ঢাকা, শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১৩ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইনে বিশেষ ব্যবস্থার প্রতি জয়ের সমর্থন

| প্রকাশের সময় : ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

বিশেষ সংবাদদাতা : প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইন-২০১৬ এর খসড়ায় ‘বিশেষ বিধান’ অন্তর্ভুক্তির প্রতি সমর্থন জানিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের মতো উন্নত  দেশগুলোতে একই ব্যবস্থা বিদ্যমান রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র জয় তার ফেসবুক পাতায় গতকাল বৃহস্পতিবার লেখেন, আমাদের আইনের সংশোধনী শুধুমাত্র ব্যতিক্রমী পরিস্থিতিতে অভিভাবক এবং আদালতের সম্মতিতে ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের বিয়ের অনুমতি দেয়। এটা সেই একই রকম আইন যা সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রে রয়েছে। যদি এই ব্যতিক্রমগুলো যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেত্রে ঠিক থেকে থাকে, তবে বাংলাদেশের ক্ষেত্রে ঠিক হবে না কেন?
খসড়া ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইন-২০১৬’-তে বিশেষ বিয়ের  ক্ষেত্রে একটি ‘বিশেষ বিধান’ অন্তর্ভুক্তি নিয়ে বিভিন্ন মহল উদ্বেগ প্রকাশ করায় জয় এই মন্তব্য করেন।
যুক্তরাষ্ট্রে বিবাহ আইনের উদাহরণ উল্লেখ করে জয় বলেন, আমি যুক্তরাষ্ট্রের পুরো ৫০টি রাজ্যের বিবাহ আইন সংক্রান্ত একটি সারসংক্ষেপ শেয়ার করতে চাই, যা বিশ্বের সর্বোচ্চ ল’ ইউনিভার্সিটির অন্যতম কর্নেল ল’ স্কুল হতে প্রকাশিত হয়েছে। প্রায় সব রাজ্যেই ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের বিয়ে কোর্ট বা তাদের অভিভাবকদের সম্মতিতে হতে পারে। বিয়ের সর্বনি¤œ বয়সের বিষয়ে তারতম্য রয়েছে। কোনো কোনো রাজ্যে এটি সর্বনি¤œ ১২ বছর এবং একটি রাজ্য রয়েছে তাদের কোনো সর্বনি¤œ বয়সসীমা নেই। গর্ভধারণের বা এ ধরনের বিষয়ও প্রায়ই আদালতের সম্মতিসাপেক্ষে হয়ে থাকে।
তিনি বলেন, যারা আমাদের বর্তমান বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইনের সমালোচনা করছেন এটা তাদের যুক্তির বিপক্ষে যায়।
গত ২৪ নভেম্বর ‘বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইন-২০১৬’ (বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ বিধি-২০১৬)-এর খসড়াকে চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। সেখানে ২১ বছর ও ১৮ বছরের কম বয়সী ছেলে-মেয়ের মধ্যে বিবাহের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তিমূলক ব্যবস্থার কথা বলা হয়েছে। খসড়ায় বলা হয়, ২১ বছরের নিচে  ছেলে এবং ১৮ বছরের নিচে মেয়ের বিবাহকে বাল্যবিবাহ বলে অভিহিত করা হবে। এরপর আইনে একটি নতুন ব্যবস্থা অন্তর্ভুক্ত করা হয়। এতে বলা হয়, আদালতের পূর্বানুমতি এবং অভিভাবকদের সম্মতিতে মেয়ের আগ্রহে এক বিশেষ পরিস্থিতিতে নির্ধারিত বয়সের চেয়ে কম বয়সী মেয়ের বিবাহ হতে পারে।
গত বুধবার প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাল্যবিবাহ সংক্রান্ত সরকারের নতুন আইনের ব্যাপারে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই। সংসদে প্রশ্নোত্তরকালে সংসদ নেতা হিসেবে তিনি বলেন, আমাদের সমাজের বাস্তবতাকে বিবেচনা করে এই আইন প্রণয়ন করা হয়েছে।
শেখ হাসিনা বলেন, কিছু এনজিও এবং কিছু ব্যক্তি, বিশেষ করে পল্লী এলাকার সমাজের বাস্তবতা সম্পর্কে যাদের কম ধারণা রয়েছে, তারাই বিশেষ ক্ষেত্রে ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের বিবাহের ব্যাপারে প্রশ্ন তুলেছেন। তিনি বলেন, বাস্তবতা থেকে তারা অনেক দূরে। তিনি আরো বলেন, পশ্চিমা অনেক দেশে ১৪ ও ১৬ বছর বয়সী মেয়েদের বিয়ের অনুমতি রয়েছে।
শেখ হাসিনা বলেন, একটি আইন কখনো কট্টর হতে পারে না। বিশেষ ক্ষেত্রে অবশ্যই এর বিকল্প থাকতে হবে। বিশেষ করে ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের অপ্রত্যাশিত গর্ভধারণের ঘটনার  ক্ষেত্রে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন