রোববার, ২৬ জুন ২০২২, ১২ আষাঢ় ১৪২৯, ২৫ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ব্র‏হ্মপুত্র নদ থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন ৬ জনকে আটকের পর মুচলেকা নিয়ে ছাড়

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২২ মে, ২০২২, ৯:০৭ পিএম

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে ব্র‏হ্মপুত্র নদ থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ৬ জনকে আটক করা হয়। দুপুরে অভিযান চালিয়ে আটকের পর বিকেলে সেই আটক ৬জনকে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাহবুবুর রহমান মুচলেকা রেখে ছেড়ে দেন।

জানা যায়, ব্র‏হ্মপুত্র নদের বালু মহাল দীর্ঘ দিন যাবত বন্ধ থাকলেও ঈশ্বরগঞ্জের উচাখিলা ইউনিয়নের বটতলা বালুরঘাট এলাকায় সম্প্রতি ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলন শুরু করে। বটতলা বালুরঘাটের বিপরীত দিকে চররামমোহন মৌজায় প্রস্তাবিত ‘ময়মনসিংহ অর্থনৈতিক অঞ্চল’ থেকেও নদ খননের স্তুপ করা ইজারাবিহীন বালু একটি চক্র নিয়ে যাচ্ছিল। অবৈধ বালু উত্তোলন ও প্রস্তাবিত অর্থনৈতিক অঞ্চল থেকে অবৈধ ভাবে বালু সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগে রোববার দুপুরে অভিযানে যান উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মাহবুবুর রহমান। বটতলা এলাকা থেকে আটক করা হয় ট্রাক্টর চালক নান্দাইলের চন্ডিপাশা গ্রামের মো. কাইয়ুম ও মিজান মিয়া এবং উচাখিলার হরিয়াখালি গ্রামের মোজাম্মেল হক নামের এক শ্রমিক।

অন্যদিকে প্রস্তাবিত অর্থনৈতিক অঞ্চল থেকে বালু সরিয়ে নেওয়ায় অভিযোগে আটক করা হয় ট্রাক চালক ত্রিশাল উপজেলার রামপুর ইউনিয়নের কাদিরকান্দা গ্রামের মুন্না মিয়াকে, বালিপাড়া গ্রামের মামুন মিয়া ও বালিপাড়া ইউনিয়নের ইছামতিগ্রামের আশরাফুল ইসলাম।

বালু উত্তোলন নিয়ে উচাখিলার বটতলা এলাকায় উপস্থিত স্থানীয় লোকজন বর্তমান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হক খান সেলিম বালু উত্তোলন চালু করছেন বলে জানালেও চেয়ারম্যান বালু উত্তোলনের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, এলাকার সাধারণ মানুষের প্রয়োজনে কিছু খেটে খাওয়া শ্রমিক সামান্য কিছু বালু উত্তোলন করছেন এবং এই বালু শ্রমিকরাই বিক্রি করছেন। এসময় তিনি আরো বলেন ছোট্ট বিষয়টি না নিয়ে ওইদিকে অর্থনৈতিক অঞ্চলের লক্ষ লক্ষ ফুট বালু অবৈধ ভাবে নিয়ে যাচ্ছে ওই বিষয়টা একটু আপনেরা জোড়ালো ভাবে দেখেন।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, শ্রমিক বিবেচনায় মুচলেকা নিয়ে প্রথমবারের মতো আটকৃকতদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে। তবে এঅভিযান অব্যহত থাকবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps