শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ০৫ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

খেলাধুলা

মরক্কোর মিরাকল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

মরক্কো ২-বেলজিয়াম ০। অবিশ্বাস্য, অকল্পনীয়। তবে অপ্রত্যাশিত নয়। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে যেভাবে ক্রোয়েশিয়াকে পুরো নব্বই মিনিট আটকে রেখেছিল আফ্রিকার মুসলিম দেশটি, তাতে প্রত্যাশার পারদ এক ধাপে শতগুণ বেড়ে যায়। সমর্থকদের সেই প্রত্যাশার প্রতিদান কড়ায় গন্ডায় বুঝিয়ে দিয়েছে মরক্কো। নির্ধারিত সময় শেষে স্কোর বোর্ডে জ্বলজ্বল করে উঠছে আফ্রিকান নেশন্সের বীরত্বগাঁথার কাব্য। গতকাল সন্ধ্যা ৭টায় দোহায় কাতার বিশ্বকাপের ২৬তম ম্যাচে মরক্কোর হয়ে প্রতিপক্ষের জাল কাঁপিয়েছেন আবদেল হামিদ সাবিরি ও জাকারিয়া আবুখালাল। অথচ ম্যাচের দুই তৃতীয়াংশ সময় বল দখলে রেখেছিল গত বিশ্বকাপের তৃতীয় স্থান অধিকারী দলটি। তবে বলের দখল নেয়াই যে ম্যাচের ফল নিজেদের দিকে ঘোরাতে পারে না তার আরেকটি উহাহরন হয়ে রইলো ম্যাচটি। কম সময় বল নিয়ন্ত্রণে রেখেও গোলপোস্টে ৪ বার আঘাত করেছে মরক্কো। যার দুটি শট কোর্তোয়া ফেরাতে পারলেও বাকি দুটি আর ফেরাতে পারেননি। দলকেও পারেননি বাঁচাতে। অন্যদিকে মরক্কোর গোলরক্ষককে তেমন কোন পরীক্ষায়ই ফেলতে পারেননি ইডেন হেজার্ডরা। তিনটি শটের প্রতিটিই ফিরিয়েছেন তিনি।
গ্রæপ পর্বের এই ম্যাচের পর পয়েন্ট টেবিলে তোলপাড় লেগে গেছে। অবস্থা এমন দাঁড়িয়েছে বাদ পড়ে যেতে পারে বেলজিয়াম। গ্রুপ ‘এফ’-এ দুই ম্যাচ খেলে এক জয় ও এক ড্রয়ে চার পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে মরক্কো। সমান সংখ্যক ম্যাচে এক জয় ও এক হারে বেলজিয়াম আছে দ্বিতীয় স্থানে। মরক্কোর বিপক্ষে এক ম্যাচ ড্র করে ক্রোয়েশিয়ার পয়েন্ট এক। গতবারের রানার্সআপ দলটির অবস্থান তিন। এক ম্যাচ খেলে বেলজিয়ামের পিক্ষে ১-০ ব্যবধানে হারা কানাডার পয়েন্ট শূন্য। তারা আছে গ্রুপের তলানিতে। তবে বেলজিয়ামের একটি ম্যাচই বাকি আছে। তাও আবার ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে। সেই ম্যাচে হেরে গেলে কাতার বিশ্বকাপের ইতি ঘটবে বেলজিয়ামের সোনালী দলের। অন্যদিকে ক্রোয়েশিয়ার সামনে থাকবে আরও একটি ম্যাচ। কানাডার বিপক্ষে। আর মরক্কোর বাকি থাকা একটি ম্যাচও কানাডার বিপক্ষে। পয়েন্ট টেবিলের সমীকরণে খাদের কিণারায় বেলজিয়াম।
তবে ম্যাচের প্রথমার্ধ ছিল অনেকটাই ম্যাড়ম্যাড়ে। কোন দলই ঠিকমতো গুছিয়ে উঠতে পারছিলো না। তবে পরের অর্ধেই ঘরে যায় ম্যাচের চিত্রনাট্য। ৭৩তম মিনিটে আবদেল হামিদ সাবিরির গোলে এগিয়ে যায় মরক্কো। কোর্তয়াকে ফাঁকি দিয়ে সরাসরি ফ্রি-কিকে জালে বল জড়ান তিনি। তারপর একের পর এক আক্রমণ চালিয়ে যায় ইউরোপের দেশটি। তবে কোন আক্রমণই পূর্ণতা পাচ্ছিল না। ম্যাচের শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত লড়াইয়ের মানসিকতা রাখা দলটির বুকে শেষ পেরেকটি গেথে দেন জাকারিয়া আবুখালাল। তখন অরিরিক্ত সময়েরও দুই মিনিট পেরিয়ে গেছে। পাঁচ মিনিটের অতিরিক্ত সময়ের দুই মিনিট পরে গোল দেয়ার পর কিছুটা সময় উদযাপন। এরপর কি আর দুই মিনিটে দুইটি গোল দেয়া যায়? ফুটবলের হিসেবে হয়তো এমন অনেক ঘটেছে, তবে মরক্কো তা হবে দেয়নি। দলটির মিরাকলে এখন খাদের কিণারায় ফুটবলের বর্তমান সময়ের অন্যতম পরাশক্তি বেলজিয়াম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন