শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ০৫ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

আন্তর্জাতিক সংবাদ

রাশিয়ার বিরুদ্ধে জাতিসংঘে ফের ভোটদানে বিরত ভারত-পাকিস্তান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ নভেম্বর, ২০২২, ১১:২৮ এএম

ইউক্রেন ইস্যুতে ফের ‘বন্ধু’ রাশিয়ার পাশেই থাকল ভারত ও পাকিস্তান। সোমবার জাতিসংঘের সাধারণ সভায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাব আনা হলে সেই ভোটাভুটিতে যোগ দিল না নয়াদিল্লি। ৯৪টি দেশ প্রস্তাবের সপক্ষে রায় দিলেও বিরোধিতা করেছে ১৪টি দেশ। নিরপেক্ষ অবস্থান বজায় রেখে ভারত-সহ ৭৩টি দেশ ভোটদান থেকে বিরত থেকেছে।

এদিন জাতিসংঘের সাধারণ সভায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে ক্ষয়ক্ষতির জন্য ক্ষতিপূরণ চেয়ে একটি খসড়া প্রস্তাব পেশ করে ইউক্রেন। ওই প্রস্তাবে মস্কোর বিরুদ্ধে আগ্রাসন, আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ করেছে কিয়েভ। পুতিন প্রশাসনকে ধাক্কা দিয়ে ভোটাভুটিতে আমেরিকা-সহ ৯৪টি দেশ প্রস্তাবের সপক্ষে ভোট দেয়। বিপক্ষে ভোটদান করে রাশিয়া, চীন, উত্তর কোরিয়া, ইরান ও সিরিয়া, কিউবা ও বেলারুশ-সহ ১৪টি দেশ। নিরপেক্ষ অবস্থান বজায় রেখে ভোটদানে বিরত থাকে ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ, ইসরাইল, নেপাল ও শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা-সহ ৭৩টি দেশ।

জাতিসংঘে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ভোটদান নয় কেন? এই প্রশ্নের উত্তরে জাতিসংঘের কর্মপদ্ধতির উপরই প্রশ্ন তুলেছে ভারত। রাশিয়ার বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে প্রস্তাব চাইলেই কি ইউক্রেনে যুদ্ধ থেমে যাবে, পালটা প্রশ্ন তুলে নয়াদিল্লি। শুধু তাই নয়, এমন প্রস্তাবের আইনি বৈধতা নিয়েও সংশয় প্রকাশ করে ভারত। এই বিষয়ে জাতিসংঘে নিযুক্ত ভারতের স্থায়ী দূত রুচিরা কম্বোজ বলেন, ‘এটা স্পষ্ট হওয়া দরকার যে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চেয়ে প্রস্তাব পাশ করলে কি ইউক্রেন সমস্যার সমাধান হবে। তাই পর্যাপ্ত পরিকাঠামো ও আইনি বৈধতা ছাড়া এভাবে প্রস্তাব পাশ করে ভবিষ্যতের জন্য উদাহরণ তৈরি করা উচিত নয়।’

উল্লেখ্য, এর আগে গত অক্টোবর মাসেও মস্কোর বিরুদ্ধে একটি প্রস্তাবে ভোটদানে বিরত থাকে দিল্লি। সেবার মিন্সক চুক্তি ও নরম্যান্ডি ফরম্যাটে আমেরিকা ও রাশিয়ার মধ্যে চলা আলোচনার পক্ষে প্রস্তাব করে জাতিসংঘে ভারতের প্রতিনিধি টিএস তিরুমূর্তি বলেছিলেন, ‘ভারতের স্বার্থ হল এমন একটি সমাধান খুঁজে বের করা যা তাৎক্ষণিকভাবে উত্তেজনা কমিয়ে আনা সম্ভব হয়। সমস্ত দেশের বৈধ নিরাপত্তা স্বার্থ বিবেচনায় নিয়ে এবং এই অঞ্চলে দীর্ঘমেয়াদি শান্তি ও স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পদক্ষেপ নেয়া উচিত।’ সূত্র: টাইমস নাউ।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন