রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

দেশে নষ্ট রাজনীতির দুষ্ট চর্চা এখনো রয়েছে : রাজারবাগে বিদায় অনুষ্ঠানে বেনজীর

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৩ এএম

দেশে একধরনের নষ্ট রাজনীতির দুষ্ট চর্চা ছিল, এখনো রয়েছে। এই চর্চায় কেউ কেউ অন্যায়ভাবে আমাকে বিপক্ষে আবিষ্কার করেছে। তবে যাবার বেলা তাদের বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নেই, কোনো অনুযোগ নেই। দীর্ঘ সাড়ে ৩৪ বছরের কর্মজীবন শেষে অবসরে যাবার আগের দিন শেষ কর্মদিবসে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজারবাগ পুলিশ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে বিদায়ী মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড.বেনজীর আহমেদ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আমরা সবাই মিলেই বাংলাদেশ। কল্যাণমূলক রাষ্ট্র বাস্তবায়নের জন্য আমরা সবাই হাতে হাত মিলিয়ে যে যেখানে আছি সেখান থেকে দায়িত্ব পালন করবো। ডিএমপি কমিশনার, র‌্যাবের ডিজি ও সর্বশেষ আইজিপি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে অনেক চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করেছি। এতে আপনারা সমর্থন জুগিয়েছেন, দেশবাসীও সমর্থন জুগিয়েছেন। ধারাবাহিক গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালনকালে মানুষের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিতে চেষ্টা করেছি। আজ (শুক্রবার) থেকে জীবনের একটি পাতা উল্টিয়ে নতুন পাতা পড়ার চেষ্টা করবো।
বেনজীর আহমেদ বলেন, বর্তমান পুলিশ আগের চেয়ে অনেক বেশি গণমুখী। নানা প্রতিবন্ধকতা পার করে আজকে বাংলাদেশ এ পর্যায়ে এসেছে। ১৮ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভ থেকে ৪৯ বিলিয়ন ডলার রিজার্ভে এসে পৌঁছেছে দেশে। প্রায় তিন হাজার ডলারের মাথাপিছু আয়ে পৌঁছেছে। এসময়ে নানা দারিদ্র্য, অসুখ-বিসুখ, বঞ্চনা দেখেছে দেশ। অনেক ধরনের রাজনীতির খেলা হয়েছে।

আন্তর্জাতিক পরিমÐলে বাংলাদেশ পুলিশের দুটি বিষয় বর্তমানে সবচেয়ে বেশি আলোচিত। কিভাবে আমরা সফলভাবে করোনা ক্রাইসিস অতিক্রম করেছি এবং সন্ত্রাসবাদ দমনে বাংলাদেশ পুলিশের সাফল্যের বিষয়ে সবাই জানতে চায়। কিছুদিন আগে জাতিসংঘে কাউন্টার টেররিজম ডিপার্টমেন্ট আমাদের কাছে জানতে চেয়েছে, আমরা কীভাবে সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় সফল হয়েছি।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দায়িত্ব পালনে অনেক চ্যালেঞ্জের মাঝে ফরমালিনবিরোধী অভিযান ছিল তার বড় চ্যালেঞ্জ। ফরমালিন মুক্ত করতে গিয়ে হাজার হাজার টন, মাছ, ফল ও সবজি ধ্বংস করতে হয়েছে। এ ছাড়া সুন্দরবনের জলদস্যু মুক্ত করারটাও চ্যালেঞ্জের একটি কাজ ছিল। চারশ বছর আগেও জলদস্যু ছিল। আজ দস্যু মুক্ত সুন্দরবন।
১৯৮৮ সালের ফেব্রæয়ারিতে সহকারী পুলিশ সুপার হিসাবে পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেওয়া বেনজীর আহমেদ পুলিশ মহাপরিদর্শকের দায়িত্বে আসনে ২০২০ সালের ১৫ এপ্রিল। তার আগে প্রায় সাড়ে চার বছর র‌্যাবের নেতৃত্ব দেন।

গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলে যুক্তরাষ্ট্র গত ডিসেম্বরে র‌্যাব ও এর সাবেক-বর্তমান ৭ কর্মকর্তার উপর নিষেধাজ্ঞা দিলে ওই তালিকায় তৎকালীন র‌্যাবের সাবেক মহাপরিচালক হিসেবে বেনজীর আহমেদের নামও আসে। ওই নিষেধাজ্ঞার কারণে গত ৩১ অগাস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত জাতিসংঘের পুলিশ প্রধান সম্মেলনে বেনজীরের অংশ নেওয়া নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল। তবে শেষ মুহ‚র্তে যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা নিশ্চিত করায় ওই আয়োজনে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি তিনি নিউ ইয়র্কে এক নাগরিক সংবর্ধনাতেও যোগ দেন।

গতকাল সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- র‌্যাবের সদ্য বিদায়ী ডিজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন, ডিএমপি কমিশনার মো. শফিকুল ইসলাম ও অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) কামরুল আহসান প্রমুখ।
বেনজীর আহমেদ আরও বলেন, আমাকে আপনারা যেভাবে সহযোগিতা করেছেন, একইভাবে পরবর্তী দায়িত্বে যাঁরা আসবেন, তাঁদেরও সহযোগিতা করবেন।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (3)
প্রবাসী-একজন ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:০৫ পিএম says : 0
আইন প্রয়োগকারী সংস্থায় থাকাকালীন তার প্রত্যক্ষ মদদে যেসব ব্যক্তি প্রাণহানি ঘটেছে, মহান আল্লাহর দরবারে তাকে সেজন্য জবাবদিহি করতে হবে; দুনিয়ার কেউ তা ঠেকাতে পারবে না।
Total Reply(0)
Mohmmed Dolilur ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৩:২১ এএম says : 0
উনি খুব ভালো একজন উদ্ধতর্ন সরকারি কর্মকর্তা ছিলেন,এবং উনি দুধের মতো পরিস্কার,এত এব উনাকে পুলিশ পাহারা না দিয়ে রাখাই উত্তম হবে,এক জন সত্য বাদী লোক কে পাহারা দেওয়ার পয়োজন নেই,জনগণের এই বেপারে কি মতামত,
Total Reply(0)
Abdullah ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৮:৩৬ এএম says : 0
উনার মতো ভালো মানুষের আরো আগে বিদায় নিয়া উচিত ছিলো!
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন