শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

ক্ষমতাসীনরা চায় পুলিশ তাদের কথামতো চলবে

বইয়ের মোড়ক উন্মোচনে সাবেক আইজিপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে রাজনৈতিক শক্তি (ক্ষমতাসীন দল) ও আমলাতন্ত্র কখনো পুলিশের পরিবর্তন চায় না বলে মন্তব্য করেছেন পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক।

তিনি বলেছেন, ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল চায় তারা যা বলবে পুলিশ তাই করবে। সংসদ সদস্য চান, তিনি যা বলবেন, ওসি সেটাই করবেন। এসব চ্যালেঞ্জ ও প্রতিকূলতা মোকাবিলা করে কাজ করা খুবই কঠিন। গতকাল শনিবার রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে নিজের লেখা ‘পুলিশ জীবনের স্মৃতি: স্বৈরাচার পতন থেকে জঙ্গি দমন’ শীর্ষক বইয়ের প্রকাশনা উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, আমি রাজনৈতিক অপশক্তির কাছে মাথা নত করিনি। চেয়ার চেয়ে চাকরি করিনি। বদলি হয়েছে, চলে গিয়েছি। সমাজে পুলিশ আছে বলে এর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করি না। সরকার যদি ঘোষণা দেয়, দুই ঘণ্টার জন্য পুলিশের কোনো কার্যক্রম থাকবে না, তাহলে দেশে কী পরিস্থিতি হবে?

‘চাকরিতে থাকা অবস্থায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা–কর্মীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পিছপা হইনি’ দাবি করে সাবেক আইজিপি বলেন, আমার মতো তো সবাই পারবে না। এ জন্য একটা সিস্টেম বা পদ্ধতি চালু করা উচিত, যাতে পুলিশ নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে পারে। তিনি আরো বলেন, বিচারব্যবস্থার একটি অংশ পুলিশ। তারা নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে না পারলে ক্রিমিনাল জাস্টিস সিস্টেম (ফৌজদারি বিচারব্যবস্থা) কখনো কার্যকর হবে না। পুলিশ নিরপেক্ষভাবে কাজ করতে না পারলে সুষ্ঠু তদন্ত সম্ভব নয়। পুলিশকে ঢেলে সাজানোর কথা বলা হয়। তবে, এটি রাজনৈতিক কথা। কীভাবে ঢেলে সাজাতে হয়, সেটা আমি জানি না।

শহিদুল হক বলেন, পুলিশকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে হলে আইনের সংস্কার প্রয়োজন। আমি দায়িত্বে থাকাকালে উদ্যোগ নিয়েছিলাম, কিন্তু হয়নি। সেখানে পুলিশ কমিশন গঠনের প্রস্তাব যেমন ছিল, তেমনি পুলিশ কমপ্লেইন কমিশন গঠনেরও প্রস্তাব ছিল। পুলিশের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ থাকলে, একটি স্বাধীন স্বতন্ত্র সংস্থা সেটির তদন্ত করবে। কিন্তু আমলাদের কারণে সেটি হয়নি। আর রাজনীতিকেরা তো চাইবেই না। রাজনৈতিক ও আমলাদের মন–মানসিকতার পরিবর্তন না ঘটলে সুশাসনের কথাটি শুধু সেøাগানেই থাকবে।

পুলিশকে অনেক বৈরী পরিবেশে কাজ করতে হয় জানিয়ে শহীদুল হক বলেন, সবাই পুলিশের সেবা চায়, কিন্তু কেউ পুলিশকে পছন্দ করে না। পুলিশকে ভয় পায়, কিন্তু পুলিশকে ভালো জানে না। আমি বইয়ে লিখেছি, বাতাসের মধ্যে বসবাস করি বলে অক্সিজেনের অভাব অনুভব করি না। তেমনি সমাজে পুলিশ আছে বলে এর প্রয়োজনীয়তা অনুভব করি না। সরকার যদি ঘোষণা দেয়, দুই ঘণ্টার জন্য পুলিশের কোনো কার্যক্রম থাকবে না, তাহলে দেশে কী পরিস্থিতি হবে, সেটি আমরা অনুভব করি না।

বাংলা একাডেমির সভাপতি কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা দেন কথাসাহিত্যিক ও সাহিত্য সমালোচক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শক মোহাম্মদ নুরুল হুদা, কবি ও প্রধানমন্ত্রীর সাবেক মুখ্যসচিব কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী, বইটির প্রকাশক দ্য ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহ্রুখ মহিউদ্দিন প্রমুখ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (9)
Daulot E Khoda ২৯ মে, ২০২২, ৫:১৬ এএম says : 0
সঠিক কথা
Total Reply(0)
Niloy Talukdar ২৯ মে, ২০২২, ৫:১৭ এএম says : 0
উনি ক্ষমতাসীন বলতে যে দলই ক্ষমতায় থাকে, সেটা বুঝিয়েছেন। বাংলাদেশের চিরাচরিত প্রেক্ষাপটের কথা বলেছেন।
Total Reply(0)
MD Alamin Islam ২৯ মে, ২০২২, ৫:১৭ এএম says : 0
একটা সত্য কথা বলল স্যার
Total Reply(0)
Mrinal Mrinal ২৯ মে, ২০২২, ৫:১৯ এএম says : 0
স্বাধীনতাবিরোধী শক্তির সাথে হাত মিলিয়ে রাজপথে সরকারি সম্পদ নষ্ট করে নিজেদের স্বার্থ হাসিলের চেষ্টা করলে হবে। বাংলাদেশ এখন উন্নয়ন অগ্রগতির অগ্র যাত্রায় বিশ্বের রোল মডেল।
Total Reply(0)
Shaikh Shadi ২৯ মে, ২০২২, ৫:১৯ এএম says : 0
প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা- কর্মচারিরা কার আনুগত্য করবে???? রাজনৈতিক দলের না কী সংবিধানের??? এই বিষয়টি নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত এই সমস্যার সমাধান হবে না।
Total Reply(0)
Shamim Reza ২৯ মে, ২০২২, ৫:২০ এএম says : 0
এটি ধ্রুব সত্য! কিন্তু তিনি সহ কেহই দায়িত্বে থাকাকালীন এই ব্যাপারে মুখ খোলেন না। কারণ, তারা কেহই তাদের দায়িত্বের ব্যাপারে সৎ নয়; এটাও ধ্রুব সত্য!
Total Reply(0)
salman ২৯ মে, ২০২২, ৭:০০ এএম says : 0
ato din awami lig er pokkhe kaj kore hotath ultoo sur?
Total Reply(0)
Yousman Ali ২৯ মে, ২০২২, ৮:৪৪ এএম says : 0
আগে ঠিকই গোলামি করে গেছে আর এখন নিতিকথা কই অবসের গেলে যা হয় গল্পো করবে এটা করেছি ওটা করেছি
Total Reply(0)
Mominul Hoque ২৯ মে, ২০২২, ৯:৫১ এএম says : 0
যে দেশের সূর্য সন্তানরা জীবনের বিনিময়ে এই দেশ স্বাধীন করেছে, সেই দেশের দায়িত্বশীল সন্তানগুলো হয়েছে একেকটি বিশ্বাস ঘাতক মীরজাফর। তারা দায়িত্ব থাকাবস্থায় তাদের উপর অর্পিত দায়িত্বের কথা ভুলে গিয়ে ক্ষমতাশীনদের পূজায় লিপ্ত আর আয়েশী জীবনের সন্ধ্যানে থাকে। দায়িত্ব শেষে তখন তাদের ঘুম ভাঙ্গে আর সত্যের ভুলি আওড়ায়।
Total Reply(0)

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps