বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

১০ বিভাগীয় শহরে সমাবেশের ঘোষণা

তত্ত¡াবধায়ক সরকারের কাছে পদত্যাগ করবে বর্তমান সরকার : মির্জা ফখরুল

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

দেড় মাসে ২৫ হাজার বিএনপি নেতাকর্মীর নামে মামলা
“আমরা কার কাছে পদত্যাগ করবো” আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, উনারা (সরকার) নিরপেক্ষ যে তত্ত¡াবধায়ক সরকার গঠন করা হবে তাদের কাছে পদত্যাগ করবেন। সেজন্য সংবিধান সংশোধনের উদ্যোগ তাদেরকেই নিতে হবে। কারণ ক্রাইসিসটা তারা তৈরি করেছে এবং দায়িত্বটাও তাদের। জনগণের দাবি যেহেতু এটা, জনগণের এই দাবি মেনে নিয়ে তাদেরকে অবশ্যই সেই উদ্যোগ গ্রহন করতে হবে। যেমন আমরা করেছিলাম ২০০৬ সালে তত্ত¡াবধায়ক সরকারের বিধান পার্লামেন্টে পাস করে সংশোধন করেছিলাম। সেই একইভাবে করা যেতে পারে। এটা আমি আমরা কথা বলছি, এটা আমার পার্টির সিদ্ধান্ত নয়। আমরা এখনো এই ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত দেইনি। কিন্তু এটাই হচ্ছে পদত্যাগের একমাত্র পথ। গতকাল বুধবার গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সময় হলেই নির্দলীয় সরকারের ফর্মুলা দেয়া হবে জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, যুগপৎ আন্দোলনের রুপরেখা খুব শিগগিরই আসবে। খুব তাড়াতাড়ি ঘোষণা করা হবে। এছাড়া সময় হলেই নির্দলীয় সরকারের ফর্মুলা দেয়া হবে।
বিগত দেড় মাসে বিএনপির ২৫ হাজার নেতাকর্মীর নামে মামলা দেয়া হয়েছে অভিযোগ করে দলটির মহাসচিব বলেন, গত ১০ আগস্ট থেকে এই পর্যন্ত নুরে আলম, আব্দুর রহিম, শাওন, শহীদুল ইসলাম শাওন ও আব্দুল আলিম ৫জন নিহত হয়েছে। তার মধ্যে ফ্যাসিস্ট সরকারের পুলিশ ৪ জনকে গুলি করে এবং ১ জনকে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা হত্যা করেছে। ২ হাজার ৭৬৮ জনের অধিক আহত হয়েছে, ২৯৪ জন কর্মী গ্রেফতার হয়েছে। প্রায় ৭৫টি মিথ্যা মামলায় এজহারভুক্ত ৫ হাজার ৪৭০ জনসহ ২৫ হাজার নেতা-কর্মীকে আসামী করে মামলা দেয়া হয়েছে। আমরা এহেন মিথ্যা মামলা দায়েরের ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। জনগণের ন্যায় সঙ্গত দাবিতে চলমান আন্দোলন দমন করতেই এই অনির্বাচিত সরকার হত্যা,পুলিশি নির্যাতন, মিথ্যা মামলার আশ্রয় নিচ্ছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী ডিজিটাল জ্ঞানে পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশে ইন্টারনেট প্রবৃদ্ধি অন্যতম প্রতিবন্ধকতা উল্লেখ করে শেখ হাসিনার পুত্র ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ব্যর্থতার একটা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি প্রদান করা হয়েছে বলে স্থায়ী কমিটির সভা মনে করে। ডিজটাল বাংলাদেশ তৈরি করার যে দাবি তার অসারতা প্রমাণ হয়েছে।

সামাজিক মাধ্যমে ব্যবহারে প্রাথমিক শিক্ষকদের করণীয় বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের সার্কুলার জারির নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, এটা উদ্বেগজনক। এই সার্কুলারে এটাই প্রমাণিত হয় যে, এই সরকার যে কর্তৃত্ববাদী সরকার, আমরা যে বলছি এই সরকার বাক স্বাধীনতায় সর্বক্ষেত্রে হস্তক্ষেপ করছে সেটা আরো প্রমাণিত হয়েছে। এই সার্কুলার জারির মধ্য দিয়ে এখন চলমান আন্দোলনকে দমন করার ক্ষেত্রে আরেকটি নজির স্থাপন করলো সরকার। পঞ্চগড়ের করতোয়া নদীদের নৌকাডুবিতে শতাধিক মানুষের প্রাণহানিতে গভীর শোক প্রকাশ নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধার ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোকে পর্যাপ্ত ক্ষতিপুরণ প্রদানের দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব।

বাংলাদেশের গুম, বিনা বিচারে হত্যাকান্ড, সরকারি দমন নীতি এবং নির্বাচন সম্পর্কে নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেয়া বক্তব্য, গণখাতে ক্রয় আইন লঙ্ঘন করে ক্রয় প্রক্রিয়ায় তৃতীয় পক্ষকে যুক্ত করে বাজার মূল্যের চেয়ে বেশি দামে রাশিয়া থেকে গম আমদানি এবং তিন গুন বাড়তি দামে রাশিয়ান কোম্পানি গ্যাজপ্রমের সঙ্গে জনস্বার্থ পরিপন্থি ভোলায় তিনটি গ্যাস কুপ খননের চুক্তির সম্পাদনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে স্থায়ী কমিটি বলে জানান মহাসচিব।

মহাসচিব জানান, স্থায়ী কমিটির বৈঠকে নারী ফুটবলাদের সাফ চ্যাম্পিয়ানশীপ অর্জন করায় তাদের ভুয়সী প্রশংসা করে তাদের অভিনন্দন জানানো হয়েছে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অপসারণের দাবি করে বিএনপির অন্যতম এই শীর্ষ নেতা বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের নবনির্বাচিত কমিটির নেতৃবৃন্দ অনুমতি নিয়ে ভিসির সাথে সাক্ষাত করতে গেলে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করেছে। আমি এই হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার এবং যথাযথ আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি জানাচ্ছি। সেই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসি যিনি ছাত্রদের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন তাকে অপসারণের দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলন শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের হামলায় গুরুতর আহত ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের কাকরাইলে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে দেখতে যান মির্জা ফখরুল এবং চিকিৎসকদের কাছ থেকে তাদের শারীরিক অবস্থার খোঁজ-খবর নেন।

এসময়ে বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি প্রফেসর হারুন আল রশিদ, মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান উপস্থিত ছিলেন। এরপর বিএনপি মহাসচিব ধানমন্ডিতে পপুলাল ডায়াগনস্টিক সেন্টার এন্ড হাসপাতালে মুন্সিগঞ্জের সমাবেশে পুলিশি হামলায় আহত জাহাঙ্গীরকে দেখতে যান।

১০ বিভাগীয় শহরে সমাবেশ: সা¤প্রতিক বিক্ষোভকে সফল বিবেচনা করে নিত্যপণ্য ও জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি এবং নেতা-কর্মীদের হত্যার প্রতিবাদে ৮ অক্টোবর থেকে দেশের ১০টি বিভাগীয় সদরে সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি। সংবাদ সম্মেলনে দলের মহাসচিব জানান, ৮ অক্টোবর চট্টগ্রামে, ১৫ অক্টোবর ময়মনসিংহে, ২২ অক্টোবর খুলনায়, ২৯ অক্টোবর রংপুরে, ৫ নভেম্বর বরিশালে, ১২ নভেম্বর ফরিদপুরে, ১৯ নভেম্বর সিলেটে, ২৬ নভেম্বর কুমিল্লায়, ৩ ডিসেম্বর রাজশাহীতে এবং ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।###

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন