বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

সম্পদ জব্দ করা হলে শেষ রাশিয়া-মার্কিন সম্পর্ক

সতর্কতা মস্কোর ডনবাসে পেস্কির বস্তি সম্পূর্ণরূপে মুক্ত :: ইউক্রেনের হিমারস লঞ্চার, গোলাবারুদ ডিপো, দুটি এমআই-২৪ হেলিকপ্টার ধ্বংস :: ‘জাপোরোজিয়ে পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রে হামলার বিষয়ে

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যেকোনো রুশ সম্পদ জব্দ করলে তা ওয়াশিংটনের সাথে মস্কোর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস করবে। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উত্তর আমেরিকান বিভাগের প্রধানকে উদ্ধৃত করে রুশ বার্তা সংস্থা তাস গতকাল একথা বলেছে।

মি. আলেকজান্ডার দারচিভ তাসকে বলেছেন, ‘আমরা আমেরিকানদের এ ধরনের কর্মের ক্ষতিকর পরিণতি সম্পর্কে সতর্ক করি যা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে স্থায়ীভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে, যা তাদের বা আমাদের স্বার্থে নয়’। তিনি কোন সম্পদের কথা বলছেন তা তাৎক্ষণিকভাবে পরিষ্কার হয়নি। মি. দারচিভ আরো বলেন, ইউক্রেনের ওপর মার্কিন প্রভাব এমন মাত্রায় বেড়েছে যে, ‘আমেরিকানরা ক্রমবর্ধমান সঙ্ঘাতের সরাসরি পক্ষ হয়ে উঠছে’।

কূটনীতিককে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল যে, মস্কো ও ওয়াশিংটনের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক কমানোর সম্ভাবনা বিবেচনা করা হচ্ছে কি না। দারভিচ বলেন, ‘বর্তমান অস্থির পরিস্থিতিতে যখন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে পশ্চিমারা কূটনৈতিক অনুশীলনে আন্তর্জাতিক আইন এবং সম্পূর্ণ নিষিদ্ধতাকে পদদলিত করেছে তখন কী সম্ভব এবং কী সম্ভব নয় সে সম্পর্কে আমি অনুমানমূলক জল্পনা-কল্পনায় যেতে চাই না’।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিভাগের প্রধান জোর দিয়ে বলেন, ‘এ প্রেক্ষাপটে আমি রাশিয়াকে ‘সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষক দেশ’ ঘোষণার জন্য কংগ্রেসে বর্তমানে যে আইনি উদ্যোগ নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে তা উল্লেখ করতে চাই। যদি পাস হয়, তাহলে এর অর্থ দাঁড়াবে যে, ওয়াশিংটনকে বিন্দু ছাড়িয়ে যেতে হবে। দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক সম্পর্কের গুরুতর সমান্তরাল ক্ষতি, তাদের কমানো বা এমনকি ভেঙে ফেলা পর্যন্ত। মার্কিন পক্ষকে সতর্ক করা হয়েছে’।
ডনবাসে পেস্কির বস্তি সম্পূর্ণরূপে মুক্ত : ডনবাস প্রজাতন্ত্রের মিত্রবাহিনী এবং রাশিয়ান সেনাবাহিনী দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিক (ডিপিআর) এর পেস্কি বসতিকে সম্পূর্ণরূপে মুক্ত করেছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট-জেনারেল ইগর কোনাশেনকভ গতকাল একথা জানিয়েছেন।

মুখপাত্র বলেছেন, ‘মিত্র বাহিনীর আক্রমণাত্মক অভিযানের ফলে, দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের পেস্কির বসতি সম্পূর্ণরূপে মুক্ত করা হয়েছে’। তিনি যোগ করেছেন, ডিপিআর পিপলস মিলিশিয়ার মুখপাত্র এডুয়ার্ড বাসুরিন গত ১০ আগস্ট সাংবাদিকদের বলেছিলেন যে, মিত্রবাহিনী মেরিঙ্কা, পেস্কি এবং আভদেয়েভকার বসতিগুলোর আশেপাশে দোনেৎস্ক এলাকায় বড় যুদ্ধ অভিযান পরিচালনা করছে। প্রজাতন্ত্রের উত্তরে সোলেদার এবং আর্টিওমভস্কে, জনগণের মিলিশিয়া বাহিনী ইতোমধ্যেই শহর ও শিল্প এলাকায় লড়াই করছে।

হিমারস লঞ্চার, গোলাবারুদ ডিপো ধ্বংস : রাশিয়ার বাহিনী ইউক্রেনে তাদের বিশেষ সামরিক অভিযানে একটি হিমারস রকেট লঞ্চার এবং এর গোলাবারুদের একটি ডিপো ধ্বংস করেছে বলে জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট-জেনারেল ইগর কোনাশেনকভ।
মুখপাত্র গতকাল বলেন, ‘দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের ক্রামতোরস্ক সম্প্রদায়ের এলাকায়, একটি হিমারস লঞ্চার এবং এটির জন্য গোলাবারুদের একটি ডিপো ধ্বংস করা হয়েছে’।

কোনাশেনকভ রিপোর্ট করেছেন, রাশিয়ান অপারেশনাল-কৌশলগত এবং সেনা বিমান চলাচলের বিমান, ক্ষেপণাস্ত্র এবং আর্টিলারি সৈন্যরা ইউক্রেনের সামরিক স্থাপনার বিরুদ্ধে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে। ‘নিকোলায়েভ অঞ্চলের ডোমানিয়ভকার বসতি এলাকায় একটি হেলিপ্যাডে ইউক্রেনীয় বিমান বাহিনীর দুটি এমআই-২৪ হেলিকপ্টার ধ্বংস হয়ে গেছে। হামলায় ১৪৩টি এলাকায় ইউক্রেনের চারটি কমান্ড পোস্ট, জনবল এবং সামরিক সরঞ্জামও ধ্বংস করা হয়েছে’, কোনাশেনকভ জানিয়েছেন।

এম১৪২ হিমারস (হাই মোবিলিটি আর্টিলারি রকেট সিস্টেম) হল একটি অত্যন্ত মোবাইল মাল্টিপল লঞ্চ রকেট সিস্টেম যা ইউএস-ভিত্তিক প্রতিরক্ষা প্রযুক্তি করপোরেশন, লকহিড মার্টিনের তৈরি। ২২৭ মিমি রকেটের ছয়টি টিউব বা একটি অ্যাটাকএমসএস (আর্মি ট্যাকটিকাল মিসাইল সিস্টেম) ব্যালিস্টিক মিসাইলসহ লঞ্চারটি এফএমটিভি (মাঝারি কৌশলগত যানবাহনের পরিবার) পরিবহনকারীদের পাঁচ টন ওজনের ছয় চাকার চেসিসে মাউন্ট করা হয়েছে।

লঞ্চারটি ৩০ কিমি থেকে ৮০ কিমি (রকেটের জন্য) এবং ৩০০ কিমি এবং আরো বেশি (একটি কৌশলগত ক্ষেপণাস্ত্রের জন্য) স্ট্রাইক রেঞ্জসহ ২০ ধরনের যুদ্ধাস্ত্র নিক্ষেপ করে। সিস্টেমটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কানাডা, পোল্যান্ড, রোমানিয়া এবং জর্ডানসহ কিছু দেশে পরিষেবার জন্য গৃহীত হয়েছে।

ইউক্রেনের দুটি এমআই-২৪ হেলিকপ্টার ধ্বংস : রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট-জেনারেল ইগর কোনাশেনকভ গতকাল আরো জানিয়েছেন, ইউক্রেনে তাদের বিশেষ সামরিক অভিযানে নিকোলায়েভ অঞ্চলের একটি হেলিপ্যাডে ইউক্রেনের বিমান বাহিনীর দুটি এমআই-২৪ হেলিকপ্টার ধ্বংস করেছে রাশিয়ান বাহিনী।
মুখপাত্র বলেছেন, ‘নিকোলায়েভ অঞ্চলের ডোমানিওভকার বসতি এলাকায় একটি হেলিপ্যাডে ইউক্রেনীয় বিমান বাহিনীর দুটি এমআই-২৪ হেলিকপ্টার ধ্বংস হয়ে গেছে’।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইগর কোনাশেনকভের মতে, রাশিয়ার মহাকাশ বাহিনী ১২টি সামরিক হার্ডওয়্যারও ধ্বংস করেছে। তিনি জানিয়েছেন, রাশিয়ার মহাকাশ বাহিনী ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর দশম পর্বত হামলা ব্রিগেডের স্থাপনার জায়গায় সূক্ষ্ম হামলা চালিয়েছে, যাতে ইউক্রেনে তাদের বিশেষ অভিযানে প্রায় ২শ’ জঙ্গিকে নির্মূল করেছে। মুখপাত্র বলেছেন, ‘দোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের পেরেয়েজডনয়য়ের বসতি এলাকায় দশম পর্বত হামলা ব্রিগেডের অস্থায়ী স্থাপনার বিরুদ্ধে রাশিয়ান এরোস্পেস বাহিনীর নির্ভুল হামলায় ১৭০ জন জাতীয়তাবাদী এবং ১২টি সামরিক হার্ডওয়্যারকে নির্মূল করা হয়েছে’।

‘জাপোরোজিয়ে পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রে হামলার বিষয়ে ইইউর প্রতিক্রিয়া অপর্যাপ্ত’ : জাপোরোজিয়ে নিউক্লিয়ার পাওয়ার প্ল্যান্টে (এনপিপি) ইউক্রেনের আক্রমণের জন্য ইইউ-এর প্রতিক্রিয়াকে পর্যাপ্ত বিবেচনা করা যায় না। ইইউতে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভøাদিমির চিজভ রাশিয়ান টিভির সাথে একটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, যার টুকরো শুক্রবার তার ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয়।

তিনি বলেন, ‘এটা শুনতে কিছুটা অদ্ভুত যে, ইইউর প্রতিক্রিয়া তাৎক্ষণিক ছিল। হ্যাঁ, এটি বিলম্বিত হয়নি, তবে এটি অপর্যাপ্ত ছিল’।
রাশিয়ান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এর আগে বলেছিল যে, বৃহস্পতিবার ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর ৪৪তম আর্টিলারি ব্রিগেড ১৫২ মিমি আর্টিলারিসহ নিকোপোল সেটেলমেন্টের অবস্থান থেকে জাপোরোজিয়ে পারমাণবিক কেন্দ্রে গুলি চালায়। আক্রমণের ফলে হিট প্ল্যান্টের সরঞ্জাম এবং চুল্লি কুল্যান্ট সিস্টেমের স্প্রে কুলিং পুকুরের ক্ষতি হয়েছিল। প্ল্যান্টের গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি এবং চুল্লিগুলো নিয়মিত কাজ করছে।

জাপোরোজিয়ে এনপিপি ইউরোপের বৃহত্তম পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র। প্রায় ৬ হাজার মেগাওয়াট ক্ষমতাসহ এটি ইউক্রেনের এক চতুর্থাংশ বিদ্যুত উৎপাদন করে। ১৯৯৬ সাল থেকে এটি ইউক্রেনের ইনার্জোটম জেনারেটিং কোম্পানির অংশ ছিল। ২০২২ সালের মার্চ মাসে পারমাণবিক কেন্দ্রের নিয়ন্ত্রণ রাশিয়ান সামরিক বাহিনীর হাতে চলে যায়। এখন, জাপোরোজিয়ে অঞ্চলের মুক্ত অঞ্চলে বিদ্যুতের অতিরিক্ত সরবরাহের কারণে প্ল্যান্টটি তার ক্ষমতার ৭০ শতাংশে কাজ করছে। প্ল্যান্ট থেকে ক্রিমিয়াতে বিদ্যুৎ সরবরাহের পরিকল্পনা করা হয়েছে। সূত্র : তাস ও রয়টার্স।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
Md Mominur Rahman ১৪ আগস্ট, ২০২২, ৭:০৫ এএম says : 0
বর্তমান বিশ্ব যে বৈশ্বিক সমস্যার মধ্য দিয়ে সময় পার করছে, সেখানে জ্বালানী তেলের সংকটের কারনে খাদ্য উৎপাদনের ঘাটতি তৈরী হলে, জন জীবনে চরম দুর্ভোগ নেমে আসবে। খাদ্য উৎপাদনের সর্বোচ্চ সুযোগ তৈরী করে দিতে হবে, তা না হলে কোটি কোটি মানুষ খাদ্য সংকটে মারা যাবে।
Total Reply(0)
MD Shahabur Rahman Shabu ১৪ আগস্ট, ২০২২, ৭:০৪ এএম says : 0
জাপানের মত দেশ জ্বালানি নিয়ে হিমসিম খাচ্ছে, সেখানে বাংলাদেশ সংকটে পরাটাই স্বাভাবিক, এটা নিয়ে এতো বেশি পরিমান রাজনীতি না করাটাই ভালো।
Total Reply(0)
Anwar Hossain ১৪ আগস্ট, ২০২২, ৭:০৪ এএম says : 0
জাপানীরা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে খুবই সজাগ। তাই ঝুঁকিপূর্ণ কোন কিছুই তারা রাখছে না।
Total Reply(0)
Riya Das ১৪ আগস্ট, ২০২২, ৭:০৫ এএম says : 0
বাংলাদেশে বর্তমানে সাধারণ মানুষের জীবন যাপন অনেক কষ্ট দায়ক--- তবে,, জাপানের মত দেশ যেখানে,, জ্বালানি নিয়ে হিমসিম খাচ্ছে, সেখানে বাংলাদেশ সংকটে পরাটাই স্বাভাবিক,, আমি মনে করি। এটা নিয়ে এতো বেশি পরিমান রাজনীতি না করাটাই ভালো। অন্য অনেক বিষয় আছে,, যা নিয়ে আলোচনা হতে পারে।
Total Reply(0)
MD. MAHBUBUR RAHMAN ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১১:০১ এএম says : 0
বর্তমানে বিভিন্ন দেশে খাদ্য সমস্যা দেখা দিয়েছে। যদি আমেরিকা ইউরোপ রাশিয়া চিন এগুলো এক কাতারে না আসে তবে এই সমস্যার সমাধান একেবারেই অনিশ্চিত....
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন