শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ০৪ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

দেশে সরকার ও বিরোধী দলের জন্য দুই আইন : রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০২২, ১২:০৩ এএম

দেশে সরকার দলীয় ও বিরোধী দলের জন্য দুই রকম আইন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে বিরোধীদলের সভা-সমাবেশের কোন অধিকার নেই। বিএনপি কোন সমাবেশ করতে গেলে প্রেসক্লাবের সামনে চারদিক ঘেরা স্থানে অনুমনি দেওয়া হয়। অথচ শনিবার রাজধানীর ৭টি বড় পয়েন্টে আওয়ামী লীগ সমাবেশ করছে। এক দেশে দুই আইন চলছে। গতকাল শনিবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সরকারের মন্ত্রীদের নির্দেশেই বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের উপর একের পর এক হামলা করা হচ্ছে অভিযোগ করে রুহুল কবির রিজভী বলেন, ঢাবিতে ছাত্রদলের উপর ছাত্রলীগের সশস্ত্র হামলার পর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছাত্রলীগকে বাহবা দিয়েছেন। তাদেরকে ভবিষ্যতে আরও হামলা করার জন্য উৎসাহিত করেছেন। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৪১তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির খাবার বিতরণ কর্মসূচি পালনকালে খুলনা, নারায়নগঞ্জসহ বিভিন্ন স্থানে হামলা করা হয়েছে।
আর গতকাল খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক এমপি ওয়াদুদ ভূইয়াকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার বাসভবনে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের মিছিল থেকে হামলা চালিয়ে তার বাড়ির আসবাবপত্র, গাড়ী ভাংচুর করে এবং ৪টি মটর সাইকেল জ্বালিয়ে দেয়। এছাড়াও আশেপাশের বিএনপি সমর্থিত ব্যবসায়ীদের অন্তত ২৫টির অধিক দোকান ভাংচুর ও লুটপাট করে এবং আওয়ামী সন্ত্রাসীরা পুলিশের সহযোগিতায় বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা করে, এতে যুবদল সভাপতি মাহবুব আলম সবুজ, পৌর বিএনপিসাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ মিলন, জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক একরাম হোসেন রানা, সহ-সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক সোহেল দেওয়ান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি অংগ্য মারমাসহ প্রায় ৩০ জন বিএনপি নেতাকর্মী আহত হয়। একই সময় বাংলা ভিশন টেলিভিশনের রিপোর্টার এইচ এম প্রফুল্লোর বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করে। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় জিয়াউর রহমানের ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু ও স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মীরা দুস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে খাদ্য বিরতণ করার সময় আওয়ামী, যুবলীগ ও ছাত্রলদীগের সন্ত্রাসীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে ও ককটেল বিষ্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে দুস্থ মানুষের খাদ্য ছিনিয়ে নেয় এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা করে। এসময় বিএনপি’র প্রায় ৫০ জনের অধিক নেতাকর্মী আহত হয়। সেখানে সাংবাদিকরা ভিডিও ফুটেজ ধারণ করতে গেলে এক সাংবাদিকের উপর ব্যাপক চড়াও হয়ে তাকে মারধর করে মুঠো ফোন ছিনিয়ে নেয়।
এঘটনায় স্থানীয় যুবলীগ নেতা- সেলিম বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ থানার বিএনপির সভাপতি কামাক্ষ্যা চন্দ্র দাস সহ ১৭৫ জন বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। রিজভী খাগড়াছড়ি, বেগমগঞ্জসহ বিভিন্নস্থানে বিএনপির কর্মসূচিতে হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং হামলায় জড়িত সন্ত্রাসীদের অবিরম্বে গ্রেফতার দাবি করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন