বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

ধর্ম দর্শন

আদর্শিক সমাজ বিনির্মাণে যুব সমাজ

মুহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মাসুম

| প্রকাশের সময় : ১ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

 


(পূর্ব প্রকাশিতের পর)
আর তাঁদের সাথে সম্মানজনক কথা বল এবং তাঁদের উভয়ের জন্য দয়াপরবশ হয়ে বিনয়ের ডানা নত করে দাও এবং বল, হে আমার প্রতিপালক! তাঁদের প্রতি দয়া কর, যেভাবে শৈশবে তাঁরা আমাকে লালন-পালন করেছেন।” (সূরা বনী ইসরাঈল, আয়াত: ২৩-২৪)
রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম অন্যত্র ইরশাদ করেছেন, “তরুণ বয়সের ইবাদতকে বিশেষভাবে গুরুত্ব দেয়া হয়। একজন বৃদ্ধের ইবাদতের চেয়ে আল্লাহ বেশী খুশি হন, সে তরুণ ও যুবকদের ইবাদতে, যারা যৌবন বয়সে আল্লাহর ইবাদতে লিপ্ত থাকে”। (সুনানে আবু দাউদ) তিনি আরো ইরশাদ করেছেন, “হাশরের ময়দানে মানুষকে পাঁচটি বিষয়ের হিসাব দিতে হবে, তন্মধ্যে অন্যতম হচ্ছে, ব্যক্তি তার যৌবন কাল কিভাবে ব্যয় করেছে”। (জামে তিরমিযী; মিশকাতুল মাসাবীহ)
আমেরিকান দার্শনিক ও মনোবিজ্ঞানী উইলিয়াম জেমস বলেন, একজন মানুষের সফল বা ব্যর্থ হওয়া তার ক্ষমতার ওপর যতটা না নির্ভর করে, তারচেয়ে বেশি তার দৃষ্টিভঙ্গীর ওপর নির্ভর করে। যারা সফল হয়, তারা সফল হওয়ার আগে থেকেই সফল মানুষের মত আচরণ করে। এই বিশ্বাসই একদিন সত্যিতে পরিনত হয়। আপনি যদি বিশ্বাস করেন যে আপনি অবশ্যই সফল হবেন, তবে আপনার ব্যবহারেও তা প্রকাশ পাবে। এবং আপনি নিজেই নিজের এই দৃষ্টিভঙ্গীর সুফল দেখে অবাক হয়ে যাবেন।বস্তুতঃ দু'টি বিষয়ের উপর গুরুত্বারোপ করলে নিজেকে সংশোধন করা সম্ভব। যথা-১. আল্লাহর সামনে দন্ডায়মান হওয়াকে ভয় করা, যার ফলে তাঁর সাথে সাক্ষাতের জন্য প্রস্তুুতি গ্রহণ করতে সহজ হয়। ২. সময়ের অপচয় রোধ করা। কেননা, মন যেমন চায় তেমন না চলে সত্য পথের অনুসরণ করলে অন্তর প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে। ইরশাদ হচ্ছে- “যে ব্যক্তি সীমালংঘন করে এবং পার্থিব জীবনকে অগ্রাধিকার দেয় জাহান্নামই হবে তার আবাস। পক্ষান্তরে যে স্বীয় প্রতিপালকের সম্মুখে উপস্থিত হওয়ার ভয় রাখে এবং প্রবৃত্তি হতে নিজেকে বিরত রাখে, জান্নাতই হবে তার আবাস।” –(সূরা নাযিয়াত, আয়াত:৩৭-৪১) অন্যত্র আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন-“আর তুমি চল সে অনুযায়ী যেমন নির্দেশ আসে তোমার প্রতি এবং ধৈর্যধারণ কর, যতক্ষণ না আল্লাহ ফয়সালা করেন । বস্তুতঃ তিনি হচ্ছেন সর্বোত্তম ফয়সালাকারী।” -(সূরা ইউনূস, আয়াত: ১০৯)
সাম্প্রতিক সময়ে ধর্মের নামে উচ্চ শিক্ষিত বা স্বল্প শিক্ষিত কিছু যুবক সহজে জান্নাত লাভের আশায় ইহূদী-খৃষ্টানদের চক্রান্তের শিকার হয়ে নিজেদেরকে ধ্বংসের মুখে নিক্ষেপ করছে। বিশেষ করে কোমলমতি যুবসমাজকে জিহাদের নামে সরাসরি জঙ্গী কার্যক্রমের মত ধ্বংসাত্মক কাজে লিপ্ত হতে বিভিন্নভাবে প্ররোচিত করছে। কুরআন-হাদীসের খন্ড খন্ড আয়াত ও হাদীসাংশের ভ্রান্ত ব্যাখ্যা দিয়ে সরলমনা এসব ছেলেদের শরীরে বোমা বেঁধে ইসলামের দুশমন নিধনের নামে যত্রতত্র হামলা চালানো হচ্ছে। আর তাতে প্রাণ হারাচ্ছে শত শত নিরীহ নিরপরাধ যুবক। পরিণামে ছেলেটি ইহকাল-পরকাল দুটিই হারাচ্ছে; সাথে সাথে বিশ্বের দরবারে চির সত্য ধর্ম ইসলাম সন্ত্রাসীদের ধর্ম হিসেবে আখ্যায়িত হচ্ছে। মহান আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন, ‘নিশ্চয় যে ব্যক্তি হত্যার বিনিময়ে হত্যা অথবা পৃথিবীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করা ব্যতীত কোন নিরপরাধ ব্যক্তিকে হত্যা করল, সে যেন সমগ্র মানব জাতিকে হত্যা করল।” ( সূরা মায়েদা, আয়াত: ৩২) অতএব সাবধান! হে যুবসমাজ! কোন ষড়যন্ত্রকারীর চক্রান্তের শিকার হয়ে আমরা যেন বিপথগামী না হয়ে পড়ি। সাথে সাথে মহান আল্লাহ আমাদের যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা যেন যথাযথভাবে পালন করে যেতে পারি সেদিকে সদা সচেষ্ট থাকতে হবে। হে যুবক! সর্বদা স্মরণ রেখ রাসূলের বাণী; জনৈক ব্যক্তিকে উপদেশ দিতে গিয়ে বলেছিলেন, “পাঁচটি জিনিস আসার পূর্বেই পাঁচটি বস্তু থেকে সুবিধা গ্রহণ কর- বৃদ্ধ হবার পূর্বেই তারুন্যকে সুপথে ন্যস্ত কর, অসুস্থ হবার পূর্বেই সুস্বাস্থ্য থেকে সুবিধা গ্রহণ কর, দরিদ্রতা এসে যাবার পূর্বেই সম্পদের সুব্যবহার কর, ব্যস্ততা এসে যাবার পূর্বেই অবসর সময়কে কাজে লাগাও এবং মৃত্যু এসে যাবার পূর্বেই ‘জীবন’ নামক এই নিয়ামতের সঠিক ব্যবহার কর।” ( জামে তিরমিযী; মুস্তাদরেকে হাকিম)
পরিশেষে যুব সমাজের প্রতি একান্ত আরজ, মহান আল্লাহ আমাদেরকে যৌবন নামক যে অমূল্য সম্পদ দান করেছেন, আমরা যেন তার সদ্ব্যবহার করে পরকালে সগৌরবে জান্নাতী যুবকদের কাতারে শামিল হতে পারি সে প্রচেষ্টা করে যেতে হবে। মহান আল্লাহ যেন আমাদের এ মনোবাঞ্ছা পূর্ণ করার তওফিক দান করেন। আমীন! বিজাহিন নবীয়্যিল আমীন সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম!

লেখক: আরবী প্রভাষক, রাণীরহাট আল আমিন হামেদিয়া ফাযিল মাদ্রাসা,খতিব,রাজানগর রাণীরহাট ডিগ্রি কলেজ মসজিদ,রাঙ্গুনিয়া, চট্টগ্রাম।
ই-মেইল: সধংঁস.লধংধ.পঃম@মসধরষ.পড়স
মোবাইল:০১৯৩৭৩০৫৪৫৫

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন