রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

খেলাধুলা

নাহিদার পর জ্যোতি

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ অক্টোবর, ২০২২, ১২:১৫ এএম

নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স উপহার দেওয়া নিগার সুলতানার সামনে দারুণ কিছুর হাতছানি। দ্বিতীয় বাংলাদেশি নারী ক্রিকেটার হিসেবে ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ’ এর সংক্ষিপ্ত তালিকায় জায়গা পেয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। সেপ্টেম্বরের সেরার লড়াইয়ে তার সঙ্গী ভারতের হারমানপ্রিত কাউর ও স্মৃতি মান্ধানা। এর আগে ২০২১ সালের নভেম্বরে মাসসেরার সংক্ষিপ্ত তালিকায় ছিলেন বাংলাদেশের নাহিদা আক্তার।
গত মাসের পারফরম্যান্সের ওপর ভিত্তি করে সেরার লড়াইয়ে জায়গা পাওয়া পুরুষ ও নারী ক্রিকেটারদের তালিকা গতকাল প্রকাশ করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্তা সংস্থা। সেরার লড়াইয়ে ছেলেদের তিন জন হলেন পাকিস্তানের মোহাম্মদ রিজওয়ান, অস্ট্রেলিয়ার ক্যামেরন গ্রিন ও ভারতের আকসার প্যাটেল।
এশিয়া কাপের আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে দলের সঙ্গে ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সও দারুণ ছিল নিগারের। ৫ ম্যাচে ৪৫ গড়ে তিনি করেন ১৮০ রান। প্রথম ম্যাচে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলেন ৬৭ রানের ইনিংস, এরপর যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে করেন অপরাজিত ৫৬ রান। টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ, ফাইনালে উঠেই আগামী বছর দক্ষিণ আফ্রিকায় হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা নিশ্চিত হয় নিগারের দলের।
অন্যদিকে ভারত অধিনায়ক হারমানপ্রীত মনোনয়ন পেয়েছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের পারফরম্যান্স দিয়ে। টি-টোয়েন্টি সিরিজ সাদামাটা কাটানোর পর ৩ ওয়ানডেতে তিনি করেন ২২১ রান। প্রথম ম্যাচে অপরাজিত ৭৪ রানের ইনিংসের পর দ্বিতীয় ম্যাচে খেলেন ১৪৩ রানের অপরাজিত ইনিংস। তাতেই ২৩ বছর পর ইংল্যান্ডের মাটিতে সিরিজ জয় নিশ্চিত হয় ভারতের। স্মৃতি অবশ্য দুই সিরিজেই ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করেছেন। প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ৭৯ রানের পর প্রথম ওয়ানডেতে এ বাঁহাতি ওপেনার খেলেন ৮১ রানের ইনিংস। দুই সংস্করণ মিলিয়ে গত মাসে তার গড় ছিল ৫০-এর ওপরে, টি-টোয়েন্টিতে স্ট্রাইক রেট ছিল ১৩৭। নিগার, হারমানপ্রীত বা স্মৃতি- শেষ পর্যন্ত যে-ই এ পুরস্কার জিতুন না কেন, তিনি হবেন আইসিসির মাসসেরা হওয়া নিজ দেশের প্রথম নারী ক্রিকেটার।
ছেলেদের মাসসেরার সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা গ্রিন নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে অপরাজিত ৮৯ রানের ইনিংসের পর ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও ছিলেন দুর্দান্ত। তার ৩০ বলে অপরাজিত ৬১ রানের ইনিংসে প্রথম ম্যাচে জেতে অস্ট্রেলিয়া, সিরিজে ৩৯.৩৩ গড়ে ১১৮ রান করে দলের সর্বোচ্চ রান-সংগ্রাহক হন এই অলরাউন্ডার। অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলে গ্রিন কেন নেই, সে আলোচনায় এমন পারফরম্যান্সে উসকে দিয়েছেন তিনি।
টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান রিজওয়ানেরও ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে দারুণ ছিল গত মাস। এশিয়া কাপে ফাইনাল খেলা পাকিস্তানের হয়ে তিনটি ফিফটি করেন ওই টুর্নামেন্টে, এরপর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে করেন আরও চারটি ফিফটি। সেপ্টেম্বরে ৬৯.১২ গড়ে ৫৫৩ রান করেছেন এ উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। আর ভারতীয় স্পিনার অক্ষর প্যাটেল সেপ্টেম্বরে ১১.৪৪ গড় ও ওভারপ্রতি ৫.৭২ রান খরচ করে নিয়েছেন ৯ উইকেট।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন