বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

চলতি মাস থেকেই আশ্রয়প্রার্থীদের রুয়ান্ডায় পাঠানো শুরু করবে ব্রিটেন

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২২, ৯:২৯ এএম

ব্রিটেন থেকে মে মাসের শেষ নাগাদ ৫০ আশ্রয়প্রার্থীকে রুয়ান্ডায় পাঠানো হতে পারে। দেশটির সরকারের এক মুখপাত্র মঙ্গলবার এই তথ্য জানিয়েছেন। রুয়ান্ডার সঙ্গে আশ্রয়প্রার্থী স্থানান্তর চুক্তির আওতায় তাদের পাঠানো হবে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা গেছে।
চলতি বছরের এপ্রিলেই ব্রিটিশ সরকার ঘোষণা করেছিল যে, তারা ব্রিটেনে অবৈধভাবে আশ্রয়প্রার্থীদের রুয়ান্ডায় স্থানান্তর করবে। ব্রিটিশ সরকার তখন থেকেই বলে আসছিল, তাঁরা অবৈধ অভিবাসী, মানবপাচার, সন্ত্রাসী কার্যক্রম হ্রাসে এই পদক্ষেপ নিয়েছে। তবে, এ মাসে মানবাধিকার সংস্থাগুলো ব্রিটিশ সরকারের এই সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে স্থানান্তর রুখতে মামলা দায়ের করতে পারে।
রুয়ান্ডা সরকারে মুখপাত্র আলাইন মুকুরারিন্দা বলেছেন, ‘আমাদের কাছে থাকা তথ্য অনুসারে আশ্রয়প্রার্থীদের প্রথম ব্যাচটি এ মাসের শেষ নাগাদ পৌঁছাতে পারে। তবে কতজন আসবে এবং কবে আসবে এই বিষয়ে ব্রিটিশ সরকারই ভালো জানেন।’
আলাইন মুকুরারিন্দা আরও বলেছেন, ‘এখানে আসার পর তাঁরা যখনই তাঁদের আশ্রয়প্রার্থী হিসেবে পরিচয় লাভ করবেন তখন থেকেই তাঁরা এখানে অন্যান্য রুয়ান্ডাবাসীর মতোই জীবনযাপন করতে পারবেন।’
তবে এই বিষয়ে ব্রিটেন সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তবে, ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে, অবৈধ আশ্রয়প্রার্থীদের রুয়ান্ডায় পাঠাতে দেশটির প্রাথমিকভাবে খরচ হবে অন্তত ১৫৮ মিলিয়ন ডলার।
তবে শুরু থেকেই বিশ্বের মানবাধিকার সংস্থাগুলো ব্রিটেনের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে আসছে। সংস্থাগুলো জানিয়েছে, রুয়ান্ডার মানবাধিকার পরিস্থিত সন্তোষজনক নয়। তাই সেখানে আশ্রয়প্রার্থীদের পাঠানো হবে অমানবিক সিদ্ধান্ত। সূত্র : রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
Khondaker Shahjahan ২০ মে, ২০২২, ৬:১১ পিএম says : 0
বৃটিশ জাত এ রকমই। এরা মানুষকে উস্কানি দিয়ে শরণার্থী বানাতে পারে, কিন্তু নিজের দেশে নাগরিকত্ব দিতে আগ্রহী নয়।
Total Reply(0)
Khondaker Shahjahan ২০ মে, ২০২২, ৬:১১ পিএম says : 0
বৃটিশ জাত এ রকমই। এরা মানুষকে উস্কানি দিয়ে শরণার্থী বানাতে পারে, কিন্তু নিজের দেশে নাগরিকত্ব দিতে আগ্রহী নয়।
Total Reply(0)
Khondaker Shahjahan ২০ মে, ২০২২, ৫:৩৪ পিএম says : 0
বৃটিশ সরকার মানুষকে উস্কানি দিতে ওস্তাদ, কিন্তু মানুষের সুখ-দুঃখের সাথী হতে তাদের যত অনীহা। একজন ভারতীয় বয়োজ্যেষ্ঠ শিখ গুরুর বচন " দুনিয়ায় যেদিন বৃটিশের সর্বাঙ্গীণ পরাজয় ঘটবে সেদিক পৃথিবী থেকে বেঈমানি লোপ পাবে "।
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps