রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

কংগ্রেসের সভাপতি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী শশী-অশোক

সোনিয়া গান্ধীর সম্মতি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

শেষ পর্যন্ত হয়ত কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে না গান্ধী পরিবারের কোনো সদস্য। এই আবহে কংগ্রেস সভাপতি পদের নির্বাচনে মুখোমুখি হতে পারেন অশোক গেহলট এবং শশী থারুর। শশী থারুর যে কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারেন, সেই জল্পনা তৈরি হয়েছিল বিগত বেশ কয়েকদিন ধরেই। এরই মাঝে সোমবার কংগ্রেসের অন্তর্র্বতীকালীন সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে দেখা করেন শশী থারুর।
সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, তিরুবনন্তপুরমের সংসদ সদস্যকে কংগ্রেস সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ‘অনুমতি’ দিয়েছেন সোনিয়া গান্ধী। সোমবার নয়াদিল্লিতে সোনিয়া গান্ধীর বাসভবনে যান শশী থারুর। সেখানেই তিনি বৈঠক করেন কংগ্রেসের অন্তর্র্বর্তী সভানেত্রীর সঙ্গে। সেখানেই বিষয়টি ঠিক হয় বলে খবর। যদিও এ নিয়ে কংগ্রেসের তরফে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

এদিকে এরই মাঝে কংগ্রেস সভাপতি নির্বাচনের প্রার্থী হিসেবে উঠে আসছে অশোক গেহলটের নাম। যদিও অশোকের ঘনিষ্ঠ সূত্রে দাবি করা হয়েছে, তিনি রাহুল গান্ধীকে সভাপতি হওয়ার জন্য রাজি করানোর চেষ্টা করছেন। সোমবার গুজরাট, তামিলনাড়ুসহ সাতটি রাজ্যের প্রদেশ কংগ্রেস কমিটি প্রস্তাবনা পাশ করে রাহুল গান্ধীকেই দলের সভাপতি করার দাবি জানিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের শেষে কংগ্রেসের সভাপতি পদে বসেছিলেন রাহুল গান্ধী। তার নেতৃত্বেই ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে লড়াই করে হারের মুখ দেখে কংগ্রেস। এরপরই হারের দায় স্বীকার করে সভাপতি পদ থেকে ইস্তফা দেন রাহুল। তারপর থেকে দলের দায়িত্ব নিতে নারাজ রাহুল। দলের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন রাহুলের মা সোনিয়া গান্ধী। বিগত দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে কংগ্রেসের সভাপতি পদে কোনো গান্ধীই থেকেছেন।

এই আবহে শশী থারুর বা অশোক গেহলটের মধ্যে কেউ একজন এই পদে বসলে তা দলের জন্য এক ‘বদল’ হবে। ওদিকে গান্ধী পরিবার ঘনিষ্ঠ নেতা হিসেবেই পরিচিত অশোক গেহলট। আর শশী থারুর ‘বিদ্রোহী’ জি-২৩ গোষ্ঠীর সদস্য। সূত্র : টিওআই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন