মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সাংবাদিকদের জরিমানার ক্ষমতা প্রেস কাউন্সিলের

সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা আইন অনুমোদন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ জুন, ২০২২, ১২:০০ এএম

সর্বজনীন পেনশন ব্যবস্থাপনা আইন, ২০২২’ এর খসড়া নীতিগত ও চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এছাড়া সাংবাদিকদের জরিমানার বিধান রেখে প্রেস কাউন্সিল আইনের খসড়া মন্ত্রিসভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। সিলেটে পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠান ‘রিভিউ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে অর্থ বিভাগের উপস্থাপন করা এ আইনের খসড়া অনুমোদন দেওয়া হয়।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, খসড়া আইন অনুযায়ী এনআইডিকে ভিত্তি ধরে ১৮ থেকে ৫০ বছর পর্যন্ত বয়সী সবাই অংশ নিতে পারবে। প্রবাসী কর্মীরাও এটাতে চাঁদা দিয়ে অংশ নিতে পারবে। কমপক্ষে ১০ বছর প্রিমিয়াম দিতে হবে। তিনি বলেন, ৬০ বছর থেকে যতদিন জীবিত থাকবে ততদিন পেনশন পাবে। প্রিমিয়াম কত হবে তা বিধি করে নির্ধারণ করা হবে। পেনশনে থাকাকালীন কেউ মারা গেলে ওয়ারিশরা ৭৫ বছর বয়স পর্যন্ত পেনশন পাবে। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান। এর আগে গত ৯ জুন জাতীয় সংসদে ২০২২-২৩ অর্থবছরের বাজেট পেশকালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানান, আগামী (২০২২-২৩) অর্থবছর সর্বজনীন পেনশন চালু করবে সরকার। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে জানা গেছে, ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বয়স্ক জনগোষ্ঠীকে একটি টেকসই ও সুসংগঠিত সামাজিক নিরাপত্তা কাঠামোর আওতায় বৃদ্ধকালীন সুরক্ষা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতীয়ভাবে একটি সর্বজনীন পেনশন পদ্ধতি প্রবর্তনের অঙ্গীকার করেছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৫ সালে সরকার কর্তৃক প্রণীত জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশলপত্রে একটি ব্যাপকভিত্তিক সমন্বিত অংশগ্রহণমূলক পেনশন ব্যবস্থা গড়ে তোলার প্রস্তাব করা হয়েছিল।
খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, অপসাংবাদিকতার জন্য সংবাদ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করতে পারবে প্রেস কাউন্সিল। সাংবাদিকদের জরিমানার বিধান রেখে প্রেস কাউন্সিল সংশোধন আইন ২০২২ এর খসড়া মন্ত্রিসভায় নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন, জরিমানা হিসেবে সুনির্দিষ্ট পরিমাণ টাকার অংক রাখার বিষয়টি বাতিল করা হয়েছে। প্রেস কাউন্সিলই জরিমানার অংক নির্ধারণ করবে। তিনি বলেন, খসড়া আইনে অপসাংবাদিকতার জন্য সংবাদ সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে অর্থদণ্ডের কথা রাখা হয়েছে। আগে প্রেস কাউন্সিল শুধু তিরস্কার করতে পারতো। এটা প্রিন্ট ও ডিজিটাল সব সংবাদ মাধ্যমের জন্য বলবৎ হবে।
মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সচিব বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধনের সময় ৬৪ জেলায় এক সঙ্গে অনুষ্ঠান করার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। তবে চলমান বন্যার কারণে সিলেটে পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠানের বিষয়টি রিভিউ করতে বলেছে মন্ত্রিসভা। পদ্মা সেতুর বিষয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে কোনো আলোচনা হয়েছে কি না? সাংবাদিকদের এমন এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে সব সময় আলোচনা হচ্ছে। আগামী বুধবার পদ্মা সেতুর বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে সবকিছু বলবেন প্রধানমন্ত্রী। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন ৬৪ জেলায় উৎসবের কথা বলা হয়েছিলো। সেখানে কোনো পরিবর্তন আসবে কি না? এমন এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, সিলেটের বিষয়টা রিভিউ করতে বলা হয়েছে।
আগামী ২৫ জুন সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বহুল কাক্সিক্ষত পদ্মা সেতু উদ্বোধন করবেন। এরই মধ্যে পদ্মা নদীর ওপর নির্মিত সেতুটি পদ্মা সেতু নামকরণ করে গেজেট জারি করেছে সরকার। গেজেট জারির পরদিন ৩০ মে মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন ইনশাআল্লাহ সুপার গর্জিয়াস হবে। ৬৪ জেলায় এক সঙ্গে রেপ্লিকেশন হবে। এখানে অরিজিনাল উদ্বোধন, সব জায়গায় রেপ্লিকেশন হবে।
জানা গেছে, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজনে সেতু বিভাগ বেশ কিছু উপ-কমিটি গঠন করেছে। বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে সেতুটির উদ্বোধন করা হবে। উদ্বোধনের দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জনসভায় ভাষণ দেবেন। অনুষ্ঠানে মন্ত্রিসভার সদস্য, আওয়ামী লীগের সিনিয়র সদস্য, কূটনীতিকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। এদিকে পদ্মা সেতুর নাম চূড়ান্ত করে সেতু বিভাগের উন্নয়ন অধিশাখা থেকে জারি করা গেজেটে বলা হয়েছে, সেতু বিভাগের অধীন বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ থেকে বাস্তবায়নাধীন ‘পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্প’ এর আওতায় মুন্সিগঞ্জ জেলার মাওয়া এবং শরীয়তপুর জেলার জাজিরা প্রান্ত সংযোগকারী পদ্মা নদীর ওপর নির্মিত সেতুটি সরকার ‘পদ্মা সেতু’ নামে নামকরণ করলেন। এর আগে গত ২৪ মে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে পদ্মা নদীর নামেই সেতুর নামকরণ করা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
আবির ২১ জুন, ২০২২, ১:২৭ এএম says : 0
সাংবাদিকদের সুনির্দিষ্ট একটা আইন করা খুব জরুরি হয়ে পড়েছে। আজ যারা ভালোভাবে লেখতে জানে না তারাও সাংবাদিক পরিচয় দেয়
Total Reply(0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps