ঢাকা শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ আশ্বিন ১৪২৭, ২৯ মুহাররম ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

শফিউলের ইনজুরিতে কপাল খুলল রাব্বীর

| প্রকাশের সময় : ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা :কি দুর্দান্ত ফর্মেই না ছিলেন শফিউল। ২৩ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ম্যাচে করেছেন পারফর্ম। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩ ম্যাচে ৪ উইকেটে দিয়েছিলেন ছন্দে ফেরার আভাস। বিপিএলে খুলনা টাইটান্সের বোলিংয়ে স্পটলাইটটা ছিল তারই উপরে। বরিশাল বুলসের বিপক্ষে ম্যাচ উইনিং বোলিং (৪/১৭), ১৩ ম্যাচে ১৮ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশ বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি এই পেস বোলারের জন্য বিপিএলই হয়ে দাঁড়ালো কাল! গত পরশু ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় হ্যামেস্ট্রিংয়ে চোট পেয়ে বিপিএল থেকে পড়েছেন ছিটকে। কোয়ালিফাইয়ারে রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে খেলা হয়নি তার। শুধু বিপিএল থেকেই ছিটকে পড়েননি, বাংলাদেশ দলের অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড সফর থেকেও ছিটকে পড়েছেন ২০১১ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের নায়ক শফিউল।
ইনজুরিটা যে বড় ধরনের শংকায় ফেলে দিয়েছে, নির্বাচকদের সিদ্ধান্তের আগেই তার আভাসই দিয়েছেন শফিউলÑ ‘গত ম্যাচে খেলার সময় ফিল্ডিং করতে গিয়ে চোট পেয়েছি। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি। ব্যথা আছে। আজ (গতকাল) এমআরআই করিয়েছি। রিপোর্ট এখনো আসেনি। রাজশাহীর বিপক্ষে কোয়ালিফাইয়ারে খেলতে পারছি না। নিউজিল্যান্ড সফরের ভাগ্যটা কি হবে, তা বেুঝতে পারছি না। এমআরআই রিপোর্ট দেখার পর পর বোঝা যাবে কি অবস্থা। আমি খুব হতাশ। যে সময়ে বিপিএলে রিদম পেতে শুরু করেছি, সে সময়ে ফিল্ডিংয়ের সময়ে বাঁ পায়ে চোট পেলাম। ইনজুরির কারণে লম্বা সময়ে দলের বাইরে ছিলাম। আবারো সেই ইনজুরিতে পড়তে হতো। ’
হ্যামেস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়ে শফিউলকে অন্তত: তিন সপ্তাহ বিশ্রামে থাকতে হচ্ছে, ফলে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড সফর নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা, গতকাল দুপুরে এমনটাই জানিয়েছিলেন বিসিবির প্রধান চিকিৎসক ডা. দেবাশিষ চৌধুরীÑ ‘শফিউলকে এখনো দেখিনি আমরা। এমআরআই রিপোর্ট করিয়েছে। আপাতত: সে বিশ্রামে আছে। আমরা অফিসিয়াল রিপোর্টের অপেক্ষায় আছি। যেহেতু হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি, তাই ইনজুরিটা সাধারণ হলেও হলেও ফিট হয়ে উঠতে দুই থেকে তিন সপ্তাহ লেগে যাবে। শুনেছি শুনেছি হ্যামস্ট্রিং স্ট্রেইনও আছে। এ ধরনের কিছু হলে তিন সপ্তাহের আগে কিছুই বলা যাবে না।’
ফিরে ওয়ানডে, টেস্ট খেলেছেন। ছিলেন টি-২০তে ফেরার অপেক্ষায়। ইনজুরি জর্জরিত পেস বোলিং লাইন আপে তাকে নিয়েই ছিল টিম ম্যানেজমেন্টের ভরসা। এ মাসে অস্ট্রেলিয়ায় ৯ দিনের কন্ডিশনিং ক্যাম্প থেকে নিউজিল্যান্ড সফরে তিন ভার্সনের ক্রিকেটেই ছিলেন অপরিহার্য শফিউল। বিপিএলে পারফর্ম করায় সাড়ে তিন বছর পর টি-২০ ক্রিকেটে ফেরার সম্ভাবনাও ছিল এই পেস বোলারের। তবে হ্যামেস্ট্রিং ইনজুরি থেকে সুস্থ হয়ে মাঠে ফিরতে ফিরতে শফিউলকে অপেক্ষা করতে হবে ৬ সপ্তাহ। এমন পরিস্থিতির মুখে শফিউলের আশা ছেড়ে দিয়ে তার বিকল্প ক্রিকেটারের সন্ধান করতে হচ্ছে নির্বাচকদের। বিপিএলে পারফর্ম করেও ( ১০ ম্যাচে ১৫ উইকেট) ইনজুরি ছিটকে ফেলেছে পেস বোলার মোহাম্মদ শহীদকে। তার ইনজুরিতে কপাল খুলেছে পেস বোলার রুবেল হোসেনের। ২ দিন আগে শহীদের রিপ্লেশমেন্ট হিসেবে অস্ট্রেলিয়া এবং নিউজিল্যান্ড সফরে নির্বাচকরা বেছে নিয়েছেন রুবেলকে। অস্ট্রেলিয়া যাত্রার ঠিক প্রাক্কালে শফিউলের রিপ্লেশমেন্টও ঠিক করতে হয়েছে নির্বাচকদের। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক হওয়া কামরুল ইসলাম রাব্বীকেই শফিউলের রিপ্লেশমেন্ট হিসেবে বেছে নিয়েছেন নির্বাচকরা। তবে অস্ট্রেলিয়া সফর এবং নিউজিল্যান্ড সফরের শুরুতে দলের সঙ্গে থাকতে না পারলেও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য শফিউলকে তৈরি রাখছেন নির্বাচকরা। গতকাল রাতে এ সিদ্ধান্তের কথাই জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। টেস্ট সিরিজের আগে শফিউল ম্যাচ ফিটনেস ফিরে পাবেন বলে আশা করছেন তিনিÑ‘ হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি আপনি বলতে পারবেন না কয় সপ্তাহ লাগবে। সেটা আড়াই সপ্তাতেও ঠিক হতে পারে। তাছাড়া ও ফর্মে থাকা বোলার। যতো তাড়াতাড়ি ও সুস্থ হবে ধরেন এই মাসের মধ্যে সুস্থ হলে তো টেস্ট ম্যাচে ওকে আমরা দলে পেতে পারি। টেস্ট শুরু জানুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে, সেই হিসেবে অ্যাডভান্টেজ পাবে শফিউল।’
ফিট থাকতেও আল আমিনকে বিবেচনা করা হয়নি, তার কারণটাও গোপনীয় রাখেননি প্রধান নির্বাচকÑ ‘আল আমিনের নেগেটিভ ব্যাপারটা আলোচনায় সব সময়ই থাকে। এজন্য আগে থেকেই আমরা রিপ্লেসম্যান্ট হিসাব করতে গিয়ে ওকে রাখিনি। শৃঙ্খলা ভঙ্গের বিষয়টা ছিল বলেই ওকে আমরা রাখিনি। টিম ম্যানেজম্যান্ট থেকে শুরু করে সবদিক থেকে ওর ব্যাপারে নেগেটিভ বার্তা পেয়েছি।’ ক’দিন আগে সিসিটিভির ফুটেজে অনৈতিক কাজে জড়িয়ে পড়ায় সাড়ে ১২ লাখ টাকা অর্থদÐে দÐিত আল আমিনকে তাহলে কৃতকর্মের ফল ভোগ করতে হচ্ছে। নিউজিল্যান্ড যাওয়ার পর প্র্যাকটিস ম্যাচের আগে ১৫ জনের ওয়ানডে দল ঘোষণা করবেন নির্বাচকরা। ২য় ওয়ানডের পর টেস্ট টিমও ঠিক করে ফেলা হবে। টি-টুয়েন্টি শেষে ৫ জন ফিরে আসবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন