বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

জাতিসংঘে গুমের মামলা নিয়ে আলোচনা শুরু আজ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

জাতিসংঘে ওয়ার্কিং গ্রুপের ১২৮তম অধিবেশনে বিশ্বের দেশে দেশে গুম সংক্রান্ত মামলার ওপর আলোচনা শুরু হবে আজ সোমবার। এ আলোচনা চলবে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। তবে ২০ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে গুমের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হবে।

এদিকে জাতিসংঘের গুমবিষয়ক বিশেষজ্ঞ কমিটি ‘ওয়ার্কিং গ্রুপ অন এনফোর্সড অর ইনভলান্টারি ডিজঅ্যাপিয়ারেন্স’ বাংলাদেশে গুমের আরো ৫টি নতুন মামলা নথিভুক্ত করেছে। এ নিয়ে এই কমিটির কাছে বাংলাদেশের গুম সংক্রান্ত তদন্তাধীন মামলার সংখ্যা হলো ৮১টি। এর আগে ৭৬টি মামলা নথিভুক্ত করা হয়।

এই ৫টি মামলার মধ্যে ২টি ঘটনা ঘটেছে ২০২১-২২ সেশনের মধ্যে। অন্য ৩টি ঘটনা এর আগের। এই নতুন মামলাগুলো নিয়ে জাতিসংঘের গুমবিষয়ক বিশেষজ্ঞ কমিটি বাংলাদেশ সরকারকে চিঠি দিলেও সরকারের তরফ থেকে এখনো কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি। মামলাগুলোর বিশদ বিবরণ জানা সম্ভব হয়নি। কারণ, গুম সংক্রান্ত এই বিশেষজ্ঞ কমিটি কেবল সংশ্লিষ্ট সরকারি সংস্থার কাছে নামগুলো প্রকাশ করেছে।

হংকংভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা এশিয়ান হিউম্যান রাইটস কমিশনের (এএইচআরসি) তথ্য অনুসারে, এই সময়কালে নতুন ১৯টি গুমের ঘটনা ঘটেছে এবং ভুক্তভোগীদের মধ্যে ৪ জন এখনো নিখোঁজ আছেন। এএইচআরসি বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত খবর থেকে গুমের একটি হিসাব রাখে।
জাতিসংঘের গুমবিষয়ক বিশেষজ্ঞ কমিটি যে নতুন ৫টি মামলা নথিভুক্ত করেছে তার মধ্যে ২টিকে ‘টাইম-সেনসেটিভ’ কিংবা আর্জেন্ট প্রসিডিওর’ মামলা হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছিল।

যখন কাউকে জোরপূর্বক আটকে রাখা হয় তখন সেটাকে জাতিসংঘ আর্জেন্ট প্রসিডিওর মামলা হিসেবে বিবেচনা করে এবং সরকারকে তাদের মুক্তি দেওয়ার জন্য সুপারিশ করে। এর অর্থ হলো, জাতিসংঘ যখন সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে তখন তাদের কাছে এমন প্রমাণ ছিল যে ২ ব্যক্তিকে জোর করে ইচ্ছাকৃতভাবে আটকে রাখা হয়েছে।

মামলাগুলো এখন পর্যন্ত অমীমাংসিত। আর এটাও স্পষ্ট নয় যে, ওই ২ ভুক্তভোগীকে কি আদৌ মুক্তি দেওয়া হয়েছে, নাকি তারা এখনো নিখোঁজ আছেন। আজ সোমবার জাতিসংঘে ওয়ার্কিং গ্রুপের ১২৮তম অধিবেশনে সব মামলার ওপর আলোচনা শুরু হয়ে চলবে ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। ওয়ার্কিং গ্রুপের বার্ষিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিভিন্ন বিষয়ে তারা বাংলাদেশকে ৪টি চিঠি পাঠিয়েছে। এগুলোর মধ্যে ১টি ছিল জরুরি আবেদন, যা অজ্ঞাত পরিচয়ে আটক ব্যক্তির অধিকার ও স্বাধীনতা বজায় রাখা এবং একটি স্বাধীন ও নিরপেক্ষ ট্রাইব্যুনালের সামনে তাদের ন্যায্য কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দেওয়া সংক্রান্ত। আরেকটি চিঠিতে বাংলাদেশে নিখোঁজ ব্যক্তিদের স্বজন ও মানবাধিকার কর্মীদের হয়রানি ও হুমকির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার অনুরোধ জানানো হয়।

এছাড়া গুমের শিকার হওয়া থেকে প্রত্যেক ব্যক্তির সুরক্ষাসংক্রান্ত ঘোষণার লঙ্ঘন এবং এ ঘোষণা বাস্তবায়নে বাধা সংক্রান্ত একটি যৌথ ও সাধারণ অভিযোগপত্র পাঠিয়েছে জাতিসংঘের ওয়ার্কিং গ্রুপ।
প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে ওয়ার্কিং গ্রুপের পাঠানো চিঠিগুলোর একটিতে গুমের শিকার হওয়া ব্যক্তিদের পরিবারগুলোকে পুলিশি হয়রানির অভিযোগের বিষয়ে উদ্বেগ জানানো হয়েছে। আরেকটি চিঠিতে বেসরকারি সংস্থা ‘অধিকার’র বিরুদ্ধে বিচারবিভাগীয় হয়রানি সম্পর্কে তথ্য চাওয়া হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মামলাগুলো স্পষ্ট করার জন্য ওয়ার্কিং গ্রুপ কর্তৃপক্ষকে ১২৫তম অধিবেশনের পর পাঠানো সাধারণ অভিযোগের জবাবসহ অতিরিক্ত তথ্য প্রদানের প্রচেষ্টা দ্বিগুণ করার আহ্বান জানিয়েছে। এছাড়া র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের সদস্যদের দ্বারা সংঘটিত গুমের অভিযোগ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে এর স্বাধীন ও নিরপেক্ষ তদন্ত শুরু করার আহ্বান জানিয়েছে। এতে আরো বলা হয়, ওয়ার্কিং গ্রুপ জোর দিয়ে বলেছে যে, সরকারকে নিখোঁজ ব্যক্তিদের স্বজনদের পাশাপাশি তাদের পক্ষে কাজ করা মানবাধিকার সংস্থা ও নাগরিক সংগঠনগুলোকে দেওয়া হুমকি, প্রতিশোধমূলক আচরণ ও ভয়-ভীতি প্রদর্শন থেকে অবশ্যই সুরক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (4)
Jamal Bin Rahaman ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৫:৫৫ এএম says : 0
আশাকরি জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশন গুমের ঘটনার জন্য বাংলাদেশ কে ফাঁসির দণ্ড দিবে।
Total Reply(0)
তামজিদ বিন হাসান ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৭:০৪ এএম says : 0
আশা করছি গুম নামক গুজবের অবসান ঘটবে এবার। আমি আয়নাঘর থিওরি মিন করছি।
Total Reply(0)
মরুর কাফেলা ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৫:৫৫ এএম says : 0
আলোচনা শেষ হতে কয়েক বছর লাগতে পারে..
Total Reply(0)
Rabbul Islam Khan ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৫:৫৬ এএম says : 0
বাংলাদেশের গুমের ঘটনা নিয়ে জাতিসংঘের কোন নির্দেশনা আসবে। তারা কোন শর্ত দিবে। হয়তো জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী মিশনে এর প্রভাব পরতে পারে ।
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন