রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

ওয়েবওএস টিভির ওইএম ম্যানুফ্যাকচারার হলো ওয়ালটন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২২, ৬:৩৫ পিএম

আমেরিকার লাস ভেগাসে এলজি ও ওয়ালটন কর্মকর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত বিজনেস মিটিংয়ে উভয় প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


ওয়েবওএস টিভির লাইসেন্সড ওইএম ম্যানুফ্যাচারার হলো ওয়ালটন। প্রথম ও একমাত্র বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান হিসেবে দক্ষিণ কোরিয়া ভিত্তিক এলজি ইলেকট্রনিক্সের (এলজিই) ওয়েবএস টিভির প্ল্যাটফর্ম বিজনেস ইউনিটের কাছ থেকে ‘লিডিং ওইএম ফ্যাক্টরি’ হিসেবে এই স্বীকৃতি অর্জন করে নিয়েছে ওয়ালটন। এর মাধ্যমে ওয়েবওএস টিভি প্লাটফর্মে নতুন যুগের সূচনা করতে যাচ্ছে দেশীয় টেলিভিশন উৎপাদন খাত।

উল্লেখ্য, ওয়েবওএস হলো গ্রাহকবান্ধব মাল্টিটাস্কিং অপারেটিং সিস্টেম। যা তৈরি করেছে এলজিই। বিভিন্ন দেশের বেশ কয়েকটি শীর্ষ ব্র্যান্ডের টিভিতে ওয়েবওএস প্লাটফর্ম ব্যবহারের লক্ষ্যে তাদেরকে লাইসেন্সড পার্টনার করেছে এলজিই। সম্প্রতি তারা অভ্যন্তরীণ এবং আন্তর্জাতিক উভয় বাজারের জন্য ওয়ালটনকে তাদের অন্যতম একটি লিডিং ‘ওডিএম ফ্যাক্টরি’ হিসেবে ঘোষণা করেছে। এর ফলে ওয়েবওএস টিভির যেকোনো ওইএম বা ওডিএম অংশীদারদের চাহিদা মেটাতে পারবে ওয়ালটন।

এ বিষয়ে সম্প্রতি এলজি ইলেকট্রনিক্স ইনকর্পোরেশন এবং ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি’র মধ্যে একটি চুক্তি সম্পন্ন হয়। এ প্রেক্ষিতে আমেরিকার লাস ভেগাসে এলজি ও ওয়ালটন কর্মকর্তাদের মধ্যে অনুষ্ঠিত বিজনেস মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন এলজি ইলেকট্রনিক্স ইনকর্পোরেশনের সাং জুন জিওন, ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি’র ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এমদাদুল হক সরকার, ওয়ালটন গ্লোবাল বিজনেস ডিভিশনের প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড কিম এবং ওয়ালটন টিভির চিফ বিজনেস অফিসার (সিবিও) প্রকৌশলী মোস্তফা নাহিদ হোসেন। এতে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ ওয়েবওএস টিভির জন্য প্রথম ও একমাত্র বাংলাদেশি লাইসেন্সপ্রাপ্ত নির্মাতার স্বীকৃতি পায়।

জানা গেছে, ওয়ালটন ওয়েবওএস টিভি ডিজাইন করা হয়েছে ফোর-কে আল্ট্রা এইচডি, ফুলএইচডি ও এইচডি রেজ্যুলেশনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ অপারেটিং সিস্টেম দ্বারা। সহজে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য এই টিভিতে রয়েছে ইন্টিগ্রেটেড এআই (আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স) এলগরিদম এবং ভয়েস অ্যাসিস্টেন্স ফিচার। ভয়েস কমান্ড ব্যবহারকারীদের কোনো ঝামেলা ছাড়াই স্মার্ট ডিভাইসগুলি পরিচালনা করতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে এলজি থিংকিউ অ্যাপের মাধ্যমে এ পযুক্ত ম্যাজিক রিমোট বা স্মার্টফোনের ভয়েস সহায়তায় পছন্দমতো বিনোদন উপভোগের সুবিধা দেয়।

ওয়ালটন টিভির সিবিও প্রকৌশলী মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, গ্রাহকদের অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও যুগোপযোগি ফিচারের মাধ্যমে স্মার্ট টিভির নতুন অভিজ্ঞতা দেয়ার প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে ওয়ালটন। তাই, ওয়ালটন অর্জন করেছে ওয়েবওএস টিভির প্রথম বাংলাদেশি লাইসেন্সড ম্যানুফ্যাকচারারের স্বীকৃতি। গুগল সার্টিফাইড অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট টিভির মতো ওয়ালটন এখন দেশেই ওয়েবওএস টিভি উৎপাদন ও বাজারজাত করবে। তার প্রত্যাশা- ওয়েবওএস টিভি তৈরির এই নতুন উদ্যোগের ফলে দেশের বাজারে ওয়ালটন স্মার্ট টিভির চাহিদা কয়েকগুণ বাড়বে।

গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজের সদরদপ্তরে দেশের সর্ববৃহৎ টেলিভিশন গবেষণা ও উদ্ভাবন সেন্টারসহ রয়েছে আন্তর্জাতিকমানের টিভি ম্যানুফ্যাকচারিং প্লান্ট। যেখানে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির মেশিনারিজের ৩২-ইঞ্চি থেকে শুরু করে ৫৫-ইঞ্চি পর্যন্ত বিভিন্ন সাইজের বেসিক এলইডি ও গুগল সার্টিফাইড এন্ড্রয়েড স্মার্ট টিভি তৈরি করা হচ্ছে। এখন ওয়ালটনের তৈরি ওয়েবওএস টিভি বাংলাদেশে ইলেকট্রনিক পণ্য উৎপাদন খাতের জন্য হবে এক বিশাল মাইলফলক।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps