বৃহস্পতিবার ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

মহানগর

প্রতিটা আঘাতের প্রত্যুত্তর দেয়া হবে: রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৮:৫৮ পিএম

বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর প্রতিটা আঘাতের প্রত্যুত্তর দেয়া হবে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী

সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেন,'
আমরা কি ঐ সমস্ত কাপুরুষের মার খাব? যারা নারীদের উপর হামলা করে এটা ভাবার কোন কারন নেই।প্রতিটা আঘাতের আমরা প্রত্যুত্তর দিবো,সেই প্রস্তুতি আমরা নিচ্ছি।আপনারা কেউ রেহাই পাবেন না।আপনাদের প্রতিটা ভিডিও আপনাদের প্রতিটা ছবি আমাদের কাছে আছে ঐ কাপুরুষ কারা? প্রত্যেকটাই আমাদের রেকর্ডে আছে।প্রত্যেকটার জবাব আপনারা পাবেন।

রবিবার(১৮ সেপ্টেম্বর)নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির উদ্দ্যোগে সারাদেশে বিএনপির নেতাকর্মীদের উপর হামলার প্রতিবাদে প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন,'ওরা(আওয়ামী লীগ) মনে করেছে বিএনপি গান্ধীবাদে বিশ্বাস করে।বিএনপি গান্ধীবাদে বিশ্বাস করে না।আমরা শান্তি চাই,আমরা গণতন্ত্রকামি।রক্ত যতগুলো ঝড়ছে একটি রক্ত কণা ও বাদ যাবে না প্রতিটি রক্তকণার জবাব আমরা আওয়ামীলীগ এবং শেখ হাসিনাকে বুঝিয়ে দেবো।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন,'
আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান বলেছেন টেক ব্যাক বাংলাদেশ, এর অর্থ হচ্ছে গণতন্ত্র ফিরে আসা, কথা বলার স্বাধীনতা ফরে আসা যেখানে গুম খুন ক্রসফায়ার থাকবেনা।আমরা সেই শান্তির বাংলাদেশের জন্য সংগ্রাম করছি।

রিজভী বলেন, আমাদের মহাসচিব এর একটা বক্তব্য নিয়ে কিছুদিন আগে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন বিএনপির নেতৃবৃন্দদের নামে রাষ্ট্রদ্রোহী মামলা করা উচিৎ। পাকিস্তান আমলে ৬০এর দশকে তো আমরা গুম খুন ক্রসফায়ারের কথা শুনিনি এই আওয়ামী লীগের আমলে শুনছি। তবে পাকিস্তানের একটা আমলের সাথে আওয়ামী লীগের আমলের মিল আছে সেটা হলো হলো ইয়াহিয়া টেক্কা খানের একাত্তরের আমল তখন আমরা নারী নির্যাতনের কথা শুনেছি। মুক্তিযোদ্ধাদের ঘরে ঘরে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার খবর শুনেছি। সেই টিক্কা খানের আমল আর বর্তমান হাসিনার আমলের সাথে মিল খুঁজে পাই।

তিনি বলেন,'৭১সালে পাক হানাদার বাহিনী নারীর সম্ভ্রম হানি করেছে। বাংলার সাধারণ জনগণকে হত্যা করেছে। আজ শেখ হাসিনার বাহিনী কি করছে? গুম খুনে দেশটা ভরিয়ে দিয়েছে।৭১ সালে পাক হানাদার বাহিনী যা করেছে বর্তমান শেখ হাসিনার বাহিনী তাই করছে।

রিজভী আরও বলেন, ৭১ এর পাকহানাদার বাহিনীর সাথে শেখ হাসিনার মিল আছে আমি কেন বলেছি কারণ হলো বিএনপি'র শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে তারা আক্রমণ করে। সেলিমা রহমান যিনি বিএনপির নেতা এবং বয়স্ক তাকে ইট মারতে পারে পাঁচবারের এমপি বরকত উল্লাহ বুলু তিনি তো কোন কর্মসূচিতে ছিলেন না। তিনি বাড়ি থেকে ঢাকায় আসছিলেন। রাস্তার মাঝখানে তার উপর আক্রমণ করেছে সারা মাথায় সেলাই । সারা মাথা ব্যান্ডেজ করা রয়েছে। এবং সেই ব্যান্ডেজের উপর দিয়েই রক্ত চুইয়ে চুইয়ে পড়ছে। তার স্ত্রীর পা থেতলে দিয়েছে। মাথায় আঘাত করেছে। যারা নারীর গায়ে হাত দেয়। নারীকে আঘাত করে তারা মানুষ না পশু,তারা কাপুরুষ। বরকতউল্লাহ বুলুর সহধর্মিনী একজন নম্র ভদ্র মহিলা তার ওপর আঘাত করতেও দ্বিধাবোধ করেনি। তাহলে আমি ওদের ৭১এর ঘাতকদের সাথে ছাড়া আর কাদের সাথে তাদের তুলনা করব?

রিজভী বলেন,'অনেক লড়াইয়ের ঐতিহ্যবাহী দল হচ্ছে বিএনপি। এরশাদের বিরুদ্ধে নয় বছর সংগ্রাম করে লড়াই করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছে বিএনপি। সেই লড়াইয়ের পতাকা বিএনপি বহন করছে। সেই লড়াই থেকে আমাদেরকেও বিচ্যুতি করতে পারবেন না।আমাদের লড়াই আদর্শের জন্য।আমাদের প্রিয় নেত্রী গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়া মানুষকে যে কথা দেন সেই কথা রাখেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি'র আহবায়ক আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে এবং উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব যথাক্রমে রফিকুল ইসলাম মজনু এবং আমিনুল হকের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর,স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস,চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম,আবুল খায়ের ভূইয়া,যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দীন টুকু,স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এস এম জিলানী,ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন প্রমুখ বক্তব্য দেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন