রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ০৬ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

সারা বাংলার খবর

দেশ গঠনেও সিনেমা ভুমিকা রাখে -তথ্যমন্ত্রী

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২ ডিসেম্বর, ২০২২, ৮:৪১ পিএম | আপডেট : ৮:৫২ পিএম, ২ ডিসেম্বর, ২০২২

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আমাদের স্বাধীকার আদায়ের আন্দোলন ও স্বাধীনতা সংগ্রামে অনেক সিনেমা ভুমিকা রেখেছে। মানুষকে নির্মল আনন্দ দেয়ার পাশাপাশি একই সাথে দেশ গঠন করার ক্ষেত্রেও সিনেমা ভুমিকা রাখে।

তিনি বলেন, দেশ স্বাধীন হবার পর আমাদের অনেক সিনেমা দেশ গড়ার ক্ষেত্রে ভুমিকা রেখেছে। ওরা এগারজন, আবার তোরা মানুষ হ, এই যে সিনেমাগুলো আমাদের দেশ গঠন করার কাজে ভুমিকা রেখেছে। সিনেমা শিল্প মানুষকে আনন্দ দেওয়া, নতুন এবং তরুন প্রজন্মকে বিপদগামী হওয়া থেকে রক্ষা করার ক্ষেত্রে ব্যাপক ভুমিকা রাখে।
শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজার বালি আর্কেডে স্টার সিনেপ্লেক্সের শাখা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান বালি আর্কেডের পরিচালক সোলায়মান আলম শেঠ, প্রধান নির্বাহী আফতাব আলম শেঠ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান রুহেল।
ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলা সিনেমা অনেক চড়াই-উৎরায় পেরিয়েছে। আমরা অনেক কঠিন সময় অতিক্রম করেছি। কিন্তু আমাদের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমাদের সিনেমা শিল্প অনেকদুর এগিয়েছে। আমি অবাক হয়েছি, গত অক্টোবর মাসে কলকাতায় বাংলাদেশ চল”িত্র উৎসব হয়েছে। সেখানে ‘হাওয়া’ মুভি দেখতে টিকেটের জন্য মানুষ এককিলোমিটার লাইন ধরেছে। দুপুর দুইটায় শো শুরু হবে, সকাল ৯টা থেকে লাইন ধরেছে। এমন দৃশ্য আমিও ভাবি নাই।
তিনি বলেন, আমি যখন স্কুলে পড়ি তখন চট্টগ্রাম শহরে ত্রিশটির মতো সিসেমা হল ছিল। এগুলো বন্ধ হয়ে গেছে। আশার কথা হচ্ছে গত এক বছরে করোনা মহামারির মধ্যেও আমাদের বন্ধ হয়ে যাওয়া দুই’শ সিনেমা হল নতুন ভাবে চালু হয়েছে। স্টার সিনেপ্লেক্সসহ আরো অনেকগুলো সিনেপ্লেক্স নতুনভাবে চালু হচ্ছে।
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার সিনেমা শিল্পের উন্নয়নের জন্য, সিনেমা হল নির্মাণের জন্য, বন্ধ হয়ে যাওয়া পুরনো হল নতুন ভাবে চালু করার উদ্দেশ্যে এক হাজার কোটি টাকার স্বল্প সুদে ঋণ তহবিল চালু করেছে। সিনেমার অনুদানের অর্থ বাড়িয়েছে। আগে যেখানে ৪০ লাখ টাকা সর্বোচ্চ দেয়া হতো সেটি আমরা ৭৫ লক্ষ টাকায় উন্নিত করেছি। এবং সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছে। আমাদের অনেক সিনেমা বিশ^াঙ্গনে প্রশংসিত হয়েছে। বিভিন্ন নামকরা পুরস্কার লাভ করেছে আমাদের সিনেমা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন