রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ মুহাররম ১৪৪৪

ব্যবসা বাণিজ্য

বিজিএমইএ প্রতিনিধিদল বেঙ্গালুরুতে অ্যাপারেল সোর্সিং উইক ২০২২-এ অংশগ্রহন করবে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০২২, ৮:২৭ পিএম

শীর্ষস্থানীয় পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারকদের নিয়ে গঠিত বিজিএমইএ এর একটি প্রতিনিধিদল ভারতের বেঙ্গালুরুতে অনুষ্ঠিতব্য অ্যাপারেল সোর্সিং উইক ২০২২-এ অংশগ্রহন করবে।

দু’দিনের প্রদর্শনীটি শুরু হবে ০১ জুলাই ২০২২ বেঙ্গালুরুর শেরাটন গ্রান্ড হোয়াইটফিল্ডে।

এই বাণিজ্য মেলাটি বাংলাদেশ ও ভারতের পোশাক ও টেক্সটাইল রপ্তানিকারকদের মধ্যে ব্যবসায়িক মিথস্ক্রিয়া তরান্বিত করে নতুন বাণিজ্য সুযোগ উন্মোচনের একটি কার্যকর প্লার্টফর্ম হিসেবে কাজ করবে।

মেলাটি ভারত, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া এবং শ্রীলঙ্কাসহ সারা বিশ্বের গার্মেন্টস, ফেব্রিক্স এবং এক্সেসরিজ প্রস্তুতকারীদেরসহ ১০০ এরও অধিক অংশগ্রহনকারীদের একই ছাদের নীচে নিয়ে আসবে, যেখানে তারা ব্যবসার সুযোগগুলো অন্বেষণ করবে।

আশা করা যাচ্ছে যে, ভারতীয় রিটেইলার ও ব্র্যান্ডসমূহ এবং ভারতীয় বাজারে কাজ করা আন্তর্জাতিক রিটেইলার ও ব্র্যান্ডসমূহের প্রতিনিধিগণ, এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের মতো প্রচলিত বাজারের ক্রেতাদের পাশাপাশি চীন, জাপান ও অষ্ট্রেলিয়ার মতো অপ্রচলিত বাজারের ক্রেতাগণও এই মেলা পরিদর্শন করতে আসবেন।

বাংলাদেশী পোশাক রপ্তানিকারকদের নিয়ে গঠিত বিজিএমইএ প্রতিনিধিদলটি টেক্সটাইল, পোশাক এবং ফুটওয়্যার শিল্পের নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন ক্লায়েন্টদের সাথে ব্যবসায়িক বৈঠক করবে।

প্রদর্শনী চলাকালীন বিভিন্ন কার্যক্রম Ñ সেমিনার, প্যানেল আলোচনা, ভেন্ডর ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হবে।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, বাংলাদেশ ও ভারত, প্রতিবেশী দেশ দু’টির পোশাক ও বস্ত্র শিল্পের উন্নয়নে একে অপরের পরিপূরক হয়ে পারস্পরিক সুবিধা অর্জনের ব্যাপক সুযোগ রয়েছে।

তিনি বলেন, “বাংলাদেশী পোশাকের জন্য ভারত একটি প্রতিশ্রুতিশীল রপ্তানি বাজার। ভারতে আমাদের পোশাক রপ্তানি ২০২০ সালে ৩৬৮.০৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে ৫১.১৩ শতাংশ বেড়ে ২০২১ সালে ৫৫৬.২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হয়েছে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ ভারত থেকে সুতা, কাপড়, রং, রাসায়নিক এবং অন্যান্য কাঁচামাল আমদানি করে থাকে।”

তিনি আরও বলেন, অ্যাপারেল সোর্সিং উইক ২০২২ উভয় দেশের প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারকদের কাছাকাছি এনে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বাণিজ্য বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পালন করবে।

অ্যাপারেল সোর্সিং উইক ২০২২-এ অংশগ্রহনকারী বাংলাদেশী পোশাক রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে প্যাসিফিক জিন্স লিমিটেড, ইউনিভার্সাল জিন্স লিমিটেড, বান্দো ডিজাইন লিঃ, লায়লা স্টাইলস লিঃ, উটাহ নিটিং এন্ড ডাইং লিঃ, উটাহ ফ্যাশনস লিঃ, পাকিজা নিট কম্পোজিট লিঃ, কেডিএস ফ্যাশন লিঃ, কেডিএস টেক্সটাইল মিলস লিঃ, মাহমুদ জিন্স লিঃ, কেডিএস গার্মেন্টস ইন্ডাষ্ট্রিজ লিঃ, স্ট্যান্ডার্ড স্টিচেস লিঃ, স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপ লিঃ, ডেনিম্যাচ লিঃ, মিসামী গার্মেন্টস লিঃ, তারাসিমা অ্যাপারেলস লিঃ, পশ গার্মেন্টস, মোহাম্মদী গ্রুপ লিঃ, প্রগ্রেস অ্যাপারেলস, রুট অ্যাপারেলস লিঃ, জায়ান্ট টেক্সটাইল লিঃ, লাউইটেক্স ম্যানুফ্যাকচারিং লিঃ, গ্রিন স্মার্ট শার্ট লিমিটেড, খানটেক্স ফ্যাশনস লিমিটেড, অবন্তী কালার টেক্স লিঃ, থ্রেডমিল ক্লোদিং লিঃ. ওয়েলস্ট্যান্ড অ্যাপারেল লিঃ, আরাবি ফ্যাশন লিঃ এবং ইনটিমেট অ্যাপারেলস লিঃ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন