বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কাবুলে নারীদের বিক্ষোভ দমনে কঠোর তালেবান

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১২:২৮ পিএম

আগামীকাল সোমবার, অর্থাৎ ১৫ আগস্ট নতুন তালেবান সরকার আফিগানিস্তানে ক্ষমতায় আসার এক বছর। এক বছরে তাদের অবস্থার কোনও উন্নতি হয়নি—এ নিয়েই শনিবার রাজধানী কাবুলের পথে নামলেন মেয়েরা। হাতে প্ল্যাকার্ড, ব্যানার। তাতে লেখা ‘১৫ অগস্ট কালো দিন’। কঠোর হাতে সেই বিক্ষোভ দমন করল তালেবান।

শনিবার সকালে কাবুলে শিক্ষা মন্ত্রকের দফতরের সামনে মিছিল করলেন অন্তত ৪০ জন মহিলা। মুখে স্লোগান, ‘রুটি, কাজ, স্বাধীনতা’। মহিলাদের মিছিল ভেঙে দিতে প্রথমে শূন্যে গুলি চালান তালেবান যোদ্ধারা। প্রাণ বাঁচাতে আন্দোলনকারী মহিলাদের কয়েক জন লুকিয়ে পড়েন আশপাশের দোকানে। সেখানে গিয়েও রেহাই মেলেনি। তাড়া করে ছুটে যান তালেবানরা। বন্দুকের বাঁট দিয়ে মারধর করেন।

২০২১ সালের ১৫ আগস্ট তালেবান ক্ষমতায় আসার পর বন্ধ হয় মহিলাদের পড়াশোনা, চাকরি। স্বেচ্ছায় বা প্রয়োজনে বাড়ি থেকে বেরোনোর উপর চাপানো হয় নিষেধাজ্ঞা। হিজাব ছাড়া বাড়ির বাইরে যাওয়া বন্ধ করা হয়। এর পর নতুন তালেবান সরকার মহিলাদের পড়াশোনার অনুমতি দিলেও আরোপ করে একাধিক শর্ত। কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র এবং ছাত্রীদের মাঝে টেনে দেয়া হয় পর্দা। নতুন সরকারে নেই কোনও মহিলা প্রতিনিধি। এর প্রতিবাদে গত বছর সেপ্টেম্বরেও কাবুলের পথে নামেন মহিলারা। প্রশ্ন তোলেন, আন্তর্জাতিক মহল এই নিয়ে চুপ কেন।

এ বার নতুন সরকারের এক বছর পূর্তির ঠিক দু’ দিন আগে আবারও সেই ইস্যু-সহ বিভিন্ন বিষয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে পথে মহিলারা। শনিবার তাদের গলায় শোনা গেল হতাশাও। স্লোগান দিয়ে বলেন, ‘বিচার চাই, বিচার। এই অবহেলা নিয়ে আমরা বিরক্ত, হয়রান।’ সরকারের এক বছর পূর্তিতেও আফগান মেয়েদের এই বিরক্তি, হতাশা মিটবে কি না, প্রশ্ন তাদের। সূত্র: ডন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
jack ali ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১:৩৭ পিএম says : 0
আফগানিস্তানে সরকার যেটা করেছে সেটা শরীয়ত সম্মত অসভ্য বেহায়া বেপর্দা নারীদেরকে এভাবেই শিক্ষা দিতে হয় ওদের বাবাকেও সরকারের উচিত শাস্তি দেওয়া কেননা তাদের মা-বাবা তাদের মেয়েদেরকে বাইরে অসুখ প্রভাবের যাওয়ার অনুমতি দিচ্ছে এবং রাস্তাঘাটে বিক্ষোভ করছে বেপর্দা নারী অভিশপ্ত [মুসনাদে আহমদ হাদিস: 7083] জাহান্নামের অধিকাংশ অধিবাসী মহিলা [বুখারি হাদিস: 3014] নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, “পুরুষদের জন্য নারীর চেয়ে বেশি ক্ষতিকর কোন ফিতনা আমি আমার পিছনে রেখে যাইনি।” আল-বুখারী, ৫০৯৬ দ্বারা বর্ণিত; মুসলিম, 2740। ইবনু মাজাহ ৪১৮৫, তিরমিজী হাদিস নম্বরঃ ১৯৭৪ রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ "প্রতিটি ধর্মে‌র একটি প্রাকৃতিক চরিত্র রয়েছে। ইসলামের প্রাকৃতিক চরিত্র হল হায়া (লজ্জা)" অথবা "প্রত্যেক দীনের বা ধর্মের একটি প্রাকৃতিক চরিত্র রয়েছে। ইসলামের চরিত্র শালীনতা (হায়া)।" আবদুল্লাহ ইবনে উমর বর্ণিত যে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ "হায়া ও ইমান একে অপরের সঙ্গী। যখন তাদের মধ্যে একজনকে তুলে নেওয়া হয়, তখন অন্যটিও চলে যায়।"সহীহ, সহীহাহ ৪৯৫, রাওযুন নাযীর ৭৪৬, তিরমিজী হাদিস নম্বরঃ ২০০৯, ২০১৫ — (বায়হাকি) রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ "এই পৃথিবী থেকে হায়া [লজ্জাশীলতা]এবং বিশ্বস্ততা সর্ব‌প্রথম উঠে যাবে, অতএব, আল্লাহর কাছে এগুলো বেশি বেশি চাইতে থাকো।" যাদের ব্যাপারে আল্লাহ্ তা‘আলা ও তাঁর রাসূল সরাসরি জাহান্নামের উল্লেখ করেছেন, বেপর্দা নারী তাদের অন্যতম। যা মানুষের জাহান্নামে যাওয়ার অন্যতম মাধ্যম। মানুষের ঈমান ধ্বংসেরও কারণ বটে। নারীর পায়ের তলে বেহেস্ত, পুরুষের পায়ের তলে জুতা নারীদের জান্নাতে যাওয়া খুবই সহজ .তারা যদি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে, রমজানে রোজা রাখে, নিজের পবিত্রতা রক্ষা করে এবং স্বামীর আনুগত্য করে, তাকে বলা হবে তুমি যে দরজা দিয়ে ইচ্ছে জান্নাতে প্রবেশ করো [মুসনাদে আহমদ হাদিস 1661]
Total Reply(0)
মোঃ হাফিজুর রহমান ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১২:৪৫ পিএম says : 0
আলহামদুলিল্লাহ ছুম্মা আলহামদুলিল্লাহ সরকার যা করেছে তা তাদের জনগণের জন্য ভালোই করেছে
Total Reply(0)
jack ali ১৪ আগস্ট, ২০২২, ১:৩৭ পিএম says : 0
একবার আলী ইবনে আবি তালিব (রাঃ) তাঁর স্ত্রী ফাতিমাকে (রাঃ) জিজ্ঞেস করলেন, একজন মুমিন নারীর কাছে সবচেয়ে প্রিয় জিনিস কি? ফাতিমা (রাঃ) উত্তর দিলেন, "অচেনা পুরুষ যেন আমাকে না দেখে আমিও অচেনা পুরুষকে যেন না দেখি।" যে মহিলারা পোশাক পরেন তারা নগ্ন বলে মনে হয়। তারা মন্দ কাজের দিকে ঝুঁকে পড়ে এবং এর দিকে আমন্ত্রণ জানায়। তাদের মাথা হবে ব্যাক্ট্রিয়ান উটের কুঁজের মতো। নবীর বাণী, “তারা জান্নাতে প্রবেশ করবে না এবং এর ঘ্রাণও পাবে না”। নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন, “পুরুষদের জন্য নারীর চেয়ে বেশি ক্ষতিকর কোন ফিতনা আমি আমার পিছনে রেখে যাইনি।” আল-বুখারী, ৫০৯৬ দ্বারা বর্ণিত; মুসলিম, 2740।
Total Reply(0)
আবদুর রহমান ১৪ আগস্ট, ২০২২, ৩:০৫ পিএম says : 0
এই খানে হাতে গোনা 40 নারী এরা ধর্ম নিরপেক্ষ মতবাদে বিশ্বাসী । এদেরকে কঠোর হাতে দমন করা উচিত। এরা বাংলাদেশের আওয়ামী লীগের , মতো
Total Reply(0)
Abd rahman ১৪ আগস্ট, ২০২২, ৫:০৪ পিএম says : 0
তালেবান যোদ্ধা বলছেন কেন? তালেবান প্রশাসন বলতে পারেন না? ও ভয় লাগে,আপনাদের মত সাংবাদিকের কারণে দেশের এই পরিস্থিতি সত্য প্রকাশ করতে ভয় হয়।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন