বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ইউক্রেনের ল্যাবে অবৈধভাবে ইবোলা গুটিবসন্তের গবেষণা করছে যুক্তরাষ্ট্র

রাশিয়ার সংসদীয় তদন্ত দলের কো-চেয়ারম্যান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

ইউক্রেনের আমেরিকান বায়োলজিক্যাল ল্যাবরেটরির তদন্তের সংসদীয় কমিশনের কো-চেয়ার ইরিনা ইয়ারোভায়া বলেছেন, ইউক্রেনে ইবোলা এবং গুটিবসন্ত ভাইরাস নিয়ে গবেষণা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

গত শুক্রবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজ, আমরা ইউক্রেনে কোন রোগজীবাণুর প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশেষভাবে আগ্রহী ছিল তার একটি বিশ্লেষণ উপস্থাপন করেছি’। ‘আঞ্চলিকভাবে ইউক্রেনের সাথে আবদ্ধ প্যাথোজেনগুলো ছাড়াও [ল্যাবরেটরিগুলো] ভাইরাস এবং প্যাথোজেনগুলোর ওপর গবেষণা চালিয়েছে, যেগুলো ইউক্রেনের বাইরেও স্থানীয়, যেমন ইবোলা এবং গুটিবসন্ত’।

বিধায়কের মতে, প্রাপ্ত তথ্যগুলো ইঙ্গিত করে যে, ‘আক্রমণাত্মক লক্ষ্যবস্তু যা এসব প্রোগ্রামের ওপর ভিত্তি করে ইউক্রেনের মাটিতে মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগ দ্বারা বাস্তবায়িত হয়েছে’। ‘দুর্ভাগ্যবশত, এটি বিশেষভাবে জোর দেয়া প্রয়োজন যে, ইউক্রেনের সরকার তার নিজের জনগণের বিরুদ্ধে যে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে তা ইউক্রেনের নাগরিকদের এ কারসাজি, পরীক্ষা-নিরীক্ষা এবং গোপন গবেষণার মুখে কার্যকরভাবে প্রতিরক্ষাহীন করে তুলেছে যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডে করছে’ -ইয়ারোভায়া জোর দিয়ে বলেন।

তিনি বলেন, রাশিয়ান ফরেন ইন্টেলিজেন্স সার্ভিসের (এসভিআর) পরিচালক সের্গেই নারিশকিন শুক্রবার কমিশন সভায় প্রধান বিশেষজ্ঞ হিসেবে বক্তব্য রাখেন।
‘আমি বিশেষ গুরুত্ব দিতে চাই যে, এদিন এসভিআর প্রধানের সাথে আমাদের কথোপকথন, কমিশনের প্রাপ্ত প্রমাণের সাথে বিশ্বজুড়ে মার্কিন-নির্মিত জৈবিক বুদ্ধিমত্তার নেটওয়ার্ক এবং বিশ্বের সক্রিয় সামরিক-জৈবিক শোষণের বাস্তবায়নকে সম্পূর্ণরূপে নিশ্চিত করে এবং বিশেষ করে ইউক্রেন। ইয়ারোভায়া সতর্ক করে দিয়ে বলেন, এটি অনিবার্যভাবে একটি গুরুতর বৈশ্বিক হুমকির সৃষ্টি করে’।

এমপির মতে, আজ রাশিয়ার মূল লক্ষ্য তার জাতীয় স্বার্থ রক্ষা করা এবং রাশিয়ান জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। ‘কিন্তু একই সময়ে, [এটি] মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাতে সঙ্ঘটিত এ গোপন এবং বিপজ্জনক সামরিক জৈবিক কার্যকলাপের তলদেশে যাওয়ার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়কে অবশ্যই আহ্বান জানাতে হবে সমান এবং অবিভাজ্য সুরক্ষা সম্পর্কিত ব্যাপক পদক্ষেপগুলো বিকাশ করার জন্য’। পার্থক্য দেওয়া হয়েছে ব্যাকটিরিওলজোকাল গবেষণার শান্তিপূর্ণ এবং অ-শান্তিপূর্ণ ব্যবহার এবং বিষাক্ত পদার্থের অধ্যয়নের মধ্যে, এটি সম্পূর্ণ স্বচ্ছ এবং নিয়ন্ত্রিত হওয়া উচিত এবং বিশ্বে কেবলমাত্র কোনো ব্যাকটিরিওলজিকাল অস্ত্র থাকা উচিত নয়, এটি রাশিয়ার প্রভাবশালী অবস্থান’ -ইয়ারোভায়া জোর দিয়ে বলেন। সূত্র : তাস।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps