সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নে ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সিইসি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

বর্তমান নির্বাচন কমিশনও অতীতের নির্বাচন কমিশনগুলোর অনুসরণ করে সরকারের মনোবাসনা পূরণে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। দেশের নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর প্রবল বিরোধীতা সত্ত্বেও ইভিএম ক্রয়ে সরকারি বিশাল বাজেট নিয়ে কাজ করছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী। তিনি বলেন, দেশে অর্থনৈতিক সঙ্কট মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। এমতাবস্থায় দেশের বিশাল অর্থ ব্যয়ে ইভিএম ক্রয় দূরভিসন্ধি। মঙ্গলবার বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ কার্যালয়ে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের উদ্যোগে চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি পর্যলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, দলের মহাসচিব প্রিন্সিপাল হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, সহকারি মহাসচিব মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ, মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, কেএম আতিকুর রহমান, অধ্যাপক সৈয়দ বেলায়েত হোসেন, মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মাওলানা খলিলুর রহমান, বরকত উল্লাহ লতিফ, জিএম রুহুল আমীন, মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাকী ও মাওলানা এবিএম জাকারিয়া। প্রিন্সিপাল মাদানী বলেন, নির্বাচন কমিশন সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত নিয়ে তা ক্রয়ে মরিয়া হয়ে উঠছে। অবিলম্বে ইভিএম কেনার সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। বিগত বছরেও ইভিএম ক্রয়ে বিগত ইসির মারাত্মক দুর্নীতির সংবাদ দেশের জনগণ দেখেছে।

খেলাফত মজলিস : খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, নির্বাচন কমিশন ২ লাখ নতুন ইভিএম ক্রয়ের জন্য যে সাড়ে ৮ হাজার কোটি টাকারও বেশি বাজেট দিয়েছে তা অগ্রহণযোগ্য। প্রথমত অধিকাংশ নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সাথে তাদের যে সংলাপ হয়েছে সেখানে ইভিএমের বিপক্ষ মত ছিল সংখ্যাগরিষ্ঠ। দ্বিতীয়ত এই মন্দার সময়ে এত বিশাল অঙ্কের বাজেট পাশ হলে দেশের অর্থনীতিতে এর বিরূপ প্রভাব পড়বে। এছাড়াও বাজার দর যাচাই ও যথাযথ সমীক্ষা ছাড়াই এই বাজেট পেশ করা হয়েছে বলে ইতিমধ্যে অভিযোগ উঠেছে।

তাই অবিলম্বে ইভিএম ক্রয়ের সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে। প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেছেন, রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে সমঝোতা হয়ে গেলে পুরো নির্বাচন ব্যালট পেপারের মাধ্যমেও হতে পারে। যদি তাই হয় তাহলে নতুন ইভিএম ক্রয় করে জনগণের করের বিশাল অঙ্কের টাকার অপচয় কার স্বার্থে ? আমীরে মজলিস গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের সাপ্তাহিক বৈঠকে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথাগুলো বলেন।
খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড: আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন, নায়েবে আমীর মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, অধ্যাপক আবদুল হালিম, যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, অধ্যাপক আবদুল জলিল, মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন মিয়াজী, অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান, অধ্যাপক কাজী মিনহাজুল আলম, প্রকৌশলী আবদুল হাফিজ খসরু, হাজী নুর হোসাইন, মাওলানা আবদুল হক আমিনী, শাহাব উদ্দিন আহমদ খন্দকার, তাওহীদুল ইসলাম তুহিন ও মাওলানা সাইফ উদ্দিন আহমদ খন্দকার।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন