বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

সেই তুর্কি নাগরিক ‘মাঙ্কিপক্স’ নেগেটিভ

দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত কোনো রোগী নেই : স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০২২, ১২:০২ এএম

মাঙ্কিপক্স আক্রান্ত সন্দেহে ঢাকায় যে তুর্কি নাগরিককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে তার নমুনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জুন) সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালের একটি স‚ত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
স‚ত্র জানিয়েছে, গতকাল (৮ জুন) রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) থেকে টার্কিশ এয়ারলাইনস যোগে বাংলাদেশে আসা তুরস্কের নাগরিক আলতাই আককোসের মাঙ্কিপক্স পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। তাকে এখনো হাসপাতালে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে হাসপাতালটির তত্ত¡াবধায়ক ডা. মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, আমাদের কাছে আইইডিসিআর থেকে ফলাফল এসে পৌঁছেছে। তবে, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে আমাদের আরেকটি পরীক্ষা করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেই পরীক্ষার রিপোর্ট পেলেই তাকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হবে।

তিনি বলেন, আমরা তাকে পর্যবেক্ষণে রেখেছি। তিনি এখন সুস্থ আছেন। তার শরীরের যে র‌্যাশের কারণে মাঙ্কিপক্স রোগী বলে সন্দেহ করা হয়েছিল, সেগুলো দীর্ঘদিনের চর্মরোগ। তার চিকিৎসার ইতিহাস পর্যালোচনা করে মনে হচ্ছে এটা পুরোনো চর্মরোগ। জানা গেছে, তুর্কি সেই নাগরিকের নাম আলতাই আককোসে। তিনি একজন ব্যবসায়ী। বাংলাদেশের রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান গেøাবাল ওয়ার্ল্ড লিমিটেডের আমন্ত্রণে তিনি বাংলাদেশে আসেন। এদিকে, আলতাই আককোসেকের মাঙ্কিপক্স পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ আসায় তাকে আমন্ত্রণ জানানো গেøাবাল ওয়ার্ল্ড লিমিটেড স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বরাবর তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্রের জন্য আবেদন জানিয়েছে।

চিঠিতে প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছে, প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকদের অনুসন্ধান এবং ল্যাবরেটরি রিপোর্টে মাঙ্কিপক্স নেগেটিভ আসা সত্তে¡ও তাকে হাসপাতাল থেকে মুক্ত করা হয়নি। গত তিনদিন থেকে ওই ব্যবসায়ী হাসপাতালের অস্বস্তিকর অবস্থায় আছেন। এমন অবস্থায় আমরা তার সব ধরনের দায়-দায়িত্ব নিয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড় করাতে চাচ্ছি। এতে আরও বলা হয়েছে, গত ৭ জুন টার্কিশ এয়ারলাইনস যোগে তুরস্কের নাগরিক আলতাই আককোসে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন। এরপর বিমান বন্দরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বিশেষ টিমের কাছে তিনি মাঙ্কিপক্স রোগে আক্রান্ত বলে সন্দেহ হয়। পরবর্তীতে তাকে মহাখালী সংক্রামক ব্যাধি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তবে, প্রাথমিকভাবে তিনি মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত নয় বলে বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা মতামত দেন। তার শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়। গতকাল ৮ জুন ল্যাবরেটরি রিপোর্টেও তার মাঙ্কিপক্স নেগেটিভ আসে।

এদিকে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত সন্দেহে ওই তুর্কি নাগরিককে হাসপাতালে ভর্তির খবর গণমাধ্যমে আসার পর ‘দেশে বিদেশি একজন নাগরিকের দেহে মাঙ্কিপক্সের অস্তিত্ব পাওয়া গেছে’ বলে বিভ্রান্তি ছড়ানো হয়। বিভ্রান্তি নিরসনে ওইদিনই এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছিল, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কেউ মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত হয়নি। এতে আরও বলা হয়েছিল, লক্ষ্য করা যাচ্ছে যে, দেশে মাঙ্কিপক্সে এখন পর্যন্ত কোনো ব্যক্তি আক্রান্ত হননি। ভবিষ্যতে কোনো ব্যক্তির আক্রান্তের ঘটনা কখনো ঘটলে তা প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানানো হবে। এই মুহূর্তে দেশে মাঙ্কিপক্সে আক্রান্ত কোনো ব্যক্তি নেই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন