বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

বিনোদন প্রতিদিন

শৌচাগার দেখাশোনা ছেড়ে আবারো গানে ফিরছেন মনসুর

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ জুন, ২০২২, ১০:১৪ এএম

কদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা যায়, এক ব্যক্তি চট্টগ্রাম মহানগরীর জামাল খান মোড়ের গণশৌচাগারের তত্ত্বাবধায়কের কাজ করছেন। তার নাম মনসুর হাসান। তিনি মূলত নব্বই দশকের জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘ব্লু হরনেট’-এর গায়ক। সংগীতের ঝলমলে ভুবন থেকে কীভাবে মনসুর একটি শৌচাগারের তত্ত্বাবধায়ক হলেন, এ নিয়ে আলোচনার ঝড় ওঠে। জানা যায়, মাদকাসক্ত হয়েই জীবনের এই কঠিন পরিণতি দেখতে হয়েছে তাকে।

মনসুরকে খুঁজে বের করেছেন স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সলির শৈবাল দাশ সুমন। তার ফেসবুক লাইভই ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে। মনসুরের বিস্তারিত তথ্য তিনি তুলে ধরেন সবার কাছে। যা হাজারো মানুষের হৃদয় স্পর্শ করেছে। এখানেই ইতি টানেননি শৈবাল। তিনি এবার নিজ উদ্যোগে মনসুরকে গানে ফেরাচ্ছেন। এরই মধ্যে ফেসবুক লাইভে এনে গানও গাইয়েছেন। এমনকি তার জন্য নতুন বাসার ব্যবস্থাও করছেন।

এ বিষয়ে শৈবাল দাশ সুমন বলেন, ‘মানুষ আস্থা ও বিশ্বাস পেলে কোথা থেকে কোথায় আসতে পারে, এটা তার নমুনা। সবার দোয়ায় এখন অনেক ভালো আছেন মনসুর ভাই। এখন তিনি নিয়মিত গান অনুশীলন করছেন। পোশাক-আশাকে, কথা-বার্তাতেও এসেছে অনেক পরিবর্তন। আমি ও আমার ছেলেরা ওনার জন্য নতুন বাসা দেখেছিলাম। সেখানে তাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। কিন্তু একটু অস্বস্তি বোধ করায় বর্তমান ঠিকানাতেই আছেন তিনি। এর মধ্যে তাকে ডাক্তার দেখানো হয়েছে। অনেক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। যেহেতু তিনি অনেকদিন মাদকাসক্ত ছিলেন, তার শারীরিক কোনও ক্ষতি হয়েছে কি-না তা দেখার জন্যই ডাক্তারের কাছে যাওয়া। কিন্তু সৃষ্টিকর্তার রহমতে তিনি শারীরিকভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন।’

এখন মনসুর স্থানীয় কয়েকটি গানের দলের সঙ্গে নিয়মিত প্র্যাকটিস করছেন বলেও জানান সুমন। শুধু তাই নয়, তার জন্য একটি চাকরির ব্যবস্থাও করে দিয়েছেন এই কাউন্সিলর।

তিনি বলেন, ‘আমি তার জন্য নতুন একটি চাকরির ব্যবস্থা করেছি। তিনি আগের থেকে শারীরিক ও মানসিকভাবে অনেক ভালো আছেন। পাশাপাশি তিনি নিজে থেকেই এখন নিয়মিত স্থানীয় কয়েকটি গানের দলের সঙ্গে অনুশীলন করছেন। এই গায়ককে আবার গানের ভুবনে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ইতোমধ্যেই সংগীতশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ, গীতিকার আসিফ ইকবালসহ অনেকের সঙ্গেই কথা বলেছি। তাকে আবার গানে আনা যায় কীভাবে সে বিষয়ে কথা চলছে। গীতিকার আসিফ ইকবাল ভাইকে অনুরোধ করেছি, তার জন্য গান লিখতে। তার জন্য যে নতুন বাসার ব্যবস্থা করা হয়েছে, সেখানেই তৈরি করা হচ্ছে প্র্যাকটিস প্যাড।’

উল্লেখ্য, মনসুর হাসান ও তার বন্ধুদের ব্যান্ড ‘ব্লু হরনেট’ নব্বই দশকে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। তার কণ্ঠে ‘বাটালি হিলের সেই বিকেল’, ‘ছোট্ট একটি মেয়ে’, ‘কত না বছর’সহ কয়েকটি গান শ্রোতাদের আকৃষ্ট করেছিল। কিন্তু সেই সাফল্য টেকসই হয়নি। মনসুর মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। জড়িয়ে যান রাজনীতিতেও। কেবল সংগীত নয়, ছিটকে পড়েন নিজের পরিবার থেকেও। এক পর্যায়ে বেঁচে থাকার তাগিদে চট্টগ্রামের জামালখান মোড়ের ওই গণশৌচাগারের দেখভালের কাজ নেন। তবে এবার হয়ত তার জীবন নতুন আলো দেখতে চলেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন