বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

খেলাধুলা

মেসির বক্তব্যে অনুপ্রাণিত বেনজেমা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জুন, ২০২২, ১২:০১ এএম

ফুটবল ক্যারিয়ারের সেরা সময়টাই পার করছেন করিম বেনজেমা। বয়স ৩৪ পেরিয়ে গেলেও গোলমুখে আরওক্ষুরধার হয়ে উঠেছেন এই তারকা ফরাসি স্ট্রাইকার। তার চোখ ধাঁধানো নৈপুণ্যে স্প্যানিশ লা লিগার পর উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাও ঘরে তুলেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ফলে আরও অনেকের মতো লিওনেল মেসিও বেনজেমার হাতে দেখছেন ২০২২ সালের ব্যালন ডি’অর। মেসির এমন মন্তব্যে ভীষণ আনন্দিত বেনজেমা পাচ্ছেন আরও ভালো করার তাগিদ। ইউরোপ সর্বোচ্চ ক্লাব আসরের সবশেষ মৌসুমে সর্বোচ্চ ১৫ গোল করেন বেনজেমা। এর মধ্যে দশটিই আসে নক-আউট পর্বে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে দ্বিতীয় ফুটবলার হিসেবে নক-আউটে দশটি গোলের রেকর্ড গড়েন তিনি। এতদিন এই কৃতিত্ব ছিল কেবল পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর একার দখলে। শেষ ষোলো ও কোয়ার্টার-ফাইনালে বেনজেমার হ্যাটট্রিকে ভর করেই যথাক্রমে পিএসজি ও চেলসিকে বিদায় করে রিয়াল। সেমিফাইনালেও ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে লস ব্লাঙ্কোসদের স্মরণীয় প্রত্যাবর্তনের গল্প লেখায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান ছিল তার।
তারপরই বেনজেমার সম্ভাবনা নিয়ে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মেসির কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল। স্বদেশি সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রেকর্ড সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এই তারকা বলেছিলেন, ‘আমি মনে করি, কোনো সন্দেহ নেই। এটা একেবারে স্পষ্ট যে বেনজেমা একটি নজরকাড়া বছর কাটিয়েছে। বছরটা সে শেষ করেছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতে। শেষ ষোলো থেকে পরবর্তী প্রতিটি পর্বে সে প্রধান ভূমিকা রেখেছে। আমি মনে করি, এই বছর আর কোনো সংশয় নেই।’ মেসির মন্তব্য বেনজেমার কানেও পৌঁছেছে। সম্প্রতি নেশন্স লিগের নতুন মৌসুমে ডেনমার্কের বিপক্ষে ফ্রান্সের ২-১ গোলে হারের পর তার কাছে প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয়। তখন বেনজেমা জানিয়েছেন আনন্দে উদ্বেলিত হওয়ার কথা, ‘আমি মেসির মন্তব্য শুনেছি। কথাগুলো আমাকে আনন্দিত, অনেক আনন্দিত করেছে। কারণ, তার মতো একজন খেলোয়াড়ের কাছ থেকে সেগুলো এসেছে। কথাগুলো আমাকে আরও ভালো করার জন্য অনুপ্রাণিত করেছে।’
রিয়ালের লা লিগা জয়েও বেনজেমা ছিলেন অনবদ্য। ২৭ গোল করে এই আসরেরও সর্বোচ্চ গোলদাতার পুরস্কার জেতেন তিনি। শুধু ক্লাব পর্যায়ে নয়, জাতীয় দল ফ্রান্সের উয়েফা নেশন্স লিগ জয়েও মাঠে বেনজেমার উপস্থিতি ছিল সরব। সেমিফাইনাল ও ফাইনালে একটি করে গোল করেছিলেন তিনি। ফলে তাকেই আগামী ব্যালন ডি’অর জয়ের সবচেয়ে বড় দাবিদার ভাবা হচ্ছে। এই বছর ব্যালন ডি’অর পঞ্জিকাবর্ষ নয়, মৌসুমের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে দেওয়া হবে। তাই পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান আয়োজিত হবে বরাবরের চেয়ে ভিন্ন সময়ে। আগামী ১২ আগস্ট ফুটবলারদের সংক্ষিপ্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে। এরপর প্যারিসে আগামী ১৭ অক্টোবর ঘোষণা করা হবে ব্যালন ডি’অর জয়ীর নাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন