বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অন্ধকার থেকে আলোতে এসেছে দেশ

বর্ণিল আয়োজনে ৭৬তম জন্মদিন উদযাপন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

শেখ হাসিনা দেশে ফিরে গণতন্ত্রকে শৃঙ্খলমুক্ত করেছেন। তিনি দেশে এসেছিলেন বলে এসেছেন বলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে। তিনি ফিরেছেন বলে দেশে উন্নয়নে অর্জনের ধারা সূচিত হয়েছে। তিনি হলেন সততার নেত্রী ও যোগ্য নেত্রী, যার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অন্ধকার থেকে আলোর দিকে এসেছে। আজকে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ একটি রোল মডেল। এটি সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য।উন্নয়ন ও আদর্শের নেত্রী হলেন শেখ হাসিনাশেখ হাসিনার কারণে আমরা বিশ্ব দরবারে সম্মানিত জাতি হিসেবে মর্যাদা পেয়েছি। একজন শেখ হাসিনার কারণে আমরা আমাদের অধিকার ফিরে পেয়েছি।

গতকাল বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ নেতারা শেখ হাসিনার জীবন-কর্ম সম্পর্কে এমন বক্তব্য তুলে ধরেন। নানা কর্মসূচি ও বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন পালিত উদযাপিত হয়েছে। জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দেয়ায় এবারের জন্মদিনে নেত্রীকে পাশে পায়নি নেতাকর্মীর। তার অনুপস্থিতিতেই কেক কাটা, আনন্দ শোভাযাত্রা, অসহায়দের মাঝে শাড়ি, লঙ্গি, হুইল চেয়ার বিতরণ, বৃক্ষরোপন, দোয়া ও আলোচনা সভার মধ্য দিয়ে পালিত হয় দিনটি। এসব কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ূ কামনা করা হয়। কেন্দ্রীয়ভাবে বাদ জোহর জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ছাড়াও আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহার (মেরুল বাড্ডা) ও খ্রিষ্টান অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (সিএবি) মিরপুর ব্যাপ্টিস চার্চ এবং ঢাকেশ্বরী মন্দিরে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা, মহানগর, উপজেলা, পৌর ও ইউনিয়ন পর্যায়েও একই কর্মসূচি পালিত হয়। এ ছাড়াও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সরকারি- বেসরকারি বিভিন্ন দফতর ও প্রতিষ্ঠান প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন করে।

জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরসহ দলটির সিনিয়র নেতারা আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন। এ সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতির পিতাকে হারিয়ে আমরা অমানিসার অন্ধকারে ছিলাম। এর ৬ বছর পর শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়ে ফিরে এসেছিলেন রক্তভেজা দুঃখিনী বাংলায়। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা দেশে ফিরে গণতন্ত্রকে শৃঙ্খলমুক্ত করেছেন। তিনি দেশে এসেছিলেন বলে এসেছেন বলে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে। তিনি ফিরেছেন বলে দেশে উন্নয়নে অর্জনের ধারা সূচিত হয়েছে।

সভাপতির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেন, স্বজন হারানোর বেদনা চাপা দিয়ে শেখ হাসিনা ঝড়, বৃষ্টি আধার রাতে ফিরে এসেছিলেন। তার সুদক্ষ পরিচালনায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়ন করছেন। দলের নেতা-কর্মীদেরকে জনগণের মাঝে সুকর্ম করার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা যদি সুকর্ম করি তাহলে একাট্টা হয়ে তার পেছনে দাঁড়াবে।

সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, শেখ হাসিনা শুধু আওয়ামী লীগে নয় ১৭ কোটি মানুষের শক্তি এবং সম্পদ। তিনি দেশকে অন্ধকার থেকে উদ্ধার করতে দেশে ফিরে এসেছিলেন। বাংলাদেশকে পৃথিবীর বুকে উন্নত, সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠার ভিত্তি স্থাপন করেছেন। দেশে প্রতিটি ক্ষেত্রে অভ‚তপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে। যা সারা বিশ্বে নন্দিত হয়েছে। সারা পৃথিবীতে তিনি মানবতার মা হিসেবে প্রশংসিত।

সভাপতিমন্ডলীর আরেক সদস্য অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, বাংলাদেশের বিশ্ব জয়ের স্বপ্ন সারথীর নাম শেখ হাসিনা। পঁচাত্তর পরবর্তী সময়ে দেশের সবচেয়ে সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা। মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনের জন্য অসীম সাহসী নিজের জীবনের সবটুকু সময় দিয়েছেন। তার সুদৃঢ় নেতৃত্বে এগিয়ে যা”েছ বাংলাদেশ।

সভাপতিমন্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশ আবার পাকিস্তানীদের হাতে চলে গিয়েছিলো। বাংলাদেশকে পাকিস্তানের হাতে তুলে দেয়া হয়েছিল। সেই সময়ে তিমির হননের নেত্রী শেখ হাসিনা অনেক কষ্টের সাগর পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে এসেছিলেন। দেশে ফিরে বাঙালিকে গণতন্ত্র ফিরিয়ে দিয়েছেন। বাঙালির মুক্তির সনদ নিয়ে এখনো তিনি সামনের দিকে ছুটে যা”েছন। বাংলাদেশকে অভাবনীয় উন্নয়ন উপহার দিয়েছেন।

দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, শেখ হাসিনা মানবতার নাম, আন্দোলন-সংগ্রামের মূর্ত প্রতীকের নাম। অজেয় পথচলার অকুতোভয় বীর সৈনিকের নাম। তিনি বলেন, ১৯৮১ সালে আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি সকল বাধা উপেক্ষা করে দেশে ফিরে আসেন।
অন্য এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, আজকে বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ একটি রোল মডেল। এটি সম্ভব হয়েছে শেখ হাসিনার জন্য। আমাদের উন্নয়ন ও আদর্শের নেত্রী হলেন শেখ হাসিনা। তিনি হলেন সততার নেত্রী ও যোগ্য নেত্রী, যার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অন্ধকার থেকে আলোর দিকে এসেছে। শেখ হাসিনার কারণে আমরা বিশ্ব দরবারে সম্মানিত জাতি হিসেবে মর্যাদা পেয়েছি। একজন শেখ হাসিনার কারণে আমরা আমাদের অধিকার ফিরে পেয়েছি। তিনি আমাদের শিখিয়েছেন কিভাবে মানুষকে ভালোবাসতে হয়। আজ তার নেতৃত্বে আমরা উচ্চ শিক্ষায় এগিয়ে যাচ্ছি। তিনি গরিব শিক্ষার্থীদের জন্য উপ-বৃত্তির ব্যবস্থা করেছেন। জানুয়ারির ১ তারিখে সকল প্রতিষ্ঠানে বই পৌঁছে দিচ্ছেন। তার কারণে দেশে ঝরে যাওয়া শিক্ষার্থীর সংখ্যা শূন্যের কোটায় এসেছে।

বিশ্ব জলবায়ু নেত্রী শেখ হাসিনা : জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পক্ষে জোরালো ভ‚মিকা পালন করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব জলবায়ু নেত্রীতে পরিণত হয়েছেন বলে মন্তব্য করেছেন পরিবেশমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন। গতকাল পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর উল্লেখযোগ্য কর্মকাÐ ও বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর সমগ্র বিশ্বে প্রশংসিত হচ্ছে। জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবিলায় তার পরামর্শ এখন বিশ্বের বিভিন্ন সভায় গৃহীত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় বিশ্বে রোল মডেল।

যুবলীগের শাড়ি, লুঙ্গি ও হুইলচেয়ার বিতরণ : উত্তরা ৩ নং সেক্টর ফ্রেন্ডস ক্লাব মাঠে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী যুবলীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা এবং অসহায় দুস্থদের মাঝে শাড়ি, লুঙ্গি ও হুইলচেয়ার বিতরণ করা হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন, যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে সামস পরশ, ঢাকা ১৮ আসনের এমপি হাবিব হাসান, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাঈনুল ইসলাম খান নিখিল, ঢাকা উত্তরের সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল, সাধারণ সমপাদক ইসমাইল হোসেন।

ব্যতিক্রম জন্মদিন উদযাপন করলেন এসএম কামাল: ব্যতিক্রম আয়োজনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উদযাপন করলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। বুধবার সকাল ৮ টায় সিরাজগঞ্জের সদর উপজেলার সয়দাবাদ ইউনিয়নের মুলিবাড়ী আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘরে ঘরে ঘুড়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। এসময় উপকারভোগীদের কাছে শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য,দীর্ঘায় ও মঙ্গল কামনা করেন রাজশাহী বিভাগের এই সাংগঠনিক সম্পাদক। আশ্রয়ণ প্রকল্পের উপকারভোগীরা খাদ্যসামগ্রী পেয়ে আবেগাপ্লæত হয়ে পড়েন। এসময় তারা শেখ হাসিনার জন্য প্রাণ খোলে দু›হাত তোলে দোয়া করেন। পরে আশ্রয়ণ প্রকল্পের সংলগ্ন মাদ্রাসার মাঠে জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয়। মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা কেক কাটেন ও বঙ্গবন্ধুসহ ’৭৫ নিহত শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ূ ও মঙ্গল কামনা করে মোনাজাত করা হয়। পরে সদর উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের উদ্যোগে হতদরিদ্র মহিলাদের মধ্য সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়।

মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড : বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল নির্বাচন প্রস্তুতি কমিটির পক্ষ থেকে বাংলাদেশ মুক্তি যোদ্ধা সংসদ এর আজীবন প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও প্রধান উপদেষ্টা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘয়ায়ূ কামনা করে কোরআন খতম মিলাদ মাহফিল আলোচনা সভা কেক কাটা ও গরীব দুঃখী বা দুস্থ মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক সচিব অফিসার্স ক্লাব এর সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা কে এম মোজাম্মেল হক। বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মুক্তি যোদ্ধা সংসদ কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিল এর সাবেক ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব আওয়ামী লীগ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা সফিকুল বাহার মজুমদার টিপু, আলহাজ্ব শরীফ উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন পাহাড়ী বীর প্রতিক, কমান্ডার মোশারফ হোসেন, কমান্ডার আবুল বাসার, কমান্ডার এ বি সিদ্দিক মোল্লা আমরা মুক্তি যোদ্ধার সন্তান সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম নয়ন প্রমুখ। মোনাজাত করেন মাওলানা ইয়াছিন আরাফাত, কেক কেটে শাহ্ পন্থী শাহ মাজার হেফজো ও এতিম খানার এতিমদের দেয়া হয় এবং দুস্থ মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।
বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট: শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে ৩২ ধানমন্ডি বঙ্গবন্ধু ভবনে আনন্দ সমাবেশ, কেক কেটে জন্মদিন পালন, কলাবাগানে জননেত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পরে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালী ধানমন্ডির বিভিন্ন পথ প্রদক্ষিণ করে। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও জোটের সাধারণ সম্পাদক ও মুখপাত্র অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা অরুন সরকার রানা’র সঞ্চালনায় জোট নেতৃবৃন্দদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জোটের সহ সভাপতি রোকেয়া প্রাচী, চিত্রনায়ক ফেরদৌস, অভিনেত্রী তানভিন সুইটি, চিত্রনায়িকা শাহনুর, চিত্রপরিচালক শাহ আলম কিরন, চিত্র প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু-সহ নাট্য, চলচ্চিত্র ও সাংস্কৃতিক অঙ্গণের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।
বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে কলাবাগানে জননেত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে এক দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিলে জোটের সহ সভাপতি চিত্রনায়িকা রোজিনা, অরুনা বিশ^াস, উর্মিলা কর শ্রাবন্তী, চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, পরিবেশক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গণের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গরা অংশ নেন।

চ্যানেল আই-তে ‘শেখ হাসিনা- এ ট্রæ লিজেন্ড’ : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মবার্ষিকীর দিনে বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেল আই এ স¤প্রচার করা হয় ‘শেখ হাসিনা: এ ট্রæ লিজেন্ড’ প্রামাণ্যচিত্র। গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠান হিসাবে বৈষ্টমী বৈশ্বিক মানের কাজ করে থাকে। বৈষ্টমী পরিবেশনায় প্রামাণ্যচিত্রটি নির্মাণে সহযোগিতা করেছেন কে এইচ এন রিসার্চ টিম (বাংলাদেশ), ডিডি রিসার্চ (ইউরোপভিত্তিক) ও আইডিয়াল থিংকারস অ্যাসোসিয়েশন।

প্রামাণ্যচিত্রের পরিচালক আয়শা এরিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন কিংবদন্তিতুল্য নেতা। তার জন্মদিন ঘিরে এরকম প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ সত্যিই আনন্দের। আমরা চাই প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন ঘিরে জনমনে উচ্ছ¡াস থাকুক। সেই উচ্ছ¡াসের অংশ হিসেবে চ্যানেল আইয়ে এটি স¤প্রচারিত হচ্ছে। কোটি কোটি দর্শক এই প্রামান্যচিত্রটি দেখে আপ্লæত হবে বলে মনে করে আয়শা এরিন।

শেখ হাসিনা ৭৬ তম শুভ জন্মদিন কেক কাটার মধ্য দিয়ে উদযাপন করলেন ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও ৭০ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাজী মোহাম্মদ আতিকুর রহমান আতিক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে বুধবার বাদ আসর ওয়ারী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলুর উদ্যোগে ওয়ারীর বিভিন্ন মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। পরে দলীয় নেতা কর্মী ও এতিম শিশুদের নিয়ে তিনি কেক কাটেন ও মিষ্টি বিতরণ করেন। দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু এবং সুস্থতা কামনা করা হয়। এরআগে সকাল ১০টায় স্থানীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন করা হয়। একইদিন সন্ধ্যায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মালঞ্চ কমিউনিটি সেন্টারে ৭৬ পাউÐ ওজনের কেক কেটে শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন উদযাপন করা হয়েছে। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা-৫ আসনের এমপি কাজী মনিরুল ইসলাম মনু, ঢাকা মহানগর দক্ষিন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সারোয়ার কবির, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এফ এম শরিফুল ইসলাম শরিফ, ঢাকা-৫ নির্বাচনী এলাকার ১৪-দলের প্রধান সমন্বয়ক ও যাত্রাবাড়ি থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনর রশীদ মুন্না, ৪৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আবুল কালাম অনু।

জবিতে জন্মদিন পালন: কেক কেটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আওয়ামী পন্থী শিক্ষকদের সংগঠন নীল দল। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক মিলনায়তনে এক বিশাল আকারের কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান তারা। এরপরেই বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে বাদ যোহর দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করেন তারা। কেক কাটার প্রাক্কালে প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. এ. কে. এম. লুৎফর রহমান, নীল দলের সভাপতি অধ্যাপক ড. জাকির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক ড. নাফিস আহমদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ উপদেষ্টা ও বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলামহ বিভিন্ন বিভাগের সিনিয়র শিক্ষকরা।

৩৫ ধরনের ফলজ-বনজও ঔষধি বৃক্ষরোপণ: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম শুভ জন্মদিনে শিক্ষার্থীদের নিয়ে কেক কেটে ও ঔষধি-ফলজ গাছ রোপণ করেছে ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ। বুধবার সকালে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের দেশ ও বিশ্ববরেণ্য রাষ্ট্রনেতা শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য, দীর্ঘায়ু ও ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক জীবনের সাফল্য কামনা করে এদিনটিকে স্বরণীয় করে রাখেন প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টি বোর্ডের অন্যতম সদস্য ও সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজের সম্মানিত প্রিন্সিপাল মাহবুবুর রহমান মোল্লা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও আশপাশের সড়কের দুই পাশে নিম গাছ,আমরা,কাঠাল, জাম, কাঠবাদাম আমলকী, বিলম্ব, গোলাপ, রজনীগন্ধসহ ৩৫ ধরণের ঔষধি গাছ রোপণ করা হয়।

সারাদেশে দোয়া অনুষ্ঠিত : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে গতকাল বুধবার বাদ যোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।
দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা এহসানুল হক জিলানী। মোনাজাতে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান এম পি, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) ড. মো. মুশফিকুর রহমান, পরিচালকবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারি ও সাধারণ মুসল্লিরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬ তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সকল বিভাগীয়, জেলা, উপজেলা কার্যালয়, ৫০ টি ইসলামিক মিশন, ৭টি ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমি ও মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের গণশিক্ষা কেন্দ্রসমূহে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন