মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ১৫ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সারা বাংলার খবর

বাগেরহাটে বাবার সাথে যেতে না পেরে তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্রীর আত্মহত্যা

বাগেরহাট প্রতিনিধি | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০২২, ৪:৪১ পিএম

বাগেরহাটে স্কুল থেকে বাসায় ফিরে বাবার সাথে বেড়াতে যাবে বলে সাজগোজ করে বসে ছিলো সংগীতা ঋষি নামে (১০) বছরের এক শিশু। তবে বাবার সাথে বেড়াতে যেতে না পেরে অভিমান করে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করে পরপারে চলেগেলো সংগীতা। সোমবার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজারের পূর্বমাথায় । সংগীতা রায়েন্দা ভাষানী কিন্ডার গার্টেনের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রী ও রায়েন্দা বাজারের জুতা সেলাইয়ের কাজ করা স্বপন ঋষির মেয়ে।
নিহত সংগীতার মা ভাষাণী কিন্ডারগার্টেনের আয়া নমীতা রানী ঋষি বলেন, সংগীতা স্কুল থেকে বাসায় এসে ওর বাবার সাথে বেড়াতে যাবে বলে সাজগোজ করে বসে ছিলো । কিন্তু ওর বাবা ওরে না নিয়ে রাজাপুরে একটা বিবাহ সংক্রান্ত কাজে চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পর ওকে আমরা গলায় দড়ি দিয়ে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলতে দেখি । প্রতিবেশীরা জানান, স্বপন রিশির এক ছেলে ও এক মেয়ের মধ্যে সংগীতা খুব আদরের ছিলো। এদিন স্কুল থেকে বাসায় এসে সবার সাথে কথা বলে। তখন বাবার সাথে বেড়াতে যাবে বলে সাজগোজ করে বসেছিলো । কিছুক্ষণ পর শুনি ওর মায়ের কান্নাকাটি । সাথে সাথে গিয়ে দেখি গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলে আছে । ওইসময় ওরে হাসপাতালে নিয়ে আসি ।
শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ আশফাক হোসেন বলেন,শিশুটিকে হাসপাতালে আনার পর পরিক্ষা নিরিক্ষা করে কোনো পালস পাওয়া যায়নি । পরে ইসিজি করে মৃত ঘোষণা করা হয় ।
শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)ইকরাম হোসেন বলেন, সংগীতা নামে ১০বছরের একটি শিশু গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। ময়না তদন্তের পর মৃত্যুর কারণ বলা যাবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন