শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক সংবাদ

আরো শক্তিশালী হচ্ছে জার্মান সেনাবাহিনী

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩১ মে, ২০২২, ৯:১৭ এএম

এবার আরো শক্তিশালী ও মজবুত হচ্ছে জার্মান সেনাবাহিনী। এ জন্য সংবিধান সংশোধন করে সশস্ত্র বাহিনীর জন্য ১০ হাজার কোটি ইউরো বরাদ্দ দিয়েছেন দেশটির চ্যান্সেলর ওলাফ শলজ। রোববার (২৯ মে) জার্মানির সরকার ও পার্লামেন্টের প্রধান বিরোধী দলের সম্মতিতে এই তহবিল ঘোষণা করা হয়।
ঐতিহাসিক দিক থেকে রণক্ষেত্র মানেই জার্মান সেনাবাহিনীর দাপট। বিশেষ করে প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে চৌকস পরিকল্পনা ও আধুনিক যুদ্ধাস্ত্র তৈরির পাশাপাশি যুদ্ধ পরিচালনা ও প্রচণ্ড ক্ষিপ্রতার কারণে জার্মানির সামরিক বাহিনীর খ্যাতি বিশ্বজুড়ে। যদিও দুটি বিশ্বযুদ্ধেই কট্টর রাজনীতি ও কৌশলগত ভুলের কারণে দেখতে হয় পরাজয়ের মুখ।
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের বছর দশেক পর ১২ নভেম্বর, ১৯৫৫ সালে আন্তর্জাতিক মহলের নানা শর্তের গ্যাড়াকল মেনে নতুন করে যাত্রা শুরু করে জার্মান সেনাবাহিনী বা বুন্ডেসভেয়ার। কিন্তু অভ্যন্তরীণ রাজনীতি ও অর্থনীতিতে কৃচ্ছ্রতা সাধন এবং নানামুখী আন্তর্জাতিক চাপের কারণে জার্মান সেনাবাহিনী ধীরে ধীরে দুর্বল হতে থাকে।
বিশেষ করে ১৯৮৯ সালে পূর্ব ও পশ্চিম জার্মানি এক হওয়ার পর থেকেই সেনাবাহিনীর উন্নয়নে সরকারি বরাদ্দ ছিল খুবই সামান্য। এমন কি বিভিন্ন সময়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সামরিক অনুশীলন ও শান্তি মিশনে অংশ নিতে গিয়ে বাড়তি চাপের মুখে পড়ছে দেশটির সশস্ত্র বাহিনী।
এছাড়াও, ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে জার্মান সেনাবাহিনীর ক্ষমতা ও দক্ষতা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে।
এমন পরিস্থিতিতে ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর সেনা অভিযান ও অন্যান্য দিক বিবেচনায় নিয়ে ঐতিহ্য, দক্ষতা ও শক্তি ফিরিয়ে আনাসহ সামরিক বাহিনীর উন্নয়নে ১০ হাজার কোটি ইউরো সহায়তার ঘোষণা দিয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলজ। সম্প্রতি দেশটির পার্লামেন্টে তুলে ধরা হয় ঠিক কোন খাত থেকে এই বিশাল পরিমাণ অর্থের যোগান হবে এবং কোন কোন খাতে তা খরচ করা হবে। প্রথম দিকে বিষয়টি নিয়ে পার্লামেন্টে বিরোধীদের দ্বিমত থাকলেও বর্তমান পরিস্থিতি ও ভৌগোলিক অবস্থান বিবেচনা করে প্রতিরক্ষা খাতে টেকসই উন্নয়নে সম্মতি দেয় দেশটির সব রাজনৈতিক দল।
এরই ধারাবাহিকতায় রোববার দেশটির সেনাবাহিনীর জন্য ১০ হাজার কোটি ইউরোর বিশাল তহবিল বরাদ্দের বিষয়টি নিশ্চিত করেন জার্মান অর্থমন্ত্রী ক্রিস্টিয়ান লিন্ডনার। একই সঙ্গে, বরাদ্দ করা অর্থ দিয়ে শুরুতেই সেনাবাহিনীর জন্য ভারী ট্রান্সপোর্ট, হেলিকপ্টার ও অত্যাধুনিক মডেলের ইনভিসিবল এফ ৩৫ জেট ক্রয় করার পরিকল্পনার কথা জানান দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী ক্রিস্টিনে লামব্রেখশট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন