বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১১ মুহাররম ১৪৪৪

ইসলামী জীবন

মহানবী (সা.) সর্ম্পকে কটুক্তিতে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে প্রতিবাদ করুন - বিভিন্ন দলের নেতৃবৃন্দ

ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ কাল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৮ জুন, ২০২২, ৮:৪৬ পিএম | আপডেট : ৯:০৫ পিএম, ৮ জুন, ২০২২

মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও হজরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন কুমার জিন্দালের কটুক্তির তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা অব্যাহত রয়েছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, মহানবী (সা.) ও হজরত আয়েশা (রা.)কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করে বিজেপির দুই নেতা বিশ্বের কোটি কোটি মুসলমানের হৃদয়ে আঘাত করছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেইটসহ সারাদেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছে। খেলাফত মজলিসও উত্তর গেইটে বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। নেতৃবৃন্দ গোটা বিশ্বে ভারতীয় পণ্য বর্জনের আহবান জানিয়েছেন। ভারতে মহানবী (সা.) ও হজরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যের প্রতিবাদে অবিলম্বে ঢাকাস্থ ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে তীব্র প্রতিবাদ জানানোর জন্য জোর দাবি জানিয়েছেন নেতৃবৃন্দ। ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করা না হলে আগামী ১৩ জুন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘেরাও করার কর্মসূচি ঘোষণা করেছে লেবার পার্টি।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঃ ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি মুখপাত্র মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও উম্মাহাতুল মুমিনীন হযরত আয়েশা (রা.)-এর শানে আপত্তিকর বক্তব্যের প্রতিবাদে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ আগামীকাল শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম মসজিদ উত্তর গেইটে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং ওইদিন সারাদেশের জেলা ও মহানগর শাখায় পৃথক পৃথক বিক্ষোভ সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ঢাকার বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দিবেন সংগঠনের নায়েবে আমীর হযরত মাওলানা মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পুরানা পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি পর্যালোচনায় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দলের যুগ্ম মহাসচিব মুহাম্মদ আমিনুল ইসলাম ও ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারি মহাসচিব হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ ও মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, মাওলানা নেছার উদ্দিন, মাওলানা খলিলুর রহমান ও মাওলানা শোয়াবই আহমদ ও মাওলানা দেলাওয়ারে হাসাইন জাফরী প্রমুখ।

বাংলাদেশ লেবার পাটি ঃ
ভারতে রাসূল (সা.) কে অবমাননায় মুসলিমসহ বিশ্বের প্রতিটি বিবেকবান মানুষের হৃদয়ে রক্তক্ষরন হচ্ছে মন্তব্য করে লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান ইরান। তিনি বলেন, আগামী ১২ জুনের মধ্যে ভারতীয় হাইকমিশনারকে তলব করে ব্যাখ্যা না চাইলে ১৩ জুন তৌহিদী জনতাকে নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ঘেরাও করবে লেবার পার্টি। ভারতে মহানবী (সা.) ও হযরত আয়েশা (রাযি.) সর্ম্পকে কটুক্তির প্রতিবাদে আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচিত তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা দক্ষিন লেবার পার্টির সভাপতি মাওলানা আনোয়ার হোসাইনের সভাপতিত্বে কর্মসুচীতে বক্তব্য আরো রাখেন, লেবার পার্টির মহাসচিব লায়ন ফারুক রহমান, মানবাধিকার সংরক্ষন সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জহুরা খাতুন জুঁই, বিএনপি নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ উদ্দিন, এনডিএম সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান হিরা, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম চৌধুরী মিলন, সাম্যবাদী দলের সম্পাদক কমরেড নুরুল ইসলাম, নাগরিক পার্টির চেয়ারম্যান আহসানুল্লাহ শামীম, মুসলিম সমাজের চেয়ারম্যান ডাঃ মাসুদ হোসেন, নেজামে ইসলামীর মাওলানা ওবায়দুল হক, বিএনপি নেতা শ্রী রাম শাহ সুমন, হুমাউন কবির, মুফতি তরিকুল ইসলাম সাদী, খোন্দকার মিরাজুল ইসলাম।
সংগঠনটির নেতারা বলছেন, এই ঘটনা মুসলিম উম্মাহর হৃদয়ে রক্তক্ষরণ ঘটিয়েছে। এমন জঘন্যতম অন্যায় কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না।
ইসলামী যুব আন্দোলন ঃ সম্প্রতি ভারতের উগ্র সাম্প্রদায়িক ক্ষমতাসীন বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও মিডিয়া সেল প্রধান নবীন জিন্দাল মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও উম্মাহাতুল মুমিনীন হযরত আয়েশা সিদ্দীকা (রাযি.) কে নিয়ে চরম অশ্লীল ও অবমাননাকর মন্তব্য করায় ভারতীয় পণ্য বয়কট এ বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তীব্র প্রতিবাদ জানানোর দাবি জানিয়েছে ইসলামী যুব আন্দোলন। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও হযরত আয়েশা সিদ্দীকা (রাযি.) কে নিয়ে চরম অশ্লীল ও অবমাননাকর মন্তব্যের প্রতিবাদে আজ বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে ইসলামী যুব আন্দোলন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। ইসলামী যুব আন্দোলন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ এর সভাপতি আলহাজ মুহাম্মাদ শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল আতিকুর রহমান মুজাহিদ। নগর দক্ষিণ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মাদ আল-আমিন সোহাগের সঞ্চালনায় এতে আরও বক্তব্য রাখেন যুবনেতা মুফতী মানসুর আহমদ সাকী, ইলিয়াস হুসাইন, ইউনুস তালুকদার, ইঞ্জিনিয়ার এহতেশামুল হক পাঠান, মুফতী এইচ এম আবু বকর সিদ্দীক, মুফতী শওকত ওসমান, মাওলানা নাজিমুদ্দিন, ক্বারী নাসির উদ্দিন প্রমুখ। সমাবেশ শেষে তারা মিছিল নিয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করেন।
খেলাফত আন্দোলন ঃ মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার সহধর্মিনী আম্মাজান হযরত আয়েশা (রাযি.) কে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাশীন দল ও নবীন কুমার জিন্দালের জঘন্যতম কটুক্তির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নেতৃবৃন্দ। বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের প্রধান আমীরে শরীয়ত আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেন, বিজেপি নেতাদের অপমানজনক মন্তব্য বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ' র কলিজায় মারাত্মক ভাবে আঘাত হেনেছে। কোটি কোটি নবীপ্রেমিকের অন্তরকে ক্ষতবিক্ষত করেছে। এই অবস্থায় কোন ঈমানদার চুপ করে ঘরে বসে থাকতে পারে না।
আজ বুধবার বাদ আছর ভারতে বিশ্ব নবীর বিরুদ্ধে কটুক্তির প্রতিবাদে রাজধানীর কামরাংগিরচরে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন এক বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিল শেষে অনুষ্ঠিত সমাবেশে দলীয় প্রধান আমীরে শরীয়ত আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, দলের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা সানাউল্লাহ হাফেজ্জী, মাওলানা সুলতান মহিউদ্দিন, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, মুফতি মুজিবুর রহমান,মুফতি আখতারুজ্জামান আশরাফী, মুফতী আবুল হাসান কাসেমী,মাওলানা জসিমউদদীন ও মাওলানা সাইফুল ইসলাম জামালী।

ইসলামী ঐক্যজোট ঃ ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান ও নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব ও মহাসচিব অধ্যাপক আব্দুল করিম আজ বুধবার এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, ইসলাম বিদ্বেষী ও উগ্রবাদী বিজেপি নেতৃদয় বিশ্বনবীর চরিত্রের উপর আঘাত দিয়ে যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে তা কিছুতেই মেনে নেয়া যায়না। নবী প্রেমিক মুসলমানগন এটা কখনো বরদাস্ত করতে পারেনা। বিশ্ব নবী ও তার পরিবারকে সর্বোত্তম চরিত্রের সনদ প্রাদন করে মহান আল্লাহ পবিত্র কুরআন শরীফে আয়াত নাজিল করেছেন। যে নবী সমস্ত জিন ইনসানের জন্য উত্তম আদর্শের নমুনা, সেই নবীর চরিত্রে যারা দোষ তালাশ করে তারা পিতৃপরিচয়হীন। তারা এসব দুষ্টচক্রকে অবিলম্বে গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

খেলাফত মজলিস ঃ খেলাফত মজলিসের আমীর মাওলানা মোহাম্ম¥দ ইসহাক বলেছেন, বিশ্ব মুসলিম মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর অবমাননা সহ্য করবে না। সম্প্রতি ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজিপি’র মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও মিডিয়া সেলের প্রধান জিন্দাল মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর শানে অবমাননাকর বক্তব্য দিয়ে বিশ্বের ২০০ কোটি মুসলমানদের হৃদয়ে আঘাত হেনেছে। মহানবীর (সা.) অবমাননাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। একই সাথে ভারতকে রাষ্ট্রীয়ভাবে বিশ্ব মুসলিমের কাছে ক্ষমতা চাইতে হবে। তা নাহলে মুসলমানদের ক্ষোভের আগুন নিভানো যাবে না । খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। মঙ্গলবার রাতে সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আমীরে মজলিস অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাকের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নায়েবে আমীর মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল হালিম, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল, অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল, অধ্যাপক কাজী মিনহাজুল আলম, মুফতি সাইয়্যেদুর রহমান, প্রকৌশলী আবদুল হাফিজ খসরু, ডাঃ রিফাত মালিক, অধ্যাপক মাওলানা আজীজুল । সভায় শুক্রবার বাদ জুমা জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইট থেকে এক বিক্ষোভ মিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।
বাংলাদেশ মুসলিম লীগ ঃ মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও হযরত বিবি আয়েশা (রাযি.) সম্পর্কে ভারতের বিজেপি নেতাদের অবমাননাকর বক্তব্যের গর্হিত অপরাধে ভারতের ক্ষমতাসীন দল দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত দৃষ্টান্তমূলক কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় ক্ষোভ ও ধিক্কার জানিয়েছেন বাংলাদেশ মুসলিম লীগ নেতৃবৃন্দ। আজ দলীয় সভাপতি অ্যাডভোকেট বদরুদ্দোজা সুজা এবং মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি কার্যত কোন শাস্তি নয়। মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও হযরত বিবি আয়েশা (রাযি.) সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করে নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দাল সমগ্র মুসলমান জাতির স্পর্শকাতর ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে যে অন্যায় করেছেন সে অপরাধের শাস্তি তাদের পেতেই হবে।
বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকে ঃ বৃটেনের সর্বদলীয় উলামা সংগঠন বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের নেতৃবৃন্দ আজ বুধবার এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, মহানবী (সা.) সর্ম্পকে এই ধরনের কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য অন্য ধর্ম মতের প্রতি চরম বিদ্বেষপূর্ণ,অবমাননাকর ও সম্পূর্ণরূপে অগ্রহণযোগ্য। তারা দায়ী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। বিবৃতিদাতারা হচ্ছেন, সংগঠনের ভারপাপ্ত সভাপতি মাওলানা ইমদাদুর রাহমান মাদানী, জেনারেল সেক্রেটারী মাওলানা শাহ মিজানুল হক, বাংলাদেশী মুসলিমস ইউকের সর্বোচ্চ পরিষদ মজলিসে কিয়াদতের সদস্য, ইসলামিক শরীয়া কাউন্সিল বৃটেনের চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা আবু সাঈদ, মাযাহহিরুল উলুমের চেয়ারম্যান শায়খ মাওলানা জমসেদ আলী, কাউন্সিল অফ মস্কস এর চেয়ারম্যান হাফিজ মাওলানা শামছুল হক, আন্জুমানে আল ইসলাহ এর সভাপতি হাফিজ মাওলানা আবদুল জলীল,ইষ্ট লন্ডন মসজিদের খতীব শায়খ আব্দুল কাইয়ুম, ইসলামিক ফতোয়া কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মুফতি শাহ সদরুদ্দিন, সেন্টার ফর ইসলামিক গাইডেন্স এর চেয়ারম্যান মাওলানা এ কে মওদুদ হাসান, খেলাফত মজলিস ইউরোপের পরিচালক অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল কাদির সালেহ, ইষ্ট লন্ডন মসজিদের ইমাম হাফিজ মাওলানা আবুল হোসাইন খান,মারকাজুল ইসলাম লন্ডনের চেয়ারম্যান মাওলানা শোয়াইব আহমদ, খেলাফত মজলিস ইউকের সভাপতি মাওলানা সাদিকুর রাহমান, আন্জুমানে আল ইসলাহের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা জিল্লুর রহমান চৌধুরী,সাফীর একাডেমির চেয়ারম্যান ড: মাওলানা আবুল কালাম আজাদ,দারুল উম্মাহ মসজিদের ইমাম মাওলানা আবুল হাসানাত চৌধুরী, হেলাল কমিটির সমন্বয়কারী মাওলানা মুমিনুল ইসলাম ফারুকী, লন্ডন ইকরা একাডেমির পরিচালক মাওলানা এফ কে শাহজাহান,বাংলাদেশী মুসলিম ইউকের প্রচার সম্পাদক ও মজলিসে আমেলার সদস্য মাওলানা তায়ীদুল ইসলাম, হাফিজ মাওলানা সৈয়দ তামীম আহমদ, হাফিজ হোসাইন আহমদ বিশ্বনাথী ও মাওলানা আব্দুল মুনীম চৌধুরী ।
বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টি ঃ ইসলামিক পার্টির নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ভারতে প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে অবমাননাকর মন্তব্য করে বিশ্বের সকল মুসলমানদের হৃদয়ে আঘাত দিয়েছেন। বাংলাদেশ ইসলামিক পার্টির চেয়ারম্যান আবু তাহের চৌধুরী, মহাসচিব অ্যাডভোকেট মো. আবুল কাশেম, সিনিয় ভাইস চেয়ারম্যান এজাজ হোসেন ও ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সিদ্দিকুর রহমান নোমান এক যৌথ বিবৃতিতে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করেছেন। হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার শুরুতেই এ বিষয়ে গুরুত্ব না দিয়ে পরিস্থিতি জটিল করেছেন। তারা বলেন,উক্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে উত্তর প্রদেশে কণার্টকে গ্রেফতারকৃত সকল মুসলমানদেরকে অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে। বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে ভারতের বিজেপির সরকারের এহেন গর্হিত কাজের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করিয়ে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদশর্নের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা।
বেফাক ঃ
বাংলাদেশ কওমী মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড বেফাকের সহ-সভাপতি, আমীরে আঞ্জুমানে হেফাজতে ইসলাম, শেখবাড়ী জামিয়ার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক, বরুণার পীর শাইখুল হাদীস আল্লামা মুফতি মুহাম্মদ রশীদুর রহমান ফারুক বর্ণভী আজ বুধবার এক বিবৃতিতে বলেন, নবীজির (সা.) শানে বেয়াদবি করলে মুসলিম কলিজায় রক্তক্ষরণ হয়।
তার প্রতি অবমাননা কোন মুসলমান সহ্য করতে পারে না। এ ঘটনার প্রতিবাদে আরব বিশ্বসহ মুসলিম দেশগুলো জেগে উঠেছে। তিনি বাংলাদেশ সরকারের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানিয়ে বলেন, অন্যান্য মুসলিম দেশের মতো রাষ্ট্রীয়ভাবেও যেন এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করা হয়। দেশের শীর্ষ এ আলেম ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের ভারতীয় পণ্য বর্জনেরও আহ্বান জানান।


জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) ঃ জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন (এনডিএম) চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ এক বিবৃতিতে বলেন, বিশ্বশান্তি এবং ভারতের ২০ কোটির অধিক মুমিন মুসলমানদের জন্য ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার প্রচ্ছন্ন হুমকি। ভারতজুড়ে মুসলমানদের উপর নির্যাতন-নিপীড়নের বিরুদ্ধে আমরা বারবার প্রতিবাদ জানিয়েছি। তবে এবার তাঁরা মুসলমানদের গভীরতম আবেগের স্থানে আঘাত করেছে। তিনি বলেন, সংখ্যাগরিষ্ঠ ও ধর্মভীরু মুসলমানদের এই বাংলাদেশে যেই সরকার “মদিনা সনদ”কে উদাহরণ ধরে দেশ পরিচালনার কথা বলে, আর “মডেল মসজিদ” নির্মাণ করে, তাঁরা এরকম অশ্লীল, ন্যাক্কারজনক আঘাতের পরেও কিভাবে রাষ্ট্রীয়ভাবে চুপ থাকে? আমরা বিজেপি সরকারের দায়িত্বশীল দুই ব্যক্তির এই ক্ষমার অযোগ্য ধৃষ্টতা প্রদর্শনের বিরুদ্ধে জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব চাই।
জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশ ঃ জাতীয় ইমাম সমাজ বাংলাদেশের আহ্বায়ক কমিটির এক জরুরী সভা সংগঠনের আহ্বায়ক প্রিন্সিপাল বেলায়েত হোসাইন আল-ফিরোজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ভারতের ক্ষমতাসীন হিন্দু জাতীয়তাবাদী বিজেপির মুখপাত্র চির অভিশপ্ত নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দাল কর্তৃক বিশে^র ২০০ কোটি মানুষের প্রাণের স্পন্দন শেষ নবী মোহাম্মদ (সা.) কে কুটুক্তি করায় আন্তর্জাতিক আদালতে উভয়ের ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, সদস্য সচিব- মাওলানা যোবায়ের আহমদ কাসেমী, কার্যকরী সদস্য মাওলানা মীর মোহাম্মদ শোয়াইব আনছারী, মুফতি আনোয়ারুল হক, মাওলানা আবুল কালাম, মাওলানা হামিদুল হক, মাওলানা আলমগীর, মাওলানা আ. আজিজ, মাওলানা ইমদাদুল হক সাইফী, মুফতি খালেদ মোশারফ, মাওলানা আবদুল আওয়াল, মুফতি এমরান ও মাওলানা সোহরাব।

এদিকে, ফেনী জেলা সংবাদদাতা জানান, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দাল মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার স্ত্রী হজরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে কটুক্তি করায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন ফেনীর দাগনভূইয়া উপজেলার কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড মাজলিসে ইশায়াতে দ্বীনে হক্বের নেতৃবৃন্দ। আজ বাদ যোহর দাগনভূইয়া আশরাফুল উলূম মাদরাসায় মাওলানা মমিনুল হক জাদিদের সভাপতিত্বে ও মুফতী ইউসুফ কাসেমীর পরিচালনায় এক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সভায় বক্তরা বলেন, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা নেত্রী কর্তৃক আমাদের মসুলমান জাতির হৃদয়ের স্পন্দন হযরত মুহাম্মদ (সা.) এবং মুসলমান জাতির মা হযরত আয়েশা (রা.) কে নিয়ে কটুক্তি করে বিশ্বব্যাপী মুসলমানদের হৃদয়ে আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে। সভায় বক্তব্য রাখেন, মাওলানা শেহাব উদ্দিন, মাওলানা মহিউদ্দিন, মাওলানা আতিক উল্লাহ মামুন, মাওলানা ইসমাইল, মুফতী হাছান, মাওলানা হাফেজ ইয়াছিন।
নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, বাংলাদেশ আঞ্জুমানে ইসলামী ছাত্রমহলের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা মুফতি সৈয়দ আবু বকর সিদ্দিক আল হোসাইনী আজ বুধবার এক বিবৃতিতে বলেন, ভারতে নবীজি হযরত মুহাম্মদ (সা.) ও তার স্ত্রী আয়েশা (রা.) বিয়ে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করেন ভারতের বিজিপি’র নেত্রী নূপুর শর্মা। তাকে সমর্থন দেন দিল্লি বিজেপি’র মিডিয়া শাখার প্রধান নবীন কুমার জিন্দাল। এই অবমাননাকর মন্তব্যে সারা বিশ্বের মুসলমানদের হৃদয়ে রক্তকরণ হয়েছে।
ভারত সরকাকে প্রকাশে রাষ্ট্রীয়ভাবে এই মন্তব্যের নিন্দা প্রকাশ ও মুসলিম বিশ্বের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। তা না হলে সারা বিশ্বের মুসলিম দেশ ও অনুসারীরা ভারত সরকারকে বয়কট করবে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন