সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

রুশ হামলায় পশ্চিমা অস্ত্রের বড় চালান ধ্বংস

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ মে, ২০২২, ৬:৩৭ পিএম | আপডেট : ৮:৪০ পিএম, ২৩ মে, ২০২২

মস্কো জানিয়েছে যে, ইউক্রেনের ডনবাসের প্রতিরক্ষাকে শক্তিশালী করার উদ্দেশ্যে একটি বড় পশ্চিমী অস্ত্রের চালান ধ্বংস করেছে, কারণ রাশিয়ান সেনাবাহিনী মূল পূর্বাঞ্চল দখল করার প্রচেষ্টা জোরদার করেছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে মতে, অস্ত্রগুলো কিয়েভ থেকে প্রায় ৮০ মাইল পশ্চিমে মালিন রেলওয়ে স্টেশনের কাছে ট্রানজিট ছিল, যখন তারা ‘উচ্চ-নির্ভুল দূরপাল্লার সমুদ্র-ভিত্তিক কালিব্র ক্ষেপণাস্ত্র’ দ্বারা আঘাত করেছিল। অন্যত্র, রাশিয়া ওডেসার কৃষ্ণ সাগর অঞ্চলে ইউক্রেনের একটি বিশেষ-অপারেশন ঘাঁটি ধ্বংস করেছে বলেও দাবি করেছে।

কিয়েভকে আরেকটি ধাক্কায়, রাশিয়া বলেছে যে, তারা অবশেষে মারিউপোলের আজভস্টাল ইস্পাত কারখানা দখল করেছে, যা ইউক্রেনের দৃঢ় প্রতিরক্ষার প্রতীক হয়ে উঠেছে। দুই হাজারেরও বেশি ইউক্রেনীয় সৈন্যের আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে শহরে তিন মাসের অভিযান শেষ হয়েছে।

যুদ্ধের কেন্দ্রবিন্দু এখন ডনবাস অঞ্চলে - একটি রাশিয়ান-ভাষী এলাকা যা ২০১৪ সাল থেকে ক্রেমলিনপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দ্বারা আংশিকভাবে নিয়ন্ত্রিত। ‘তারা রুবিঝনে, ভোনোকভাখাকে সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করে দিয়েছে, ঠিক যেমন তারা মারিউপোল করেছিল,’ ভলোদিমির জেলেনস্কি শনিবার বলেছিলেন, রাশিয়ানরা ‘সেভেরোডোনেটস্ক এবং অন্যান্য অনেক শহরের সাথে একই সাথে দখল করার চেষ্টা করছে।’

আঞ্চলিক গভর্নর বলেছেন, সেভেরোডোনেটস্কে, একটি ফ্রন্টলাইন শহর যা এখন ঘেরাওয়ের ঝুঁকিতে রয়েছে, রাশিয়ার গোলাগুলিতে ১২ জন নিহত এবং আরও ৪০ জন আহত হয়েছে। শহরটি লুহানস্কে ইউক্রেনীয় প্রতিরোধের শেষ পকেটের অংশ, যেটি ডনেৎস্কের প্রতিবেশী অঞ্চলের সাথে ডনবাস যুদ্ধ অঞ্চল নিয়ে গঠিত। অস্ত্রের চালানটি সেখানে রাশিয়ান আক্রমণের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষাকে শক্তিশালী করার কথা ছিল। সূত্র: দ্য টেলিগ্রাফ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps