বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

রাশিয়া সাথে যুক্ত হওয়ার পক্ষে বিপুল জনসমর্থন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

বিঘ্ন না ঘটাতে জেলেনস্কিকে হুঁশিয়ারি মস্কোর
নতুন অঞ্চলগুলোকে অধিভুক্ত করার বিষয়ে ৪ অক্টোবর সিদ্ধান্ত নেবে রাশিয়া
জাপোরোজিয়া বাস্তবে ইউক্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে : অঞ্চলের প্রধান
নর্ড স্ট্রিম নিয়ে ইইউ এমপির মন্তব্য সন্ত্রাসী হামলায় উস্কানির শামিল
ইনকিলাব ডেস্ক
রুশ বাহিনী-নিয়ন্ত্রিত ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলের গণভোটে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পক্ষে ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়া গেছে। গণভোট থেকে প্রাপ্ত ফলাফলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে, ব্যাপক সংখ্যক মানুষ রাশিয়ায় যোগ দেবার পক্ষে মত দিয়েছে। যুদ্ধ-বিধ্বস্ত এসব অঞ্চলে প্রায় ৪০ লাখ মানুষকে ভোট দেবার আহবান জানানো হয়েছিল। এ চারটি অঞ্চল ইউক্রেনের মোট ভ‚মির প্রায় ১৫ শতাংশ। সেগুলো হলো পূর্বাঞ্চলীয় ডোনেৎস্ক ও লুহানস্ক এবং দক্ষিণাঞ্চলের জাপোরোজিয়া ও খেরসন।

লুহানস্ক কর্তৃপক্ষ বলেছে, ৯৮ দশমিক ৪ শতাংশ ভোটার রাশিয়ায় যুক্ত হওয়ার পক্ষে ভোট দিয়েছেন। জাপোরোজিয়া রাশিয়ার নিয়োগ করা প্রশাসন জানিয়েছে, রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পক্ষে ৯৩ দশমিক ১ শতাংশ ভোটার। খেরসনে ভোট গ্রহণ কমিটির প্রধান বলেছেন, রাশিয়ায় যুক্ত হওয়ার পক্ষে ভোট পড়েছে প্রায় ৮৭ শতাংশ। স্বঘোষিত ডোনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের প্রধান ডেনিস পুশিলিন বলেছেন, ওই অঞ্চলের ৯৯ দশমিক ২ শতাংশ ভোটারই রাশিয়ায় যোগ দেয়ার পক্ষে ভোট দিয়েছেন। চারটি অঞ্চলের সব ভোট গণনা করা হয়েছে। এসব অঞ্চলের বাস্তুচ্যুত লোকজন রাশিয়ায় ভোট দেওয়ার সুযোগ পেয়েছেন। রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আরআইএ প্রাথমিক গণনার বরাত দিয়ে জানিয়েছে, ৯৬ শতাংশের বেশি ভোটার মস্কোর শাসনাধীনে যাওয়ার পক্ষে রায় দিয়েছেন।

ধারণা করা হচ্ছে, প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন শুক্রবার রাশিয়ার পার্লামেন্টে-এর এক যৌথ অধিবেশনে এ চারটি অঞ্চলকে রাশিয়ার অংশ করে নেবার ঘোষণা দেবেন। দুই হাজার চৌদ্দ সালের মার্চ মাসে একই ধরণের একটি গণভোটের আয়োজন মাধ্যমে পুতিন ক্রিমিয়াকে রাশিয়ার অংশ করে নেয়া হয়েছিল। পাঁচ দিনের গণভোটের পর এ ফলাফলের কথা জানানো হয়। ইউক্রেন ও দেশটির মিত্র পশ্চিমা দেশগুলো এই গণভোটকে প্রহসন আখ্যা দিয়েছে।

গত সপ্তাহে পুতিন ঘোষণা দিয়ে রেখেছেন, রাশিয়ার ভ‚খÐগত অখÐতা রক্ষায় দেশটির কাছে থাকা সব ধরনের উপায় প্রয়োগ করবেন তিনি। এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে কার্যত তিনি পারমাণবিক বোমা হামলার হুমকি দিয়ে রেখেছেন। পুতিনের মিত্র সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ গণভোটের ফলাফলে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। বর্তমানে রাশিয়ার নিরাপত্তা পরিষদের ডেপুটি চেয়ারম্যানের পদে থাকা মেদভেদেভ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে পোস্ট করা এক বার্তায় বলেছেন, ‘গণভোট শেষ। ফলাফল সুস্পষ্ট। নিজ আবাস রাশিয়ায় স্বাগত!’
এদিকে এসব ভ‚খÐকে যুক্ত করার বিষয়ে রাশিয়ার প্রতি বারবার সতর্কতা উচ্চারণ করে ইউক্রেন বলেছে, এ ধরনের পদক্ষেপ শান্তি আলোচনার যেকোনো সুযোগ ধ্বংস করবে। এই গণভোট আয়োজনে যেসব ইউক্রেনীয় রাশিয়াকে সহযোগিতা করেছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ আনা হবে। ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা ইউরোপীয় ইউনিয়নকে আহবান জানিয়েছে যাতে রাশিয়ার উপর আরো কঠোর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। গণভোট নিয়ে একজন সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রনালের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন বলেন, সব দেশের সার্বভৌমত্ব এবং অখÐতাকে অবশ্যই সম্মান করতে হবে। এই গণভোটকে সমর্থন জানিয়ে প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেছেন, এসব অঞ্চলে বসবাসরত জাতিগত রাশিয়ান এবং রাশিয়ান ভাষাভাষী জনগণের উপর দমন-পীড়ন বন্ধ করার জন্য এই আয়োজন করা হয়েছে।

বিঘœ না ঘটাতে জেলেনস্কিকে হুঁশিয়ারি মস্কোর : ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির জেলেনস্কি মস্কোর ঘোষিত আংশিক সামরিক সমাবেশ ব্যাহত করতে পারবেন না, জাতিসংঘে রাশিয়ার স্থায়ী প্রতিনিধি ভ্যাসিলি নেবেনজিয়া মঙ্গলবার জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে বলেছেন। ‘প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি রাশিয়ায় সম্প্রতি ঘোষিত আংশিক সামরিক সমাবেশ ব্যাহত করার প্রয়াসে রাশিয়ান ভাষায় বেশ কয়েকটি ভিডিও বার্তা রেকর্ড করতে দ্বিধা করেননি। আজ, জেলেনস্কি টিভি পর্দা থেকে দাবি করেছেন যে, বেশিরভাগ অ-রাশিয়ান নাগরিকদের ডাকা হচ্ছে, যতটা সম্ভব রাশিয়ান অঞ্চলে আদিবাসীদের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষ নেয়া হচ্ছে। কিন্তু এটি রাশিয়ার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়,’ দূত জোর দিয়ে বলেছিলেন।

উল্রেখ্য, গত ২১ সেপ্টেম্বর, রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন দেশব্যাপী আংশিক সামরিক সমাবেশের একটি ডিক্রিতে স্বাক্ষর করেন। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেছেন, ৩ লাখ সংরক্ষিত বাহিনীকে ডাকা হবে এবং বিশেষ অপারেশন জোনে মোতায়েন করার আগে তাদের প্রয়োজনীয় সব প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা প্রধান বলেছেন, বিশেষ সামরিক অভিযানের সময় মুক্ত করা এলাকাগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করাই হবে এই অভিযানের লক্ষ্য।

নতুন ৪ অঞ্চলকে অধিভুক্ত করার বিষয়ে ৪ অক্টোবর সিদ্ধান্ত নেবে রাশিয়া : রাশিয়ান ফেডারেশন কাউন্সিলের স্পিকার ভ্যালেন্টিনা মাতভিয়েনকো মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেছেন, ফেডারেশন কাউন্সিল ৪ অক্টোবর তার পরবর্তী নির্ধারিত বৈঠকে রাশিয়ায় যোগদানের ডিপিআর, এলপিআর, খেরসন এবং জাপোরোজিয়া অঞ্চলের বিষয়টি বিবেচনা করতে পারে। ‘আমরা ডিপিআর, এলপিআর, জাপোরোজিয়া এবং খেরসন অঞ্চলের বাসিন্দাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান করব। যদি তারা রাশিয়ান ফেডারেশনে যোগদান করার সিদ্ধান্ত নেয়, নিঃসন্দেহে, আমরা এটিকে সমর্থন করব। এখন পর্যন্ত, আমি এতে ভিন্নমতের প্রয়োজন দেখছি না। আমি মনে করি যে, আগামী ৪ অক্টোবরের জরুরী অধিবেশনের প্রথম দিকে আমরা (এ সমস্যাটি) বিবেচনা করার জন্য প্রস্তুত থাকব যদি সবকিছু নিশ্চিত হয় এবং সবকিছু ঠিকঠাক হয়,’ মাতভিয়েনকো বলেছেন।

‘আমার মতে, বর্তমানে এই অঞ্চলের বাসিন্দাদের দ্বারা এটি একটি কঠিন জিতে নেয়া সিদ্ধান্ত। আমরা আমাদের নিজেদের পিছু ছাড়ি না,’ তিনি যোগ করেন। মাতভিয়েনকো পুনর্ব্যক্ত করেছেন যে ডনবাস, খেরসন এবং জাপোরোজিয়া অঞ্চলে গণভোট শেষ হয়েছে। ‘আমি মনে করি যে আগামীকাল বা পরশু, অদূর ভবিষ্যতে ফলাফল পাওয়া যাবে,’ তিনি উপসংহারে বলেছিলেন। রাশিয়ায় যোগদানের বিষয়ে গণভোট শুরু হয় ডোনেৎস্ক এবং লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকস এবং খেরসন ও জাপোরোজিয়ে অঞ্চলের মুক্ত অঞ্চলে ২৩ থেকে ২৭ সেপ্টেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। গণভোট থেকে প্রাপ্ত আংশিক ফলাফলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে যে ব্যাপক সংখ্যক মানুষ রাশিয়ায় যোগ দেবার পক্ষে মত দিয়েছে।

জাপোরোজিয়া বাস্তবে ইউক্রেন থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে : জাপোরোজিয়া অঞ্চল, যেখানে বেশিরভাগ বাসিন্দারা রাশিয়ায় যোগদানের পক্ষে ভোট দিয়েছেন, বাস্তবে ইউক্রেন থেকে আলাদা হয়ে গেছে এবং রাশিয়ার একটি অঞ্চল হওয়ার জন্য একটি অনুরোধ দায়ের করেছে। মঙ্গলবার জাপোরোজিয়া অঞ্চলের সামরিক-বেসামরিক প্রশাসনের প্রধান ইয়েভজেনি বালিটস্কি বলেছেন। তিনি বলেন, ‘আজকের গণভোট ইউক্রেন থেকে জাপোরোজিয়া অঞ্চলের বিচ্ছিন্নতা সম্পন্ন করেছে। আমরা এখন রাশিয়ান সরকারের সিদ্ধান্তের জন্য অপেক্ষা করছি, কারণ তারা এখনও আমাদেরকে রাশিয়ায় গ্রহণ করেনি।’ ‘আমরা ইতিমধ্যে রাশিয়ার যোগদানের জন্য আনুষ্ঠানিক অনুরোধ দায়ের করেছি,’ বালিটস্কি সাংবাদিকদের বলেছেন।

নর্ড স্ট্রিম নিয়ে ইইউ এমপির মন্তব্য সন্ত্রাসী হামলায় উস্কানির শামিল : রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সরকারী মুখপাত্র, মারিয়া জাখারোভা বলেছেন, পোল্যান্ডের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী, যিনি রাশিয়ার নর্ড স্ট্রিম ২ পাইপলাইনের ক্ষতির জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন, তার এ বক্তব্যকে সন্ত্রাসী হামলা হওয়ার বিষয়ে একটি সরকারী বিবৃতি হিসাবে দেখা যেতে পারে। ‘সাবেক পোলিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী, এখন ইউরোপীয় সংসদ সদস্য রাদেক সিকোরস্কি রাশিয়ান গ্যাস পাইপলাইনে তিনটি ফুটো আবিষ্কৃত হওয়ার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন (নর্ড স্ট্রিম ২)। এটি কি একটি সন্ত্রাসী হামলা বলে একটি আনুষ্ঠানিক বিবৃতি?’ জাখারোভা মঙ্গলবার টেলিগ্রামে লিখেছেন।

এর আগে, নর্ড স্ট্রিম এবং নর্ড স্ট্রিম-২ পাইপলাইনে একে অপরের কয়েক ঘন্টার মধ্যে তিনটি ফুটো আবিষ্কৃত হয়েছিল। তাদের মধ্যে প্রথমটি বোর্নহোমের ডেনিশ দ্বীপের কাছে নর্ড স্ট্রিম ২-এ সনাক্ত করা হয়েছিল। পরে, নর্ড স্ট্রীমে-১ এ দুটি ফুটো সনাক্ত করা হয়েছিল। ড্যানিশ এনার্জি এজেন্সি জানিয়েছে, সমুদ্রে বিপুল পরিমাণ গ্যাস লিক হয়েছে। বিমান ও জাহাজকে ঘটনাস্থল থেকে অন্তত পাঁচ নটিক্যাল মাইল দূরে রাখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সুইডিশ সিসমোলজিস্টরা পরে বলেছে যে, তারা সোমবার পাইপলাইন রুটে দুটি বিস্ফোরণ নথিভুক্ত করেছে। সূত্র : তাস, বিবিসি নিউজ, বøুমবার্গ।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন