সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ১৩ আষাঢ় ১৪২৯, ২৬ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

পুলিশের সামনেই বাদীকে এজলাসের বাইরে মারধর করলো আসামী

মাদারীপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০২২, ৮:৩৬ পিএম

মাদারীপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের এজলাস কক্ষের বাহিরে, ধর্ষণ মামলার আসামী হাতে হাতকড়া নিয়ে পুলিশের সামনেই বাদীর উপর হামলা করার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (২৫ মে) দুপুরে সাড়ে ১২ টার দিকে মাদারীপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ৩য় তলায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে ধর্ষণ মামলার বাদী ও তার স্বামী আহত হয়। হামলার ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজ এই প্রতিবেদকের কাছে সংরক্ষিত আছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, কয়েক মাস আগে মাদারীপুরের কালকিনিতে দন্ত চিকিৎসক সাইদুর রহমান কিরন কাছে চিকিৎসা নিতে যান এক গৃহবধূ। এরপর ওই গৃহবধূকে চিকিৎসার নামে অচেতন করে ধর্ষণ করে এবং ধর্ষণের ভিডিও চিত্র ধারণ করে রাখে। সেই ভিডিও প্রকাশের ভয় দেখিয়ে ডাক্তার কিরন ও তার দুই বন্ধু লাগাতার কয়েক মাস ধর্ষণ করে। পরে বাধ্য হয়ে গৃহবধূ তার স্বামীকে জানান। সেই ঘটনায় কালকিনি থানায় একটি মামলা করে নির্যাতিতা গৃহবধূ। দন্ত চিকিৎসক সাইদুর রহমান কিরন ও তার বন্ধু মেহেদী হাসান শিকদার, সোহাগ মোল্লাকে আসামী করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও বাদী জানায়, ধর্ষণ মামলার আসামী মেহেদী হাসান শিকদার বুধবার দুপুর ১২ টার দিকে জেলা আদালতে হাজিরা দিতে আসে। পরবর্তীতে এজলাস কক্ষ থেকে বের হওয়ার সময় মামলার ২ নং আসামী মেহেদী হাসান শিকদার হাতে হাতকড়া পরা অবস্থায় অন্য হাত দিয়ে, দরজার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা মামলার বাদীর হাত ধরে টেনে নিচে ফেলে দেয়। এবং পেটের উপর লাথি মারে। পরবর্তীতে তার স্বামী এগিয়ে আসলে তাকেও আসামীর স্বজন মামুন প্যাদা ও সোহাগ শিকদার মারধোর করে। এবং বাদী ও তার পরিবারকে হত্যার হুমকি দিয়ে চলে যায়।

ভুক্তভোগী বলেন, আসামী হাসান হাতে হাতকড়া পড়া অবস্থায় পুলিশের সামনেই আমার উপর হামলা চালায় ও পেটের উপর লাথি মারে। আমার স্বামীকে আসামীর ভাইরা মারধর করে। আসামীর ভাই মামুন প্যাদা আমাকে হুমকি দিয়ে বলে, যদি আমার ভাই জামিন না পায় তোদের দেখে নিবো।

এ ব্যাপারে মাদারীপুর আদালতের পুলিশ পরিদর্শক রমেশ চন্দ্র দাস বলেন,‘আসামী বাদীকে লাথি মারার চেষ্টা করেছিলো। তবে পুলিশ আসামীকে টেনে সরিয়ে নিয়ে গিয়েছে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps