শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ মুহাররম ১৪৪৪

জাতীয় সংবাদ

বিশ্ব মুসলিমের ঐক্যের প্রতীক পবিত্র হজ

খুৎবা-পূর্ব বয়ান

শামসুল ইসলাম | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০২২, ১২:০০ এএম

পবিত্র হজ আল্লাহর প্রতি প্রেম নিবেদন ও বিশ্ব মুসলিমের ঐক্যের প্রতীক। যাদের ওপর হজ ফরজ হয়েছে তাদের দ্রুত হজ পালনই উত্তম। পবিত্র হজের শিক্ষা নিয়ে আল্লাহর প্রেম মহব্বত অর্জনে ও পরকালে জান্নাত লাভে নবীজি সাল্লাল্লাহু আলইহি ওয়া সাল্লামের আদর্শ অনুসরণে পরস্পরে কলহ বিবাদ দূর করে ঐক্যবদ্ধভাবে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ইসলাম দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণে নিষ্ঠার সাথে সকলকে কাজ করতে হবে। গতকাল জুমার খুৎবা-পূর্ব বয়ানে পেশ ইমাম এসব কথা বলেন।

বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের খতিব মুফতি মো. রুহুল আমিন জুমার খুৎবা পূর্ব বয়ানে বলেন, বিত্তশালী সকল নরনারীর ওপর হজ ফরজ করা হয়েছে। স্বচ্ছল ব্যক্তিদের হজ পালনে দেরি করা উচিত নয়। খতিব বলেন, হজে মাবরুর যাদের নছিব হবে তারা জান্নাতি। খতিব বলেন, হজ ফরত হলে দ্রুত হজযাত্রার নিবন্ধন করুন। তিনি বলেন, রাসূল (সা.) বলেছেন, কারো ওপর হজ ফরত হলে সে যদি হজ না করে মারা যায় তা’হলে সে ইহুদি নাসারা হয়ে মারা গেল না কী হয়ে মারা গেল তা’আমার দেখার বিষয় নয়।

ঢাকার মিরপুরের ঐতিহ্যবাহী বাইতুল মামুর জামে মসজিদের খতিব মুফতি আব্দুর রহীম কাসেমী বলেন, পবিত্র হজ আল্লাহর প্রতি প্রেম নিবেদন ও বিশ্ব মুসলিমের ঐক্যের প্রতীক। প্রতি বছর হজের মওসুমে পৃথিবীর বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হজব্রত পালনে লাখো মুসলমান মাতা-পিতা, স্ত্রী, পুত্র, ভাই-বোন ও ঘর-বাড়ি, সহায়-সম্পত্তি ছেড়ে, সাদা কাপড়ে ইহরাম বেঁধে, অশ্রুশিক্ত নয়নে বিদায় জানায় আত্মীয় স্বজন পাড়াপ্রতিবেশীকে। আল্লাহর প্রেমে মাতোয়ারা হয়ে সবকিছু ত্যাগ করে প্রেমিকের ঘর বাইতুল্লাহর জিয়ারতে উপস্থিত হন। খাওয়া দাওয়ার প্রতি থাকে না কোনো আগ্রহ, থাকে না আরাম আয়েশের কোনো চিন্তা। এরা তো আল্লাহর প্রেমে মগ্ন। এরা তো আল্লাহর মেহমান। খতিব পবিত্র হজ্বের শিক্ষা নিয়ে আল্লাহর প্রেম, মহব্বত অর্জনে ও পরকালে জান্নাত লাভে নবীজি সাল্লাল্লাহু আলইহি ওয়া সাল্লামের আদর্শ অনুসরণে পরস্পরে কলহ বিবাদ দূর করে ঐক্যবদ্ধভাবে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে ইসলাম, দেশ, জাতি ও মানবতার কল্যাণে নিষ্ঠার সাথে সকলকে কাজ করার আহ্বান জানান।

ঢাকার মিরপুরের বাইতুল আমান কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতীব মুফতি আবদুল্লাহ ফিরোজী বলেন, মসজিদ ভিত্তিক ছবাহী মক্তব বা সকালবেলার কোরআন শিক্ষার আসর ইসলামী ঐতিহ্যের অংশ। ধর্মীয় জ্ঞানার্জনের ক্ষেত্রে মক্তব হচ্ছে মুসলমানদের প্রথম পাঠশালা এবং কোরআনে কারিম শিক্ষার প্রাথমিক স্তর। আমাদের বাচ্চাদের নীতি নৈতিকতা এবং ইসলামী সংস্কৃতি শেখারও অনন্য মাধ্যম এই মক্তব। এই মক্তবগুলোর পরিচর্যা করা দরকার। কারণ, মক্তব টিকে থাকলেই আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের ঈমান আমল ঠিক থাকবে।

ধর্মীয় চেতনাবোধ তাদেরকে অপরাধমুক্ত জীবন গঠনে উৎসাহিত করবে। আজকে দিকে দিকে স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ইসলামের প্রতি দরদ এবং মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রতি ভালোবাসার কলিজা ঠান্ডা করা যে দৃশ্য দেখা যায়, এটা ধরে রাখতে হলে মক্তব পরিচর্যার বিকল্প নেই। খতিব আরো বলেন, আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে ইরশাদ করেন, “আমি আমার বান্দাদের মাঝে তাদেরকে সেই কিতাবের (কোরআন) উত্তরাধিকারী করেছি, যাদেরকে পছন্দ করে মনোনীত করেছি।” (সূরা ফাতির-৩২)। সুতরাং উত্তরাধিকারী হিসেবে প্রতিটি মানুষের কোরআনের জ্ঞানার্জন করা ফরজ।

ঢাকার শেওড়াপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব মুফতি সিফাতুল্লাহ রহমানি বলেন, রাসূল (সা.) শুধু মুসলমানদের নবী নন। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে “আপনি বলে দিন, হে মানবমণ্ডলি তোমাদের সবার প্রতি আমি আল্লাহ প্রেরিত রাসূল সুতরাং তোমরা বিশ্বাস স্থাপন করো আল্লাহর ওপর, তাঁর প্রেরিত উম্মি নবীর ওপর তোমরা তাঁর অনুসরণ করো। আশা করা যায় তোমরা সঠিক পথপ্রাপ্ত হবে।” (সূরা আ’রাফ-১৫৮)।

মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ছিলেন সেরা মহামানব। সকল ভালো গুণের অধিকারী। করুণার প্রতিচ্ছবি, দয়ার আঁধার, পরোপকারি। মুসলিম, অমুসলিম সকলের হক্ব আদায়কারী, আমানতদার, বিশ্বস্ত, সর্বোত্তম উন্নত চরিত্রের অধিকারী এককথায় বলতে গেলে পবিত্র কোরআনের সকল গুণ অর্জনকারী মহান সর্বশ্রেষ্ঠ ও সর্বশেষ রাসূল। পবিত্র কোরআনে ইরশাদ হয়েছে- “আপনি অবশ্যই মহান চরিত্রের অধিকারী।” (সূরা আল ক্বলম-০৪) খতিব বলেন, কোনো অবস্থাতেই প্রিয় নবিজির কোনো বিষয় নিয়ে কটূক্তি করা সমালোচনা করা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ, ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ এবং লা’নতের উপযুক্ত।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন