মঙ্গলবার ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১১ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

জাতিসংঘ ও ফ্রান্সকে কটাক্ষ মালির প্রধানমন্ত্রীর

রাশিয়ার প্রশংসা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

রাশিয়ার সাথে ‘দৃষ্টান্তমূলক’ সহযোগিতার প্রশংসা করার পাশপাশি অবনতিশীল নিরাপত্তা পরিস্থিতির জন্য ফ্রান্স এবং জাতিসংঘকে কটাক্ষ করেছেন মালির প্রধানমন্ত্রী আবদৌলায়ে মাইগা। শনিবার জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭ তম অধিবেশনে ভাষণ দেয়ার সময়, মালির দুই বারের অভ্যুত্থান নেতা আসমি গোইতার সাথে সম্পর্কের অবনতি হওয়ার কারণে প্রতিবেশী নাইজারে তার অবশিষ্ট সৈন্যদের স্থানান্তর করার জন্য ফ্রান্সের ‘একতরফা সিদ্ধান্তের’ সমালোচনা করেন তিনি।

দুই বছর আগে সামরিক শক্তির মাধ্যমে গোইতা এবং তার সহযোগীরা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত যে প্রেসিডেন্টকে উৎখাত করেছিরেন, মালির প্রধানমন্ত্রী তার ৩০ মিনিটের বক্তৃতায় তাকে বারবার ‘ফরাসি জান্তা’ উল্লেখ করেন। ‘ঔপনিবেশিক অতীত থেকে এগিয়ে যান এবং আফ্রিকার শহর ও গ্রামাঞ্চল থেকে যে রাগ, হতাশা, প্রত্যাখ্যান আসছে তা শুনুন এবং বুঝুন যে এই আন্দোলন অমার্জনীয়,’ গত মাসে প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত হয়ো মাইগা বলেছিলেন। ‘আপনাদের ভীতি প্রদর্শন এবং ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড শুধুমাত্র তাদের মর্যাদা রক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট আফ্রিকানদের পদমর্যাদা বৃদ্ধি করেছে,’ তিনি যোগ করেছেন।

মালির প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের একটি ভয়াবহ মূল্যায়নও দিয়েছেন, যা মিনুসমা নামে পরিচিত। তিনি খোলাখুলিভাবে ‘মালি ও রাশিয়ার মধ্যে অনুকরণীয় এবং ফলপ্রসূ সহযোগিতা’ এবং ওয়াগনার গ্রুপের ভাড়াটেদের প্রভাবের প্রশংসা করেন। ‘আমাদের অবশ্যই স্বীকার করতে হবে যে, এটির প্রতিষ্ঠার প্রায় ১০ বছর পরে, যে উদ্দেশ্যগুলির জন্য মিনুসমা মালিতে মোতায়েন করা হয়েছিল তা অর্জন করা হয়নি,’ মাইগা বলেছিলেন, ‘এটি নিরাপত্তা পরিষদের অনেক প্রস্তাব সত্ত্বেও।’

ফ্রান্স ২০১৩ সালে মালিতে সামরিক হস্তক্ষেপ করেছিল, সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলিকে উত্তর মালিয়ান শহরগুলির নিয়ন্ত্রণ থেকে সরিয়ে দেয়ার প্রচেষ্টার নেতৃত্ব দেয় যা তারা দখল করেছিল। গত নয় বছরে, প্যারিস সশস্ত্র গোষ্ঠীগুলির দ্বারা বারবার আক্রমণের মধ্যে দেশকে স্থিতিশীল করার জন্য তার উপস্থিতি অব্যাহত রেখেছিল। আগস্টে ফরাসি সেনা প্রস্থান নতুন উদ্বেগ উত্থাপন করেছে যে, সেই যোদ্ধারা এখন আবার মালিয়ান সামরিক বাহিনীর বিুরদ্ধে যুদ্ধ শুরু করতে পারে।

ওয়াগনার গ্রুপ, ভাড়ায় জন্য যোদ্ধা সরবরাহকারী একটি রাশিয়ান নেটওয়ার্ক বিতির্কত হওয়া সত্ত্বেও মালিতে কাজ করার অনুমতি পেয়েছে। মালির প্রধানমন্ত্রী ৪৬ জন আটক আইভোরিয়ান সৈন্যের উপর মালি এবং আইভরি কোস্টের মধ্যে স্থবিরতার বিষয়ে সাম্প্রতিক মন্তব্যের জন্য জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসেরও সমালোচনা করেছেন।

‘যেহেতু বন্ধুত্ব আন্তরিকতার উপর ভিত্তি করে, আমি আপনার সাম্প্রতিক মিডিয়া উপস্থিতির সাথে আমার গভীর অসম্মতি প্রকাশ করতে চাই, যেখানে আপনি একটি অবস্থান নিয়েছেন ৪৬ আইভোরিয়ান ভাড়াটেদের ক্ষেত্রে নিজেকে প্রকাশ করেছেন,’ তিনি গুতেরেসকে লক্ষ্য করে মন্তব্যে বলেছিলেন। এ বিষয়ে মন্তব্য করা ‘জাতিসংঘের মহাসচিবের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে না’, তিনি যোগ করেন। সূত্র : আল-জাজিরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন