শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

অভ্যন্তরীণ

ল²ীপুরে চিকিৎসক-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে প্রসূতিকে মারধরের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার, ল²ীপুর থেকে | প্রকাশের সময় : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০১ এএম

ল²ীপুরে মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রের (মাতৃমঙ্গল) চিকিৎসক রুবিনা আক্তারসহ নার্স-কর্মচারীর বিরুদ্ধে পপি বেগম নামে এক প্রসূতিকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।
এ ঘটনায় গত সোমবার দুপুরে চিকিৎসক রুবিনার নাম উল্লেখ ও ৫ জনের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দেন। এতে তার গর্ভের সন্তানকে জারজ বলার অভিযোগ করা হয় ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। অভিযোগ পেয়ে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান। পপি সদর উপজেলার পালের হাট এলাকার ফল ব্যবসায়ী ইসমাইল হোসেনের স্ত্রী।
অভিযোগ সূত্র জানায়, ৭ মাসের গর্ববতি গত সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গর্ভবতির টিকা দেওয়ার জন্য মাতৃমঙ্গলে আসেন। পরে কাউন্টার থেকে টিকার কার্ড নিয়ে চিকিৎসক রুবিনার রুমে যান তিনি। এসময় কার্ডে বয়স ভুল (২৭ বছর) উল্লেখ করে পেটে জারজ সন্তান রয়েছে বলে তার সঙ্গে অশ্লিল ভাষা ব্যবহার করে চিকিৎসক। এতে প্রতিবাদ করায় চিকৎসক রুবিনা, নার্স শামিমা নাসরিন ও পিয়ন আলম তাকে কিল-ঘুষি মারে। এতে তার গর্ভের সন্তানের বড়ধরণের ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।
পপি বেগম বলেন, চিকিৎসক রুবিনা আমার গর্ভের সন্তানকে জারজ বলেছে। এতে প্রতিবাদ করায় নার্স-কর্মচারীসহ তারা আমাকে মারধর করে। আমার গর্ভের সন্তান ঝুঁকিতে রয়েছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।
হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. নুরুজ্জামান ও নার্স শামিমা নাসরিন জানায়, প্রসূতি গর্ভবতী হওয়ার তারিখ ভুল ছিল।
এটি বলায় তিনি চিকিৎসক রুবিনার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে জুতা হাতে নিয়ে মারার জন্য তেড়ে যান। এসময় নার্স শামিমা ও পিয়ন আলম চিকৎসককে রক্ষা করেন। পরে প্রসূতিকে বের হয়ে যেতে বলেন। তাকে কেউ মারেনি। তিনি মিথ্যা অভিযোগ দিয়েছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন