সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

নিয়ন্ত্রণ বিধির খসড়া দাখিল করল তথ্য মন্ত্রণালয়

ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নীতিমালা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৪ জুন, ২০২২, ১২:০০ এএম

অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ওটিটি (ওভার দ্য টপ) থেকে অশ্লীলতা রোধ, রাজস্ব আদায় এবং এসব প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণে নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের নিয়ন্ত্রণ নীতিমালার অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গতকাল সোমবার বিচারপতি জেবিএম হাসান এবং বিচারপতি রাজিক আল জলিলের ডিভিশন বেঞ্চ এ নির্দেশ দেন। এর আগে গত ১৮ জানুয়ারি হাইকোর্টের দেয়া নির্দেশনা অনুসারে গতকাল অনলাইন এবং ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণের জন্য রেগুলেটরি বিধির খসড়া আদালতের দাখিল করে তথ্য মন্ত্রণালয়।
এ তথ্য জানান রিটের পক্ষের কৌঁসুলি মো: তানভীর আহমেদ। তিনি বলেন, গত বছর ৭ সেপ্টেম্বর অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ওটিটি (হইচই, নেটফ্লিক্স, অ্যামাজন, বঙ্গবিডি) থেকে অশ্লীলতা রোধ, রাজস্ব আদায় এবং এসব প্ল্যাটফর্ম নিয়ন্ত্রণে নীতিমালা করতে কমিটি গঠন করে বিটিআরসি। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত বছর ১৮ জানুয়ারি বিচারপতি জেবিএম হাসান এবং বিচারপতি ফাতেমা নজীবের তৎকালীন ডিভিশন বেঞ্চ খসড়া নীতিমালা প্রণয়নের নির্দেশ দেন। ওই দিন বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) এবং সাইবার পুলিশ সেন্টার থেকে দু’টি প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। বিটিআরসির প্রতিবেদনে বলা হয়, কোনো ধরনের রেগুলেশন না থাকায় এসব প্ল্যাটফর্ম থেকে কোনো রাজস্ব আদায় হয় না।
সাইবার পুলিশ সেন্টারের প্রতিবেদনে বলা হয়, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন এবং পর্নোগ্রাফি আইন থাকলেও এসব প্ল্যাটফর্ম থেকে অশ্লীলতারোধে সুনির্দিষ্ট কোনো নীতিমালা নেই। ফলে সবসময় আইনি ব্যবস্থা নেয়া সম্ভব হয় না। এ কারণে যদি এ ধরনের একটা নীতিমালা হয়, তাহলে এটা নিয়ন্ত্রণ করা সুবিধা হবে। এসব বিষয়ে বিবেচনায় নিয়ে আদালত একটি খসড়া নীতিমালা করে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ৮ সেপ্টেম্বর নেটফ্লিক্স, হইচইসহ ইন্টারনেট মাধ্যমে (ওটিটি প্ল্যাটফর্ম) ছড়িয়ে পড়া ওয়েব সিরিজের অনৈতিক, নিন্দনীয ও আইনবহির্ভূত ভিডিওর অংশগুলো সরিয়ে ফেলতে কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, জানতে চেয়ে রুলজারি করেন হাইকোর্ট। এছাড়াও নেটফ্লিক্সের মতো অন্যান্য ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলো থেকে কীভাবে রেভিনিউ সংগ্রহ করা হয়, তা ১ মাসের মধ্যে বিটিআরসিকে জানাতে নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত। এরই ধারাবাহিকতায় নীতিমালা প্রণয়নের এ আদেশ দেয়া হয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন