বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ভারতে ৯ মুসলিম সংগঠনকে নিষিদ্ধ ঘোষণা, আরএসএসকেও নিষিদ্ধ করার দাবি

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১১:২৬ এএম | আপডেট : ১১:৫৫ এএম, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ভারতজুড়ে এনআইএ অভিযানের পর মুসলিম ধর্মভিত্তিক সংগঠন ‘পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়া’-কে (পিএফআই) নিষিদ্ধ করেছে মোদি সরকার। সন্ত্রাসবিরোধী আইনে পিএফআই-র পাশাপাশি আরও আটটি সংগঠনের উপরও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এ পদক্ষেপের পরে কেরালার কংগ্রেস ও তাদের জোটসঙ্গী ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ (আইইউএমএল) দাবি তুলল, তাহলে কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠন আরএসএসকেও নিষিদ্ধ করা হোক। একই দাবি তুলতে দেখা গিয়েছে সিপিএমকে।

কেরালা নদভাথুল মুজাহিদিন (কেএনএম) বলেছে যে, যে অভিযোগে পিএফআই’কে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে, সেই একই কারণে আরএসএস এবং অন্যান্য সংঘ পরিবার সংগঠনগুলোকে নিষিদ্ধ করা হোক। কারণ তারাও একই ধরণের মেরুকরণে নিযুক্ত ছিল। সিনিয়র কংগ্রেস নেতা ও রাজ্যের প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রমেশ চেন্নিথালা এ প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘আরএসএসকেও একই ভাবে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা উচিত। কেরালার ওই দুই সংগঠনই ঘৃণা ছড়িয়ে সমাজে বিভেদ ছড়ানোর চেষ্টা করছে।’ কংগ্রেস যে বরাবরই সংখ্যাগুরু ও সংখ্যালঘু, দুই ধরনের সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছে সেই দাবিও করেন তিনি।

পিএফআই নিষিদ্ধ হতে পারে এই গুঞ্জন সম্প্রতি জোরদার হচ্ছিল। এ প্রসঙ্গে কেরালার সিপিএম রাজ্য সম্পাদক এমভি গোবিন্দনকে মঙ্গলবারই দাবি তুলতে দেখা যায়, ‘আরএসএসকে আগে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হোক। যদি চরমপন্থী সাম্প্রদায়িক সংগঠনগুলিকে নিষিদ্ধ করতে হয়, তাহলে আরএসএসকে আগে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হোক। কিন্তু ওরা কি আরএসএসকে নিষিদ্ধ করবে?’

উল্লেখ্য, বুধবার ইউএপিএ আইনের অধীনে আগামী পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে পিএফআই সংগঠনকে। শুধু পিএফআই-ই নয়, এরসঙ্গে যুক্ত একাধিক সংগঠন যেমন সিএফআই, অল ইন্ডিয়া ইমাম কাউন্সিল, রিহ্যাব ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন, ন্যাশনাল উইমেন্স ফ্রন্টকেও বেআইনি কার্যকলাপের সঙ্গে যুক্ত সংগঠন বলে ঘোষণা করা হয়েছে। এই সমস্ত সংগঠনকেই নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

প্রসঙ্গত, পিএফআই সবচেয়ে সক্রিয় কেরালায়। সেখানেই তাদের সদর দফতর। কেরালার সিপিএম সরকার অনেক দিন ধরেই এই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ধরপাকড় চালিয়ে যাচ্ছে। পিএফআইয়ের কার্যকলাপের ফলে কট্টর হিন্দুত্ববাদীদের তৎপরতা বাড়ছে বলে সিপিএম সরকারের আশঙ্কা। এই পরিস্থিতির সুযোগ বিজেপি প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে খবর। সূত্র: টিওআই।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন