মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

বাসিন্দাদের ঢাল হিসাবে ব্যবহার করছে ইউক্রেন

অ্যামনেস্টির রিপোর্টে ক্ষুব্ধ জেলেনস্কি ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীকে মাদক দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র! ষ বিশাল এলাকা ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে কিয়েভ ষ লুহানস্কে ইউক্রেনের আরও ২৪ সামরিক ড্রোন অপারেট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ আগস্ট, ২০২২, ১২:২৩ এএম

ইউক্রেনের সেনারা বেসামরিক স্থাপনায় ঘাঁটি বানিয়ে ও সাধারণ নাগরিকদের ‘মানব ঢাল’ হিসাবে ব্যবহার করছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই দাবি করে আসছিল রাশিয়া। এবার তাদের সেই দাবির সত্যতা খুঁজে পেয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। এক প্রতিবেদনে তারা জানিয়েছে, বেসামরিক স্থাপনা ব্যবহার করে রুশ বাহিনীর ওপর ইউক্রেনের সেনারা হামলা করছে। যার ফলে পাল্টা আক্রমণে বেসামরিক নাগরিকরা হতাহত হচ্ছে। এমন প্রতিবেদনে প্রচণ্ড ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত এ প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ইউক্রেনের সেনারা অন্তত ২২টি হাসপাতালকে ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহার করেছে। এছাড়া, বিভিন্ন জনবহুল স্থান থেকে রুশ সেনাদের উপর হামলা করা হয়। যা যুদ্ধ আইনবিরোধী। অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের সেক্রেটারি জেনারেল ডক্টর অ্যাগনেস কাল্লামার্ড বলেন, ইউক্রেনের সেনাদের কর্তৃক বেসামরিক নাগরিকদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলার একটি ধরণ তারা সংগ্রহ করেছেন। প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হওয়ার পর জেলেনস্কিসহ তার সরকারের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীরা অ্যামনেস্টির কড়া সমালোচনা জানিয়েছেন। জেলেনস্কির বলেন, অ্যামনেস্টি রাশিয়ার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে পৃষ্ঠপোষকতা করছে। তার মতে, অ্যামনেস্টি আগ্রাসনকারীর পরিবর্তে ভুক্তভোগীর ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা করছে। ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবাও অ্যামনেস্টির দাবি প্রত্যাখ্যান করেছেন। এছাড়া, ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীও অ্যামনেস্টির প্রতিবেদনকে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ বলে দাবি করেছেন। তার মতে, এ প্রতিবেদনের কারণে নিজেদের দেশ রক্ষায় ইউক্রেনের সেনাদের লড়াইয়ের বৈধতা নিয়ে প্রশ্ন উঠবে।

ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীকে মাদক দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র : রাশিয়ান সেনাবাহিনীর বিকিরণ, রাসায়নিক ও জৈবিক সুরক্ষা বাহিনীর প্রধান লেফটেন্যান্ট-জেনারেল ইগর কিরিলোভ বৃহস্পতিবার বলেছেন, রাশিয়ান বিশেষজ্ঞরা ইউক্রেনের সামরিক কর্মীদের পরিত্যক্ত অবস্থানে ওপিওয়েড ড্রাগ এবং এফিড্রিন পদার্থ খুঁজে পেয়েছেন।

তিনি জানান, রাশিয়ান বিশেষজ্ঞরা ইউক্রেনের যুদ্ধবন্দীদের কাছ থেকে নেয়া জৈব নমুনাগুলো নিয়ে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছেন। তিনি স্মরণ করেন যে, এর আগে তাদের রক্তে অ্যান্টিবায়োটিক এবং ইমিউনোলজিকালের উচ্চ উপস্থিতি পাওয়া গিয়েছিল। এটি রেনাল সিন্ড্রোম এবং ওয়েস্ট নাইল ফিভারের সাথে এর কারণকারী এজেন্টদের সাথে যোগাযোগের ইঙ্গিত দেয়, যা পেন্টাগন ইউক্রেনীয় প্রকল্প ইউপি-৪ এবং ইউপি-৮ এর অধীনে অধ্যয়ন করছিল।
কিরিলোভ বলেন, ‘ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর পরিত্যক্ত অবস্থানে পাওয়া ওপিওয়েড ড্রাগস সহ মাদকদ্রব্যের প্রতি বিশেষ মনোযোগ দেয়া উচিত, যেমন মেথাডোন, কোডপসিন এবং কোডটারপ, সেইসাথে ইফেড্রিন পদার্থ: টি-ফেড্রিন এবং ট্রাইফেড্রিনভ।’ একই সময়ে, তিনি ব্যাখ্যা করেছিলেন যে ওষুধের প্রতিস্থাপন থেরাপির উপায় হিসাবে মাদকাসক্তির চিকিৎসায় মেথাডোন ব্যবহার করা হয়েছিল।

কিরিলোভ স্মরণ করেছিলেন যে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নাৎসি জার্মানিতে, মেডিকেল অফিসাররা সৈন্যদের মানসিক চাপ কমাতে পারভিটিন (একটি অ্যামফিটামিন ডেরিভেটিভ) দিয়েছিলেন। কোরিয়ান ও ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময় যুক্তরাষ্ট্র একই ওষুধ ব্যবহার করেছিল। ‘এ ধরনের ওষুধগুলি আসক্তি সৃষ্টি করে এবং এর ফলে অত্যধিক আক্রমণাত্মকতার মতো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়, যা কিছু ইউক্রেনীয় সৈন্যদের দ্বারা বেসামরিক জনগণের প্রতি চরম নিষ্ঠুরতা, সেইসাথে ডনবাসের শহরগুলিতে বোমা হামলাকে ব্যাখ্যা করে,’ তিনি যোগ করেন।

বিশাল এলাকা ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে কিয়েভ : ইউক্রেন অভিযানে বিশাল সাফল্য পেয়েছে রাশিয়া। তারা ডনবাস এলাকার বেশিরভাগ অংশের উপরেই নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছে। ইউক্রেন নিজেও স্বীকার করেছে যে, তারা রাশিয়ার আক্রমণের মুখে দেশের পূর্বে কিছু অঞ্চল ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়েছে। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি এ সপ্তাহে পূর্ব ইউক্রেনের ডনবাস অঞ্চলে তার সশস্ত্র বাহিনী যে চাপের মধ্যে ছিল তাকে ‘নরক’ বলে বর্ণনা করেছেন। তিনি আভদিভকা শহর এবং পিস্কির সুরক্ষিত গ্রামের চারপাশে ভয়ানক লড়াইয়ের কথা বলেছিলেন, যেখানে সাম্প্রতিক দিনগুলিতে কিয়েভ তার রাশিয়ান শত্রুর ‘আংশিক সাফল্য’ স্বীকার করেছে। রুশ ও রুশপন্থী বাহিনী পূর্ব ইউক্রেনের ডোনেৎস্কের উপকণ্ঠে একটি গ্রাম পিস্কির সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে, তাস নিউজ এজেন্সি শুক্রবার বিচ্ছিন্নতাবাদী বাহিনীকে উদ্ধৃত করে বলেছে। তারা আরও বলেছে যে, ডোনেৎস্কের উত্তরে বাখমুত শহরে লড়াই চলছে। ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী বৃহস্পতিবার বলেছে যে, রুশ বাহিনী পিস্কিতে অন্তত দুটি হামলা চালিয়েছে।

লুহানস্কে ইউক্রেনের আরও ২৪ সামরিক ড্রোন অপারেটর নির্মূল : রাশিয়ান গার্ড লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিক (এলপিআর) এ ইউক্রেনীয় সেনাবাহিনীর ড্রোনের আরও ২৪ জন অপারেটরকে সনাক্ত ও নির্মূল করেছে, গার্ডের প্রেস অফিস বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা তাসকে জানিয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘রেডিও-ইলেক্ট্রনিক ইন্টেলিজেন্স পরিচালনা করতে গিয়ে, রাশিয়ান গার্ডসম্যানরা ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর চালকবিহীন বিমানের ২৪ জন অপারেটরকে সনাক্ত করেছে যাদের আর্টিলারি ফায়ার দ্বারা নির্মূল করা হয়েছিল।’ প্রসঙ্গত, এ অপারেটররা দূর থেকে ড্রোন নিয়ন্ত্রণ করতে বিশেষভাবে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত।

লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের তাদের অপারেশনের শেষ তিন দিনে, রাশিয়ান গার্ডের কর্মীরা দুটি জ্যাভলিন অ্যান্টি-ট্যাঙ্ক মিসাইল সিস্টেম, ১৭টি গ্রেনেড লঞ্চার, সুইডিশ-নির্মিত হ্যান্ড-হেল্ড অ্যান্টি-আরমার অস্ত্র, ৪৬টি ছোট অস্ত্র এবং শিকারী রাইফেল উদ্ধার করেছে। এছাড়া ৫০০ টিরও বেশি শেল এবং মাইন, ১৪০টি গ্রেনেড, গ্রেনেড লঞ্চারের জন্য ৭০ রাউন্ড, ছোট অস্ত্রের জন্য ৩ হাজারেরও বেশি গোলাবারুদ এবং একটি পার্ড-টিএ৩২ তাপীয় ইমেজারও উদ্ধার করা হয়েছে, প্রেস অফিস জানিয়েছে। রাশিয়ান গার্ডের প্রেস অফিস গত ২ আগস্ট তাসকে বলেছিল যে, তার কর্মীরা লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের সামরিক ড্রোনের ১৩ ইউক্রেনীয় অপারেটর সনাক্ত ও নির্মূল করেছে। এদিকে, রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় শুক্রবার বলেছে যে, তারা ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়া অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি দুটি এম৭৭৭ হাউইটজার কামান ধ্বংস করেছে।

রাশিয়া সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মুখ্য ভূমিকা রাখছে : সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে বিশ্ব সম্প্রদায়ের লড়াইয়ে রাশিয়া একটি গুরুত্বপূর্ণ চালিকা শক্তি, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জঘন্য অপবাদ এটি পরিবর্তন করবে না। গতকাল এক ব্রিফিংয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনয়িং এ মন্তব্য করেছেন। রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসবাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষক’ ঘোষণা করার জন্য মার্কিন কংগ্রেস সিনেটে আহ্বানের বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে চুনয়িং বলেছেন, ‘সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের লড়াইয়ে রাশিয়া একটি গুরুত্বপূর্ণ শক্তি এবং তারা সন্ত্রাসবাদের হুমকি মোকাবেলায় সক্রিয় এবং গঠনমূলক ভূমিকা পালন করে।’ ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিদ্বেষপূর্ণ মিথ্যা কোনোভাবেই এই সত্য পরিবর্তন করবে না,’ তিনি যোগ করেছেন।

সবাই জানে যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সর্বদা নির্বিচারে অন্যান্য দেশকে সন্ত্রাসী তকমা দিয়েছে, হুয়া চুনয়িং অব্যাহত রেখেছেন। কূটনীতিকের মতে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র অন্যদের বক্তৃতা দিতে এবং অন্যান্য দেশকে চাপ, বাধা এবং হয়রানির জন্য বিভিন্ন ধরণের ভিত্তিহীন অভিযোগ প্রয়োগ করতেও অভ্যস্ত। গত ২৭ জুলাই, মার্কিন সিনেট রাশিয়াকে সন্ত্রাসবাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষক হিসেবে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য পররাষ্ট্র দপ্তরের প্রতি আহ্বান জানিয়ে একটি প্রস্তাব পাস করে। ২৮ জুলাই, উভয় দলের কংগ্রেসম্যানদের একটি দল প্রতিনিধি পরিষদের বিবেচনার জন্য অনুরূপ নথি উল্লেখ করার পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। তথ্যের বিষয়ে মন্তব্য করে, রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেছেন যে, রাশিয়া যুক্তরাষ্ট্রের সাথে পরিস্থিতির যেকোনো উন্নয়নের জন্য প্রস্তুত। তার মতে, ওয়াশিংটন কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিলে মস্কো তা থেকে উপকৃত হবে। সূত্র : তাস, রয়টার্স, আল-জাজিরা, ফ্রান্স ২৪।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Mominul Hoque ৬ আগস্ট, ২০২২, ১২:২৯ পিএম says : 0
সব চাতইতে বড় সমস্যার মূল হলো ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ডে। এই জোকারটাকে সরিয়ে দিলেই ইউক্রেনে অতিসত্তর শান্তি বয়ে আসবে। সময় অনেক গড়িয়েছে। ইউক্রেনেরও অনেক ক্ষতি হয়েছে, যে ক্ষতির সম্মুখিন আজ সারা বিশ্ব ভোগ করতেছে। সুতরাং এই জোকারটাকে সরানোই এখন আসল টার্গেট হওয়া উচিত।
Total Reply(0)
Mohmmed Dolilur ৬ আগস্ট, ২০২২, ৫:৩৮ এএম says : 0
যদি তাই হয়ে থাকে, ইউক্রেনের প্রেসিডেনট ভ্লাদিমির জেলেনসকি কে তাহার দেশের সেনা বাহিনীরা জনগণ কে নিয়ে তাকে হত্যা করা উচিত হবে,অন্যথায় জনগণ কে মরতে হবে,রাশিয়া কে দোষারোপ করে লাভ হবে না।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন