রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ০৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সম্পাদকীয়

চিঠিপত্র

সনদ উত্তোলনে ভোগান্তি

| প্রকাশের সময় : ৩০ নভেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

স্বাধীনতা পরবর্তী দেশের প্রথম সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হলো ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়। প্রতিষ্ঠার ৪৩ বছর অতিক্রম হলেও শিক্ষার্থীদের ভোগান্তির কমতি নেই। বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স-মাস্টার্স শেষ হওয়ার পর শিক্ষার্থীদের =সনদপত্রসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র উত্তোলন। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অফিসে শিক্ষার্থীদের কাগজপত্র উত্তোলনের জন্য জরুরি ভিত্তিতে আবেদনের ৫ দিন এবং জরুরি ছাড়া ১৫ দিন সময় লাগে। কিন্তু যথানিয়মে আবদনের পর নির্ধারিত সময় পার হলেও পাওয়া যায় না কাক্সিক্ষত কাগজপত্র। কাগজপত্র হাতে পেতে সময় লাগে কয়েক মাস। অনেক সময় আবেদনপত্র জমা দেওয়ার ১৫/২০ দিন অতিক্রম হতেই আর খুঁজে পাওয়া যায় না। বাধ্য হয়ে শিক্ষার্থীদের গোপনীয় শাখায় ঢুকে হাতে হাতে কাজ করাতে হয়। এ দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮/২০ হাজার শিক্ষার্থী এবং ২২/২৩টি বিভাগের ইভিনিং মাস্টার্সের সনদ লেখার জন্য হস্ত/লিপিকুশলী রয়েছে মাত্র ১ জন। প্রতিদিন শতাধিক শিক্ষার্থীর সনদ, নম্বরপত্র লিখতে হিমশিম খেতে হয় তাকে। তা ছাড়া সনদ ও নম্বরপত্র লেখার জন্য কোনো কম্পিউটারের ব্যবস্থা নেই, যা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমর্যাদাকে ক্ষুণ্ন করছে। তাই শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমাতে কম্পিউটারের ব্যবস্থাসহ প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের দৃষ্টি আর্কষণ করছি।

তাসনীম আল রাজী
শিক্ষার্থী, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন