বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কাশ্মিরের স্বাধীনতাকামী নেতা ইস্যুতে ওআইসির সমালোচনার জবাবে ভারত যা বলল

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০২২, ৩:৫৫ পিএম

ভারত-অধিকৃত জম্মু-কাশ্মিরের বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ইয়াসিন মালিককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ার সমালোচনা করায় মুসলিম দেশগুলোর সংগঠন ওআইসির নিন্দা জানিয়েছে ভারত। শুক্রবার (২৭ মে) ওআইসি-আইপিএইচআরসি (ইন্ডিপেন্ডেন্ট হিউম্যান রাইটস কমিশন)-র সমালোচনা করে ভারত দাবি করেছে, সংস্থাটি সন্ত্রাসী কার্যকলাপের জন্য স্পষ্টভাবে সমর্থন প্রকাশ করেছে।

এর আগে সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে গত বুধবার ইয়াসিন মালিককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয় দিল্লির বিশেষ একটি আদালত। শনিবার (২৮ মে) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই।
বার্তাসংস্থাটির প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, ইসলামি সহযোগিতা সংস্থাকে (ওআইসি) কোনোভাবেই সন্ত্রাসবাদকে বৈধতা না দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে ভারত বলেছে, সন্ত্রাসবাদের এই হুমকির বিরুদ্ধে জিরো-টলারেন্স চায় বিশ্ব।
এদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি বলেছেন, কাশ্মিরের স্বাধীনতাকামী নেতা ইয়াসিন মালিকের ‘সন্ত্রাসী কার্যকলাপে জড়িত থাকার তথ্য নথিভুক্ত এবং আদালতে উপস্থাপন করা’ হয়েছে।
ইয়াসিন মালিক সম্পর্কে এনআইএ আদালতের রায়ের বিষয়ে ওআইসি-আইপিএইচআরসি’র মন্তব্যের বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ভারত এই ধরনের মন্তব্যকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে মনে করে।
অরিন্দম বাগচি বলেন, ইয়াসিন মালিকের মামলায় রায়ের জন্য ভারতের সমালোচনা করে ওআইসি-আইপিএইচআরসি আজ যে মন্তব্য করেছে তা অগ্রহণযোগ্য বলে মনে করছে দিল্লি। তার দাবি, এই ধরনের মন্তব্যের মাধ্যমে ওআইসি-আইপিএইচআরসি ইয়াসিন মালিকের ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের’ প্রতি পরোক্ষভাবে সমর্থন প্রকাশ করেছে।
ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এই মুখপাত্র দাবি করেন, ইয়াসিন মালিকের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের তথ্য নথিভুক্ত করে আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছিল। বিশ্ব সন্ত্রাসবাদের প্রতি জিরো-টলারেন্স চায় এবং আমরা ওআইসিকে অনুরোধ করছি যেন তারা কোনোভাবেই এটিকে সমর্থন না করে।
ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, কাশ্মিরের বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা ইয়াসিন মালিককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয় ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ)। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী উমেশ শর্মা বলেছেন, ইয়াসিন মালিককে দুটি যাবজ্জীবন এবং ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডের পাঁচটি শাস্তি দেওয়া হয়েছে। সব সাজা একসাথে চলবে। এছাড়াও তাকে ১০ লাখ রুপি অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। তবে আদালতের এই রায়ের বিরুদ্ধে ভারতের সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করতে পারবেন ইয়াসিন মালিক। সূত্র : এএনআই

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মোঃ হেদায়েত উল্লাহ ২৮ মে, ২০২২, ৬:৫৯ পিএম says : 0
বুজলাম। জাতিসংঘের গনভোটের প্রস্তাবটা বাস্তবায়ন করুন।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps