শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

গণকমিশনের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রকে রুখে দিতে হবে

বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৪ মে, ২০২২, ৮:২৮ পিএম

গণধিকৃত গণকমিশনের দেশের প্রচলিত আইনে ধর্মীয় উষ্কানি দেবার অপরাধে বিচার করতে হবে।"সংবিধানের কোন অনুচ্ছেদের ক্ষমতা বলে কথিত গণকমিশন দেশের নাগরিকদের বিরুদ্ধে তদন্ত করলো? দেশকে অস্থিতিশীল করতে সবসময় কৌশলে ইসলাম এবং উলামায়ে কেরামকে টার্গেট করা হয়। ইসলাম বিদ্বেষী গণকমিশনের সাথে জড়িতদের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রকে রুখে দিতে হবে। বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ পৃথক পৃথক বিবৃতি ও প্রতিবাদ সভায় এসব কথা বলেন।
জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) ঃ সাম্প্রতিক সময়ে ১০০০ মাদরাসা এবং ১১৬ জন শীর্ষ আলেমদের বিরুদ্ধে দুদকে তদন্ত রিপোর্ট জমা দেয়া কথিত গণকমিশনের কার্যক্রমের নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়ে বিবৃতি পাঠিয়েছেন জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) এর চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ। গতকাল মঙ্গলবার বিবৃতিতে ববি হাজ্জাজ বলেন, আমরা গণধিকৃত গণকমিশনের দেশের প্রচলিত আইনে ধর্মীয় উষ্কানি দেবার অপরাধে বিচার চাই। অস্বীকার করার উপায় নেই, ঐতিহাসিকভাবেই কওমি মাদরাসা এবং ওয়াজ মাহফিল এদেশের ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের আবেগ এবং অনুভূতির স্থান।
বিবৃতিতে বলা হয়, ওয়াজ মাহফিলে বিভ্রান্তিকর বক্তব্য প্রদান করা হয় কিনা সেটার তদন্ত করতে হলে শীর্ষ আলেমদের সমন্বয়ে নিরপেক্ষ কমিশন গঠন করা যেতে পারে। কিন্তু কোনপ্রকার এখতিয়ার এবং যোগ্যতা ছাড়া বিতর্কিত ব্যক্তিদের সমন্বয়ে গঠিত একটি কমিশন ঢালাওভাবে দেশের শীর্ষ আলেমদের অপমান এবং অপদস্ত করতে যে রিপোর্ট দুদকে জমা দিয়েছে সেটা ধর্মীয় উষ্কানির শামিল। অন্যদিকে এধরণের হীন কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানিয়ে টক-শোতে বক্তব্য রাখা একজন আলেমের বিরুদ্ধে মামলা করেছে আরেক বিতর্কিত সংগঠন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। আমরা দেখতে চাই, দুদক অর্থপাচারকারী, অবৈধ মুজদকারী, মাদক চোরাকারবারি এবং অবৈধ কালো টাকার মালিকদের তালিকা করে ব্যবস্থা নিচ্ছে যাতে দেশে আর কোন পিকে হালদার বা আব্দুল হাই বাচ্চুদের জন্ম না হয়।
বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখা ঃ শীর্ষ আলেম উলামা ও কথিত গণকমিশন আদর্শ মানুষ গড়ার কারিগর এক হাজার কাওমি মাদরাসাকে নিয়ে মনগড়া ভিত্তিহীন যে শ্বেতপত্র দুদকে জমা দিয়েছে তা’ ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের অংশ। কোন আলেম উলামা দুর্নীতি ও অর্থপাচারের সাথে জড়িত নয়। তথাকথিত গণকমিশনের লোকজনই দুর্নীতি ও অনৈতিক বিভিন্ন কাজে সাথে জড়িত। ইসলাম বিদ্বেষী এই চক্রের সকল ষড়যন্ত্রকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ করতে হবে। ইসলাম প্রিয় জনতার বাংলাদেশে ইসলাম বিদ্বেষীদের কোন স্থান হবে না।
সম্প্রতি বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার উদ্যোগে আলেম উলামা,বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি ও কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে পূর্ব লন্ডনের লী মেডিসন রেস্টুরেন্টের কনফারেন্স হলে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সমাজকল্যাণ সম্পাদক ও যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি শায়খুল হাদীস প্রিন্সিপাল মাওলানা রেজাউল হকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মুফতি ছালেহ আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ইউকে শাখার সভাপতি মাওলানা শুয়াইব আহমদ। এতে আরো বক্তব্য রাখেন, মাজাহিরুল উলুম লন্ডন এর প্রিন্সিপাল বিশিষ্ট আলেম শায়খ মাওলানা ইমদাদুর রহমান আল মাদানী, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের সাবেক ডেপুটি মেয়র কাউন্সিলর ওয়াহিদ আহমেদ, মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওত লন্ডন এর জেনারেল সেক্রেটারি মুফতি আব্দুল মুন্তাকিম, ইউ,কে বিএনপি এর সাবেক সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আব্দুল হামিদ চৌধুরী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও যুক্তরাজ্য শাখার সহ সভাপতি আলহাজ মাওলানা আতাউর রহমান, জাতীয়তাবাদী যুবদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক অন্যতম সহ সভাপতি আশিকুর রহমান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ মাষ্টার আমির উদ্দিন আহমদ, লেখক ও সাংবাদিক আবু সুফিয়ান চৌধুরী, মাইলেন্ড মসজিদে ইমাম ও খতিব হাফিজ মাওলানা নাজির উদ্দিন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার সহ-সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ শাহীনূর মিয়া,জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউ কে এর সেক্রেটারি মাওলানা সৈয়দ তামিম আহমদ,কমিউনিটি এক্টিভিস্ট আলহাজ্ব সৈয়দ জিল্লুল হক, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার সহ সাধারণ সম্পাদক ও বার্মিংহাম শাখার সভাপতি ব্যারিষ্টার মাওলানা বদরুল হক,সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শায়খ নাজিম উদ্দিন, সহ সাধারণ সম্পাদক ও লন্ডন মহানগর শাখার সভাপতি মাওলানা মুসলেহ উদ্দিন, যুক্তরাজ্য শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা মিছবাহুজ্জামান হেলালী, সহকারী প্রশিক্ষণ সম্পাদক মুফতি সালাতুর রহমান মাহবুব বিশিষ্ট সংগঠক ও আইনজীবী লিয়াকত সরকার, দ্যা সানরাইজ টুডের সম্পাদক এনাম চৌধুরী ও কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব আলহাজ নুর বক্স।
বক্তারা আরও বলেন, সরকার পরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিবসহ অসংখ্য আলেম উলামাদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে মাসের পর মাস কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকতে জুলুম ও নির্যাতনের পথ বেছে নিয়েছে। মনে রাখতে হবে জেল জুলুম ও নির্যাতন করে হকের আওয়াজকে বন্ধ করা যাবে না। বক্তারা অবিলম্বে নিরপরাধ সকল আলেম উলামাদের মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহবান জানান। বক্তারা সিলেটে বন্যা দুর্গত এলাকায় জরুরি ভিত্তিতে ত্রাণ সামগ্রি বরাদ্দের জোর দাবি জানান।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps