শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভাসানচরে খাদ্য ও কক্সবাজারে কৃষি অবকাঠামোয় ৪৩ লাখ ডলারের সহায়তা দিচ্ছে জাপান

ডবিøউএফপির সাথে চুক্তি স্বাক্ষর

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৬ এএম

খাদ্য ও পুষ্টি সহায়তা প্রদান এবং কৃষি অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য জাপান সরকার এবং ডবিøউএফপি গতকাল স্বাক্ষরিত একটি নোট বিনিময় করেছে। ভাসানচরে বসবাসরত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ই-ভাউচার সিস্টেমের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য সহায়তা এবং কক্সবাজারের বাংলাদেশিদের জন্য সেচ ব্যবস্থা, খাল খনন এবং নতুন রাস্তার মতো কৃষি অবকাঠামোর উন্নয়নে ৪৩ লাখ মার্কিন ডলারের অবদান ব্যবহার করা হবে। ঢাকাস্থ জাপান দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়েছে।
ডবিøউএফপির আবাসিক প্রতিনিধি এবং বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ডম স্কালপেলি বলেছেন, ‘জাপান ডবিøউএফপি’র একটি অপরিহার্য অংশীদার এবং আমরা বাংলাদেশের উন্নয়নে এবং দেশে আমাদের মানবিক প্রচেষ্টার জন্য তাদের দৃঢ় সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞ। এ নতুন অবদান আমাদের ভাসান চরের দ্বীপে জীবনরক্ষাকারী খাদ্য সহায়তা প্রদান চালিয়ে যেতে সাহায্য করবে এবং কক্সবাজারের বাংলাদেশী সম্প্রদায়কে ব্যাপকভাবে উপকৃত করবে’।
‘জানুয়ারি মাসে ২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের জরুরি অনুদানের পর, জাপান ভাসান চরে অতিরিক্ত সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এই দৃঢ় আশার সাথে যে, এ অবদান ভাসান চরে রোহিঙ্গা জনসংখ্যার জরুরি খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা পূরণ করবে এবং সেইসাথে কক্সবাজারের কৃষি পরিবেশ উন্নয়ন করবে।
বাংলাদেশে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি বলেন, আমার সাম্প্রতিক কক্সবাজার সফরের সময় আমি ডবিøউএফপি এবং এর অংশীদারদের নিবেদিত এবং পেশাদার কাজ দেখেছি। কক্সবাজার ক্যাম্পে ই-ভাউচারের মাধ্যমে খাদ্য সহায়তা সত্যিই উদ্ভাবনী এবং এ অর্থায়নে ভাসানচরে উদ্ভাবনী পদ্ধতি সম্প্রসারিত করা আমাদের অত্যন্ত আনন্দের বিষয়। যেহেতু রোহিঙ্গা সঙ্কট ষষ্ঠ বছরে পদার্পণ করেছে, মিয়ানমারে দ্রæত প্রত্যাবাসনের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে শরণার্থীদের উন্নত ও মর্যাদাপূর্ণ জীবনের জন্য অর্থায়ন অব্যাহত রাখা অপরিহার্য। এ সঙ্কটের টেকসই সমাধান একটি অবাধ ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিকের রূপকল্প বাস্তবায়নের জন্য সহায়ক হবে, জাপান রোহিঙ্গাদের প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশের সরকার ও জনগণের পাশে দাঁড়াবে’।
২০১৭ সালের আগস্টে জরুরি অবস্থার শুরু থেকে জাপান বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রতিক্রিয়ার অবিচল সমর্থক, এ নতুন অর্থায়নের মাধ্যমে ইউএনএইচসিআর এবং বাংলাদেশে জাতিসংঘের অন্যান্য সংস্থা এবং এনজিওগুলিকে ১৭ কোটিরও বেশি অবদান রেখেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন