্থান নেই।” মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড ও বাইডেন প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদের সহিংসতাকে যুক্তরাষ্ট্রের মোকাবেলা করা অন্যতম বৃহত্তম সন্ত্রাসবাদ বলে অভিহিত করেছেন। ২০২০ সালে দেশটিতে শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী প্রচার-প্রপাগান্ডা চরমে উঠেছিল। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, তারা গেনড্রনের অনলাইন পোস্টগুলো খতিয়ে দেখছেন, সেগুলোর মধ্যে ১৮০ পৃষ্ঠার একটি মেনিফেস্টো আছে যার পুরোটা জুড়েই বারবার বোঝানো হয়েছে যে শ্বেতাঙ্গরা যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য স্থানে অন্য বর্ণের মানুষের সংখ্যাধিক্যের কারণে বিলুপ্ত হওয়ার ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। এই বর্ণবাদী ষড়যন্ত্র তত্ত্ব ‘রিপ্লেসমেন্ট থিওরি’ বা ‘প্রতিস্থাপন তত্ত্ব’ নামে পরিচিত। যুক্তরাষ্ট্রে এই ধারণার দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে আর দেশটির কিছু রক্ষণশীল রাজনৈতিক চক্রের মাধ্যমে তা এখন বাড়তে শুরু করেছে। বাইডেন এই প্রতিস্থাপন তত্ত্বকেও আক্রমণ করে কথা বলেছেন, তবে নির্দিষ্ট কাউকে দায়ী করেননি তিনি। তিনি বলেন, “আমেরিকাকে যারা ভালোবাসার ভান করেন তারা ঘৃণা ও ভয়কে খুব বেশি অক্সিজেন যোগাচ্ছেন। সব জাতির, সব ব্যাকগ্রাউন্ডের লোকদের আমেরিকার সংখ্যাগরিষ্ঠ হিসেবে কথা বলার এবং শ্বেতাঙ্গ শ্রেষ্ঠত্ববাদকে প্রত্যাখ্যান করার এখনই সময়।” নিউ ইয়র্ক টাইমস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps