বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ধামরাইয়ে পিটিয়ে ব্যবসায়ীকে হত্যা, খুনি আটক

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ মে, ২০২২, ১০:২৮ পিএম

ঢাকার ধামরাইয়ে মাটির ব্যবসাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে মোঃ ফরহাদ হোসেন (৪৪) নামের এক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে।

এই ঘটনায় জাকারিয়া নামের একঘাতককে এলাকাবাসী আটক করে উত্তম মাধ্যম দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার (২০মে) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে গাংগুটিয়া ইউনিয়নের গাংগুটিয়া বাজারে এমন ঘটনাটি ঘটে।

নিহত ফরহাদ হোসেন গাংগুটিয়া ইউনিয়নের অর্জুনালাই গ্রামের মৃত দলিল উদ্দিন দলু বেপারীর ছেলে। আটক জাকারিয়া একই গ্রামের মোঃ মজিবর রহমানের ছেলে।

এলাকাবাসি সুত্রে জানাযায়, একই গ্রামের জাকারিয়া ও মতিউর রহমানের সাথে মাটির ব্যাবসা নিয়ে দীর্ঘ দিন ধরে সংঘর্ষ চলে আসছিল। সেই সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে আজ সন্ধ্যার পর জাকিরিয়া মতিউর রহমানকে মারার জন্য তার বাহিনী নিয়ে গাংগুটিয়া বাজারে যায়। সেখানে মতিউর রহমান মতিকে মারার জন্য দেশিয় অস্ত্র হাতুরি দিয়ে আঘাত করেন। মতিকে মারধর করা অবস্থায় একই গ্রামের ফরহাদ হোসেন মারধর থামাতে যায়।
তখন জাকারিয়াসহ তার বাহিনি ফরহাদ হোসেনের মাথায় বরাবর হাতুরি দিয়ে আঘাত করলে সাথে সাথে ফরহাদ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। এর পরও জাকারিয়া তার হাতের দেশীয় আস্ত্র নিয়ে ফরহাদকে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে। এসময় ফরহাদ হোসেন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে আশপাশের লোকজন আহত অবস্থায় চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।
আটক জাকারিয়া বাহিনী এতেও ক্ষ্যান্ত না হয়ে নিহত ফরহাদ হোসেনের স্ত্রীর ও ছেলের উপর হামলা চালায়।

এই সময় বাজারের লোকজন জাকারিয়াকে আটক করে গণধোলাই দেয়।

এই বিষয়ে মিজানুর রহমান বাবু বলেন, আমরা আজ সন্ধ্যায় গাংগুটিয়া বাজারে বসে আলাপ করছিলাম। এই সময জাকারিয়া তার বাহিনী নিয়ে মতিউর রহমানকে মারতে গেলে আমি ও ফরহাদ থামাতে যায়। সেখানে জাকারিয়ার হাতে থাকা হাতুরি দিয়ে ফরহাদের মাথা আঘাত করলে ফরহাদ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

এই বিষয়ে ধামরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোঃ আরাফাত হোসেন বলেন, গাংগুটিয়া ইউনিয়নে মাটির ব্যবসাকে কেন্দ্র জাকারিয়ার আঘাতে ফরহাদ হোসেন নিহত হয়। দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে জাকারিয়াকে আটক করে থানায় আসি এবং লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

এই ব্যাপারে হত্যা মামলার প্রস্ততি চলছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps