বুধবার ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

ব্রাজিলে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন: জনপ্রিয়তায় বলসোনারোর থেকে আরও এগিয়ে লুলা

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১:২৩ পিএম

ব্রাজিলের ইতিহাসে সবচেয়ে বিভক্ত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আর এক সপ্তাহ বাকি নেই। এর মধ্যেই বর্তমান প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারোর চেয়ে জনপ্রিয়তায় আরো এগিয়ে গিয়েছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট লুইজ ইনাসিও লুলা ডা সিলভা।

গত মঙ্গলবার প্রকাশিত এক জরিপের ফলাফলে দেখা গেছে, বলসোনারোর চেয়ে ১৩ শতাংশ পয়েন্টে এগিয়ে লুলা। সাম্প্রতিক জরিপগুলো ইঙ্গিত দেয় যে, সাবেক বামপন্থী নেতা রোববার প্রথম রাউন্ডের ভোটে বলসোনারোকে পরাজিত করতে পারেন। সমীক্ষায় দেখা গেছে, প্রথম রাউন্ডে লুলার পক্ষে ৪৬ শতাংশ ভোটারের সমর্থন রয়েছে। অপরদিকে, বলসোনারোকে সমর্থন করেছেন মাত্র ৩৩ শতাংশ ভোটার। এক সপ্তাহ আগে লুলার পক্ষে ৪৪ শতাংশ এবং বলসোনারোর পক্ষে ৩৪ শতাংশ ভোটারের সমর্থন ছিল৷

ব্রাজিল আসন্ন ভোটে আগাম উত্তেজনা রয়ে গেছে, কারণ বিশেষজ্ঞরা নির্বাচন-সম্পর্কিত সহিংসতার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন যদি বলসোনারো পরাজয় মেনে নিতে অস্বীকার করেন। সাবেক সেনা ক্যাপ্টেন বলসোনারো সাম্প্রতিক মাসগুলিতে বারবার সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতিদের সমালোচনা করেছেন এবং কোনো প্রমাণ না দিয়েই অভিযোগ করেছেন যে, ব্রাজিলের ইলেকট্রনিক ভোটিং সিস্টেম ব্যাপক জালিয়াতির জন্য ঝুঁকিপূর্ণ।

আইন বিশেষজ্ঞরা সেই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন, যখন প্রেসিডেন্টের সমালোচকরা তাকে অভিযুক্ত করেছেন যে, তিনি ফলাফল নিয়ে বিতর্ক করার জন্য নির্বাচনের দৌড়ে সন্দেহের বীজ বপন করেছিলেন, যেমনটি করেছিলেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প, যাকে বলসোনারো অনুকরণ করেন। সাও পাওলোর ফান্ডাকাও গেটুলো ভার্গাসের একজন রাষ্ট্রবিজ্ঞানী এবং অধ্যাপক গুইলহার্মে ক্যাসারোস বলেছেন, বলসোনারো রোববারের প্রতিযোগিতার আগে সাম্প্রতিক ভোটগ্রহণের পাশাপাশি ভোটদান ব্যবস্থার উপর সন্দেহ সৃষ্টি করেছেন।

‘তিনি এটা স্পষ্ট করেছেন, বেশ কয়েকবার, তিনি ব্রাজিলের ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে বিশ্বাস করেন না। তিনি নির্বাচনী আদালতের উপর সন্দেহ পোষণ করেন। তিনি ভোট ও ভোটের সংখ্যাকে সম্পূর্ণভাবে উপেক্ষা করেন। সামনে এত কঠিন সময়, আমি বলব,’ কাসারোস আল জাজিরাকে বলেছেন, ‘বলসোনারো (ফলাফল) মেনে নিতে ইচ্ছুক নন এবং তার বেশিরভাগ সমর্থক ইতিমধ্যেই বলেছেন যে, লুলা জিতলে তারা নির্বাচনের ফলাফল মেনে নেবে না।’

বুধবার জেনিয়াল/কোয়েস্ট জরিপে দেখা গেছে যে, বলসোনারোর সরকারের প্রতি নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি গত সপ্তাহে ৩৯ শতাংশ থেকে বেড়ে এ সপ্তাহে ৪২ শতাংশ হয়েছে। বিপরীতে আগের মতোই ৩১ শতাংশ মানুষ সরকারকে ইতিবাচক আলোকে দেখেন। কোভিড-১৯ মহামারী পরিচালনায় ব্যর্থতার পাশাপাশি আমাজন রেইনফরেস্ট ধ্বংস এবং ব্রাজিলের আদিবাসীদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বৃদ্ধির জন্য বলসোনারোর সরকারকে সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

এদিকে, ব্রাজিলিয়ান পুলিশ এই সপ্তাহের শুরুতে বলেছে যে, একজন ৩৯ বছর বয়সী লুলা সমর্থককে তার ভোট দেয়ার অভিপ্রায় সম্পর্কে অন্য একজনকে বলার পরে তাকে একটি বারে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে। ফলে নির্বাচন-সম্পর্কিত সহিংসতা নিয়ে আশঙ্কা অব্যাহত রয়েছে। ও পোভো পত্রিকা জানিয়েছে যে, প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে বলেছে শনিবার এক ব্যক্তি ক্যাসকেভেল শহরের একটি বারে প্রবেশ করে এবং লুলাকে কে ভোট দিচ্ছেন তা জিজ্ঞাসা করেছিল। একজন লোক বলেছিল, ‘আমি দেব’, এবং তারপরে তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছিল। ওই দিনই হাসপাতালে তিনি মারা যান।

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলেছে যে, ব্রাজিলের নির্বাচনী প্রচারণার সময় ‘আপাত রাজনৈতিক অনুপ্রেরণা সহ আরও একটি হত্যাকাণ্ডের জন্য’ তারা মর্মাহত। সংস্থাটি টুইটারে বলেছে, ‘প্রার্থীদের উচিত যে কোনো সহিংসতার তীব্র নিন্দা করা এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পক্ষে প্রচার করা।’

ফানডাকাও গেটুলো ভার্গাস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান বুধবার বলেছেন যে, মতামত জরিপ যদি সত্য হয় এবং লুলা প্রেসিডেন্ট পদে জয়ী হন, তাহলে তার কাছে ‘একটি বড় চ্যালেঞ্জ হবে দেশের ক্ষত নিরাময় করা। ‘ব্রাজিল মেরুকরণ এবং র‌্যাডিকালাইজড হয়েছে আগের মতন, এবং এর কারণে, যদি লুলা বাম দিকে খুব বেশি ঝুঁকে পড়ার চেষ্টা করে, তাহলে এটি দেশটিতে আরও বড় মেরুকরণ ঘটাবে - এবং এটি অবশ্যই লুলা চান না।’ সূত্র: আল-জাজিরা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন